Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

মাহেশে জগন্নাথদেবের মূর্তি প্রতিষ্ঠাতা 

চতুর্দশ শতাব্দীতে সন্ন্যাসী ধ্রুবানন্দ প্রতিষ্ঠিত তিনটি বিগ্রহ জগন্নাথ, সুভদ্রা, বলরামের পুজো আজও শ্রীরামপুরে মাহেশের মন্দিরে হয়ে আসছে। বলা বাহুল্য, ধ্রুবানন্দ ব্রহ্মচারী হলেন সেই সিদ্ধপুরুষ যিনি সর্বপ্রথম বঙ্গভূমিতে ভগবান শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের পুজোর প্রবর্তন করেন। তাঁর ভক্তি ও জগন্নাথ সাধনার কথা জগৎ বিখ্যাত। তিনিই মাহেশে জগন্নাথদেবের মূর্তি স্থাপন করেন। রথের মরশুমে সেই সাধনার আখ্যানই শুনিয়েছেন দীপক বসু।

বিপুলা এ পৃথিবীর কতটুকু জানি! সত্যি অনেক কিছুই জানি না। মাহেশের জগন্নাথদেবের মূর্তি প্রতিষ্ঠা কে করেছিলেন এবং কীভাবে করেছিলেন তাও কি জানতাম? জানা গেল শ্রীরামপুর বইমেলায় শ্রীমৎ ধ্রুবানন্দ ব্রহ্মচারীর শিষ্যদের দ্বারা প্রচারিত একটি লিফলেট হাতে পেয়ে। যেখানে ফলাও করে বলা হয়েছে চতুর্দশ শতকে ধর্মপ্রাণ ধ্রুবানন্দ ব্রহ্মচারী নামে এক গৃহত্যাগী সন্ন্যাসী শ্রীরামপুর মাহেশের জগন্নাথ ঘাটের দক্ষিণ দিকে একটি পর্ণকুঠীরে বাস করতেন। যদিও তাঁর অতীত জীবন সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। অর্থাৎ তাঁর আদি নিবাস কোথায় এবং তাঁর পিতা-মাতার নাম কী ছিল তাও সম্পূর্ণ অজ্ঞাত। যতদূর জানা যায়, সেই সন্ন্যাসী গঙ্গার তীরে নির্জনে একটি পর্ণকুঠীরে ঈশ্বরের আরাধনা করতেন। একনিষ্ঠ সাধক বলেই তিনি ঈশ্বরের সন্ধানে এক সময় বহু তীর্থ ভ্রমণ করে অবশেষে পুরীধামে গিয়ে উপস্থিত হন।
পুরীর মন্দিরে আরাধ্য দেবতা মহাপ্রভুকে দর্শন করে তিনি মহানন্দে বিস্ময়ে অভিভূত হয়ে বিগলিত হন। প্রাণের দেবতাকে কাছে পেয়ে সন্ন্যাসী ধ্রুবানন্দ আর স্থির থাকতে পারেন না। আনন্দে দু’চোখ বেয়ে তাঁর অশ্রু গড়িয়ে পড়ে। মনে তার মহাপ্রভু জগন্নাথদেবকে নিজের হাতে রান্না করা অন্নভোগ নিবেদনের বাসনা হয়। বাসনা চরিতার্থে তিনি পরদিন সযত্নে অন্নভোগ তৈরি করে এক বুক আশা নিয়ে মহাপ্রভুকে নিবেদনের উদ্দেশে মন্দিরে উপস্থিত হলে লাঞ্ছিত ও অপমানিত হন। চাল-চুলোহীন সন্ন্যাসী বলে মন্দিরের পুরোহিতরা তাঁকে অপমান করে মন্দির থেকে তাড়িয়ে দেয়। এই ঘটনায় মনে ব্যথা পেয়ে ধ্রুবানন্দ ঈশ্বরের মন্দির থেকে বিতাড়িত হয়ে চোখের জলে বুক ভাসিয়ে নিভৃত স্থানে বসে তিন দিন তিন রাত্রি অনাহারে অনিদ্রায় কাটান। তিনি ভাবলেন, ঈশ্বরের মন্দিরে যখন তাঁর ঠাঁই নেই তখন এ জীবন বৃথা। বৃথা মানব জনম। মনে মনে স্থির করলেন, আত্মহত্যা করে সকল জ্বালা জুড়োবেন। ভক্তের মনের কথা ভগবান ঠিক টের পান। ভগবানকে ঠিক মতো ভক্তিভরে ডাকতে পারলে তিনি স্বয়ং আবির্ভূত হয়ে ভক্তের মনের ইচ্ছা পূর্ণ করেন। তৃতীয় দিনের শেষে দয়ার অবতার শ্রী জগন্নাথদেব তাঁকে দর্শন দিয়ে বললেন, ‘ভক্ত ধ্রুবানন্দ চোখের জল মোছো। জেনে