Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

ঘরে বাইরে সুপার ওম্যান গীতিকা

পেশায় তিনি পাবলিক স্পিকার। সেই সুবাদে রাজনীতিবিদ থেকে সুপার স্টার সবার সঙ্গেই কাজ করেছেন। আবার একই সঙ্গে তিনি ব্যস্ত মা-ও বটে। শোয়ের কাজে কলকাতা এসেছিলেন পাবলিক স্পিকার গীতিকা গানুজ ধর। হোটেলের কফিশপে তাঁর মুখোমুখি কমলিনী চক্রবর্তী।


দিল্লিতে পড়াশোনা করতে করতেই প্রথম কেরিয়ার ব্রেকটা পান গীতিকা গানুজ ধর। দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিল্ম মেকিং নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা স্টুডিওতেই প্রথম সুযোগ পান। বলিউডের ফিল্মি গানের ওপর প্রোগ্রাম আর সেই অনুষ্ঠানের অ্যাঙ্কর হিসেবে নির্বাচিত হন গীতিকা। তারপর দীর্ঘ কেরিয়ার পেরিয়ে আজ তিনি সেলিব্রিটি পাবলিক স্পিকার। রাজনৈতিক শো থেকে সেলিব্রিটি অ্যাঙ্করিং বা কমার্শিয়াল শো সবই করেছেন। সেই সুবাদে তাঁর সঙ্গে পরিচয় হয়েছে মনমোহন সিং, সোনিয়া গান্ধী, নরেন্দ্র মোদির মতো বিখ্যাত রাজনীতিকের। পাশাপাশি অমিতাভ বচ্চনের মতো সেলিব্রিটির সঙ্গেও কাজ করেছেন গীতিকা। তারই সঙ্গে মুখোমুখি আড্ডা জমে উঠেছিল জে ডব্লু ম্যারিয়ট হোটেলের কফি শপে। ব্রেকফাস্টের সঙ্গে সেই আড্ডায় উঠে এলেন এক অন্য গীতিকা। যিনি কেরিয়ার ওম্যানের পাশাপাশি ঘরোয়া মা-ও বটে।
হন্ডা লঞ্চের অডিশনে
অটো এক্সপো হচ্ছিল দিল্লিতে। ভারতে প্রথমবার হন্ডা কোম্পানি তাদের গাড়ি লঞ্চ করবে। তার জন্য অডিশন নেওয়া হচ্ছে। প্রচুর নামী দামী শো অ্যাঙ্করের সঙ্গে নতুন মুখও যে একেবারে বিচারের বাইরে তা নয়। অডিশনে নাম লেখালেন গীতিকা। তিনি ভাবতেও পরেননি এমন একখানা শোয়ে নির্বাচিত হবেন। কিন্তু হলেন। দিল্লি অটো এক্সপোতে হন্ডা গাড়ির অ্যাঙ্কর হিসেবে নির্বাচিত হলেন গীতিকা। শো অ্যাঙ্কর কাম পাবলিক স্পিকারের যাত্রার সেই শুরু। এই কেরিয়ার যে গীতিকা নিজে বেছেছেন তা নয়। বরং কেরিয়ারই বেছে নিয়েছে গীতিকাকে। হন্ডার সেই ব্রেকের পর আরও অনুষ্ঠানের অফার পেতে শুরু করেন তিনি। সেই অবস্থায় পাবলিক স্পিকার হয়ে ওঠা ছাড়া আর কিছু করার কথা ভাবতেও পারেননি গীতিকা। সেই যাত্রাই আজও চলেছে।
জ্যাপানিজ ব্র্যান্ড