রাখো আত্মহত্যা মহাপাপ। তুমি এখন মাহেশে ফিরে যাও। সেখানে গঙ্গার তীরে গিয়ে বসলে দেখতে পাবে ভাসমান একটি নিমগাছের গুঁড়ি। সেই নিমকাঠ দিয়ে আমার বলরাম আর সুভদ্রার মূর্তি তৈরি করে পুজো করো। আমি সেখানে সদা জাগ্রত থাকব’। ভগবান জগন্নাথদেবের দর্শন আর তাঁর কথা শুনে ধ্রুবানন্দ সমস্ত দুঃখ ভুলে গিয়ে আনন্দে পুলকিত হয়ে পুরীধাম ত্যাগ করে শ্রীরামপুরে মাহেশে ফিরে আসেন।
মাহেশে ফিরে আসার পর আরাধ্য দেবতা জগন্নাথের কথা মতো গঙ্গার তীরে দিন-রাত বসে অপেক্ষা করতে থাকেন নিমগাছের গুঁড়ি পাওয়ার আশায়। নাওয়া নেই, খাওয়া নেই, তিনি সেখানে তীর্থের কাকের মতো ঠায় বসে থাকেন। তাঁর বিশ্বাস ছিল, ঈশ্বরের বাণী কখনও মিথ্যে হয় না। সে কারণে বহুদিন অপেক্ষা করেও তিনি কখনওই হতাশ হননি। তাই তো কথায় বলে, বিশ্বাসে মিলায় বস্তু তর্কে বহুদূর।
অবশেষে তাঁর মনোবাসনা পূর্ণ হল। এক দুর্যোগপূর্ণ রাতে বিদ্যুৎ ঝলকের আলোয় ধ্রুবানন্দ দেখলেন, গঙ্গার জলে একটি বিরাট কাঠের গুঁড়ি ভাসছে। আনন্দে আত্মহারা হয়ে পাগলের মতো তিনি গঙ্গার জলে ঝাঁপ দিয়ে নিজের জীবন বিপন্ন করে অনেক কষ্টে নিমগাছের গুঁড়িটিকে পারে তুলে আনেন। পরদিন সকালে অভ্যাসবশত স্নান ও পূজাপর্ব সেরে কুটিরের বাইরে আসতেই তিনি অবাক বিস্ময়ে জগন্নাথদেব প্রেরিত তিনজন কাঠের মিস্ত্রির দেখা পেলেন। তিনি ইষ্টদেবতাকে করজোড়ে প্রণাম করে তাদের তাঁর পর্ণকুঠীরে নিয়ে এসে বসান। তারপর তিনি সেই তিনজন কাঠের মিস্ত্রির দ্বারা নিমগাছের গুঁড়ির কাঠ দিয়ে জগন্নাথ, সুভদ্রা ও বলরামের মূর্তি তৈরি করে ভক্তিভরে মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন।
চতুর্দশ শতাব্দীতে সন্ন্যাসী ধ্রুবানন্দর প্রতিষ্ঠিত সেই তিনটি বিগ্রহ জগন্নাথ, সুভদ্রা, বলরামের পুজো আজও শ্রীরামপুরে মাহেশের মন্দিরে হয়ে আসছে। বহুযুগ ধরেই ওই একই বিগ্রহ পুজো হয়। বলা বাহুল্য, ধ্রুবানন্দ ব্রহ্মচারী হলেন সেই সিদ্ধপুরুষ যিনি সর্বপ্রথম বঙ্গভূমিতে ভগবান শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের পুজোর প্রবর্তন করেন।
মাহেশের জগন্নাথদেবের অলৌকিক কাহিনী শুনে ১৫৪১ খ্রিস্টাব্দে নবদ্বীপের মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্যদেব পুরী যাত্রার আগে ধ্রুবানন্দের প্রতিষ্ঠিত মন্দির দর্শনে আসেন। তিনি মাহেশের মন্দিরের ইষ্টদেবতা জগন্নাথদেবকে দেখে জ্ঞান হারান এবং তৎক্ষণাৎ গভীর সমাধিতে নিমগ্ন হন। সমাধি ভঙ্গ হওয়ার পর তিনি উপলব্ধি করেন মাহেশের মন্দিরের শ্রীশ্রী জগন্নাথদেব খুবই জাগ্রত। তাই তিনি এই পুণ্যভূমিতে ধ্রুবানন্দ ব্রহ্মচারী প্রতিষ্ঠিত মন্দিরের নামকরণ করেন— নব নীলাচল।
ইতিহাস প্রসিদ্ধ মাহেশের রথের মেলায় প্রতি বছর বহু দুর থেকে হাজার হাজার ভক্ত আসে জগন্নাথদেব দর্শন করে নিজেদের জীবন সার্থক করতে। 
06th  July, 2019
পরিবর্তনের ঢেউ লেগেছে মুসলিম সমাজে 

একবিংশ শতাব্দীতে পদার্পণের আগে মুসলিম সমাজে নারী স্বাধীনতা প্রহসন ছিল বললে অত্যুক্তি হয় না। মাত্র কয়েক দশক আগেও মুসলিম নারী ছিল অন্তঃপুরবাসিনী। অবগুণ্ঠনের আড়াল থেকেই তাদের বিশ্বদর্শন হতো। কিন্তু সেই চিত্র আজ অনেকটাই বদলে গিয়েছে।  বিশদ

20th  July, 2019
মেয়েদের হার্টের পক্ষে
নাইট শিফট ক্ষতিকারক 

এই একবিংশ শতাব্দীতে দাঁড়িয়ে আপাতদৃষ্টিতে নারীর সঙ্গে পুরুষের পার্থক্যের সীমারেখা প্রায় ঘুচেই গিয়েছে বলা যায়। এখন পুরুষদের সঙ্গে নারীরাও সমানতালে সবকিছুই করছে। সে কঠিন বিজ্ঞান গবেষণা থেকে শুরু করে টোটো চালানো পর্যন্ত প্রায় সবকিছুই। একসময় যে নাইট শিফটে কাজ শুধুমাত্র পুরুষদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল এখন সেখানেও মেয়েদের মৌরুসিপাট্টা। বিশদ

20th  July, 2019
মহিলাদের সুস্থ রাখতে যোগাসন 

দেশের মতোই বিদেশেও এখন যোগাসনের দারুণ কদর। যোগাসনের দ্বারা মহিলাদের সুস্থ থাকার কয়েকটা উপায় জানালেন মার্কিন যোগ ফেডারেশনের কর্ণধার রাজশ্রী চৌধুরী। তাঁর মুখোমুখি কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

20th  July, 2019
সিনেমা আমার প্রথম প্রেম: ঐন্দ্রিলা সাহা 

রাজা বিক্রমাদিত্যের রাজত্বকালে খনা নামে এক জ্যোতির্বিদ্যায় পারদর্শী এবং বিদুষী নারী ছিলেন। বরাহপুত্র মিহিরের সঙ্গে তাঁর বিবাহ হয়। খনা তাঁর বচন রচনার মাধ্যমেই সকলের কাছে পরিচিতি লাভ করেন। খনার ভবিষ্যৎ বাণীগুলি খনার বচন নামে পরিচিতি পায়। সেই খনার জীবন নিয়ে কালারস বাংলায় শুরু হয়েছে মেগা ধারাবাহিক ‘খনার বচন’। আজ আমরা খনা তথা ঐন্দ্রিলা সাহার মুখোমুখি। 
বিশদ

13th  July, 2019
দীপার উত্তরসূরি প্রণতি 

দীপা কর্মকারের পর আর এক বাঙালি জিমন্যাস্টকে নিয়ে ওলিম্পিকে পদক জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু হয়ে গেল। ত্রিপুরার দীপা কর্মকার, তেলেঙ্গানার অরুণা রেড্ডির পর বাংলার প্রণতি নায়েক হলেন দেশের তৃতীয় মহিলা জিমন্যাস্ট যিনি আন্তর্জাতিক পদক জিতলেন।  বিশদ

13th  July, 2019
ভারতের প্রথম মহিলা বিচারপতি 

সেকালের পুরুষতান্ত্রিক সমাজে পুরুষদের দিকে লক্ষ্য রেখেই সব ব্যবস্থাপনা হত। কিন্তু পুরুষতান্ত্রিকতার সম্পূর্ণ অবসান না হলেও দিন যত এগিয়েছে ততই মহিলারাও অগ্রগণ্য হয়েছে। বিভিন্নরকম ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে নারীকেন্দ্রিকতাও সমাজে স্থান পেয়েছে।  বিশদ

13th  July, 2019
সমাজের পিছিয়ে পড়া মহিলা ও বাচ্চাদের মুখে হাসি দেখতে চাই : রাখী বসু 

ছোটবেলা থেকেই সমাজের জন্য কাজ করার স্বপ্ন দেখতেন রাখী। স্বপ্ন ছিল তার হাত ধরে সমাজের পিছিয়ে পড়া বাচ্চারা আর অসহায় মহিলারা মাথা তুলে দাঁড়াবে। তারা শিক্ষার আলোয় আলোকিত হবে। ছোটবেলায় দেখা স্বপ্ন আরও প্রগাঢ় হল, যখন তিনি পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর পুত্রবধূ হয়ে এলেন। 
বিশদ

06th  July, 2019
নারীমুক্তি আন্দোলনে কবি সুফিয়া কামাল 

বিংশ শতাব্দীর নারীমুক্তি আন্দোলনে এক অনন্য স্থান অধিকার করে আছেন মহিলা কবি সুফিয়া কামাল। পাশাপাশি ভাষা আন্দোলনেও তাঁর সক্রিয় অংশগ্রহণ এক স্মরণীয় কীর্তি। 
বিশদ

06th  July, 2019
নারীদের জন্য ভয়ঙ্কর দেশ অস্ট্রেলিয়া 

অল্প কিছুদিন আগে এক তরুণীর হত্যাকাণ্ডের খবরে দারুণ ধাক্কা খেয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার মানুষ। তিনি মেলবোর্ন শহরে হেঁটে নিজের বাড়িতে ফেরার পথে নিহত হন। একুশ বছর বয়সি ইজরায়েলি এই তরুণীর নাম আয়া মাসারভি। তার মৃত্যুর ঘটনা অস্ট্রেলিয়ায় ব্যাপক ক্ষোভ ও বিতর্কের জন্ম দিয়েছে, বিশেষ করে নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতার বিষয়ে।  
বিশদ

29th  June, 2019
১৯ বছরের রাখি দত্ত নিজের
লিভার দিয়ে বাঁচালেন বাবাকে 

বাবার বয়স ৬৫। কিছুদিন ধরেই পেটে ব্যথা হতো, কিছু খেতে পারতেন না। হাসপাতালে ভর্তির পর পরীক্ষায় ধরা পড়ল তিনি লিভারের কঠিন রোগে আক্রান্ত। সুস্থ করে তুলতে হলে লিভার প্রতিস্থাপন করতে হবে। কিন্তু কে দান করবে লিভার? এগিয়ে এলেন একমাত্র মেয়ে রাখি দত্ত।  
বিশদ

29th  June, 2019
ফেসবুকের মেয়ে 

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট খুলে দিয়েছে এক নতুন দিগন্ত। সম্পর্ক বিস্তারের জালপাতা যেন ভুবন জুড়ে। ওয়েব নেট থেকে জালের ফাঁদে। বন্দি আজ আবালবৃদ্ধবণিতা। সামাজিক বাধা-নিষেধ নেই। সম্পর্কের উন্মুক্ত আবহাওয়ায় গা ভাসিয়ে দাও।  
বিশদ

29th  June, 2019
প্রাচ্য পুরাণে নারীর বেঁচে থাকার দুঃখ-ইতিহাস 

মহাভারতের বনপর্বে সত্যভামা দ্রৌপদীকে প্রশ্ন করেছিলেন, পাঁচ স্বামীকে তিনি কীভাবে সন্তুষ্ট রাখতে সক্ষম হয়েছেন? উত্তরে দ্রৌপদী পতিব্রতা নারীর ওপর এক সুদীর্ঘ বক্তৃতা দেন। যাঁর মূল কথা ছিল— নারী যদি সম্পূর্ণভাবে আত্মবঞ্চনা করে এবং নিজেকে স্বামীর ইচ্ছা পোষণের যন্ত্রমাত্রে পরিণত করে তবেই সে যথার্থ পতিব্রতা হতে পারে এবং স্বামীকে সন্তুষ্ট রাখতে সক্ষম হয়। 
বিশদ

29th  June, 2019
বাজে খবরের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ালেন প্রিয়াঙ্কা

 বেশ কিছুদিন প্রকাশ্যে ঘোরাঘুরির পর গতবছরের শেষে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাস। তবে সম্প্রতি শোনা যাচ্ছিল তাদের বিবাহ বিচ্ছেদের গুজব। তবে এই গুজবের দাঁত ভাঙা জবাব দিলেন প্রিয়াঙ্কা।
বিশদ

22nd  June, 2019
চা বিক্রেতা বাবার বিচারক মেয়ে

 আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী একসময় চা বিক্রি করতেন। এবার এক চা বিক্রেতার মেয়ে দেশের আদালতের বিচারক হলেন। পাঞ্জাবের জলন্ধরের এক আদালত চত্বরে চা বিক্রি করে সংসার চালানো সুরেন্দ্র কুমার নামে এক ব্যক্তি। তাঁর মেয়ে ওই কোর্টেরই বিচারক হলেন।
বিশদ

22nd  June, 2019
একনজরে
 ওয়াশিংটন, ২০ জুলাই (পিটিআই): আন্তর্জাতিক চাপের মুখে মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সইদকে গ্রেপ্তার করেছে পাকিস্তান। এরপরেও পাকিস্তানের উপর থেকে সন্দেহ যাচ্ছে না আমেরিকার। ট্রাম্প প্রশাসনের প্রবীণ এক কর্তাব্যক্তি শুক্রবার জানিয়েছেন, আগেও হাফিজকে গ্রেপ্তার করেছিল ইসলামাবাদ। ...

পল্লব চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: তিনিই যোগ্যতম। বাণিজ্য শাখার স্কুল শিক্ষক হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন ২০০১ সালের ৩০ জুলাই। কিন্তু, কম যোগ্যতাসম্পন্নদের স্কুলে শিক্ষক পদে রেখে দেওয়া হলেও তাঁর চাকরি বিগত ১৮ বছরেও অনুমোদিত হয়নি। তাঁর মামলা সূত্রে দেওয়া কলকাতা হাইকোর্টের একাধিক ...

সংবাদদাতা, বালুরঘাট: বালুরঘাট শহরের বিভিন্ন রাস্তায় গবাদিপশুর বিচরণ বেড়ে যাওয়া ব্যাপক সমস্যার পড়েছেন পথচলতি সাধারণ মানুষ। শহরের যত্রতত্র গোরু, ছাগল ঘোরাঘুরি করলেও সেসব ধরে সংশ্লিষ্ট মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ...

 ভোপাল, ২০ জুলাই (পিটিআই): ভেজাল দুধের বড়সড় চক্রের পর্দা ফাঁস করল মধ্যপ্রদেশ পুলিস। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে অভিযান চালিয়ে শনিবার এই চক্রে জড়িত থাকার অভিযোগে মোট ৬২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিস। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চবিদ্যার ক্ষেত্রে ভালো ফল হবে। ব্যবসায় যুক্ত হলে খুব একটা ভালো হবে না। প্রেমপ্রীতিতে বাধাবিঘ্ন। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯২০: মা সারদার মৃত্যু
১৮৬৩: কবি, গীতিকার ও নাট্যকার দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের জন্ম
১৮৯৯: লেখক বনফুল তথা বলাইচাঁদ মুখোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯৫৫: প্রাক্তন ক্রিকেটার রজার বিনির জন্ম
২০১২: বাংলাদেশের লেখক হুমায়ুন আহমেদের মূত্যু 

20th  July, 2019
ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৭.৯৫ টাকা ৬৯.৬৪ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৭৭ টাকা ৮৭.৯২ টাকা
ইউরো ৭৬.১০ টাকা ৭৯.০৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
20th  July, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৫,৫২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৩,৭০৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৪,২১০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪০,৫৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪০,৬৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার, চতুর্থী ১৬/২২ দিবা ১১/৪০। শতভিষা ৫/৪৫ দিবা ৭/২৫। সূ উ ৫/৬/৫২, অ ৬/১৮/১৬, অমৃতযোগ প্রাতঃ ৫/৫৯ গতে ৯/৩১ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৫ গতে ৯/১১ মধ্যে, বারবেলা ১০/৪ গতে ১/২২ মধ্যে, কালরাত্রি ১/৩ গতে ২/২৪ মধ্যে।
৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার, চতুর্থী ৯/২৬/৩১ দিবা ৮/৫২/১৬। শতভিষানক্ষত্র ২/০/৪৮ প্রাতঃ ৫/৫৩/৫৯, সূ উ ৫/৫/৪০, অ ৬/২১/৪৭, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪ গতে ৯/৩২ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪১ গতে ৯/৮ মধ্যে, বারবেলা ১০/৪/১৩ গতে ১১/৪৩/৪৪ মধ্যে, কালবেলা ১১/৪৩/৪৪ গতে ১/২৩/১৪ মধ্যে, কালরাত্রি ১/৪/১২ গতে ২/২৪/৪২ মধ্যে।
১৭ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
  ইস্ট বেঙ্গলে জুনিয়র বিশ্বকাপার
ইস্ট বেঙ্গলের অনুশীলনে যোগ দিলেন যুব ভারতীয় দলের স্ট্রাইকার অভিজিৎ ...বিশদ

09:28:53 AM

প্রয়াত দিল্লির প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি মঙ্গেরাম গর্গ 

09:25:00 AM

তেলেঙ্গানার নালগোন্ডায় জামাইবাবুর গলা কেটে খুন করল শ্যালক 

09:22:00 AM

হায়দরাবাদের জুলজিক্যাল পার্কে একটি সিংহের মৃত্যু 

09:20:00 AM

‘সি সি’ না নিলে মিলবে না ফ্ল্যাটের রেজিস্ট্রেশন
পুরসভার দেওয়া ‘কমপ্লিশন সার্টিফিকেট’ বা সিসি না দেখে ফ্ল্যাট কিনবেন ...বিশদ

09:19:10 AM

মণিপুরে মহাবলি মন্দির সংলগ্ন নদীতে তলিয়ে গেল ২ শিশু 

09:19:00 AM