‘কেরিয়ারের শুরুতে সেই যে জাপানি ব্র্যান্ডে কাজ করলাম তারপর থেকে জাপানি ব্র্যান্ড যেন পেয়ে বসল আমায়। এমন কোনও জাপানিজ কোম্পানি নেই যাদের সঙ্গে আমি কাজ করিনি। অটোমোবাইল থেকে ইলেকট্রনিক্স থেকে ফ্যাশন সর্বত্রই তখন জাপানিজ ব্র্যান্ডে আমার মুখ দেখা যেত। ওদের কাজের ধরনের সঙ্গে নিজেকে খুব মানিয়ে নিয়েছিলাম। অসম্ভব ডিসিপ্লিনড কাজ। ঠিক সময়ে কাজ শুরু হয়, নির্দিষ্ট সময় পর্যন্তই কাজ হয় আর কনট্র্যাক্টটা পুরোপুরি মেনে চলা হয়। এমন কাজের ধরনের সঙ্গে খাপ খাওয়ানো সত্যিই সহজ।’ বলছিলেন গীতিকা গানুজ ধর।
পাবলিক স্পিকিং আর প্রস্তুতি
গীতিকা বললেন তাঁর জীবনে সব কাজের পিছনে একটাই মন্ত্র, প্রস্তুতি। তিনি যাই করেন প্রচণ্ড পড়াশোনা করে করেন। রাজনৈতিক শো থেকে শুরু করে বিয়ের অনুষ্ঠান সর্বত্রই সেই পড়াশোনার ছাপ থাকে। পাবলিক স্পিকিংয়ের ক্ষেত্রে তিনি বললেন, এটা একটা অত্যন্ত কঠিন কেরিয়ার। প্রতি মুহূর্তে নিজেকে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি ফেলতে হয়। একেকটা শোয়ের একেক রকম চ্যালেঞ্জ। আর সেগুলো সঠিকভাবে করতে পারলে তবেই এই পেশায় সাফল্য পাওয়া যায় নচেৎ নয়।
সেলিব্রিটিদের সঙ্গে
কেরিয়ারের কারণে বহু সেলিব্রিটির মুখোমুখি হয়েছেন গীতিকা। কাকে কেমন লাগে তাঁর? কেমন সেইসব সেলিব্রিটিদের সঙ্গে ওঠা বসা? প্রশ্ন করলে একটু ভাবলেন গীতিকা। তারপর বললেন একেকজন সেলিব্রিটি একেকরকম। কারও সঙ্গে কারও কোনও মিল নেই। এই যেমন যখন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে কাজ করেছেন, তখন শোয়ের আগে বারবার তাঁর অফিসের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে। তাঁরা ঠিক কী চাইছেন সেই বিষয়ে আলোচনায় বসেছেন, সেই অনুযায়ী কনটেন্ট তৈরি করেছেন, প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে গ্রিন সিগনাল এলে তবেই কাজ এগিয়েছে। কিন্তু এই গোটা সময়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি একবারও বৈঠকে বসার সুযোগ হয়নি। এটাই রাজনৈতিক রীতি। তবে নরেন্দ্র মোদিকে যেমন দেখেছেন তাতে তিনি বলতে পারেন উনি প্রচণ্ড পরিশ্রমী নেতা। যে কোনও বক্তব্য বা অনুষ্ঠান স্টেজে ওঠার আগে পর্যন্ত তিনি তা খুঁটিয়ে দেখে নিজের মত দেন। তাঁর মতের সঙ্গে না মিললে বা তাঁর পছন্দ না হলে শেষ মুহূর্তে পুরো জিনিসটাই বদলাতে হতে পারে। তিনি যখন পাবলিকের সামনে তখন তিনি প্রধানমন্ত্রী, রাজনীতিক নেতা। কিন্তু তার বাইরে তিনি বিচক্ষণ এক ব্যক্তিত্ব। আবার আমাদের রাষ্ট্রপতির স্বভাব সম্পূর্ণ আলাদা। নিজের ইমেজ রক্ষা করার কোনও দায়ই যেন তাঁর নেই। তিনি ভেতরে বাইরে একই রকম। একইসঙ্গে অনেক কিছুতে আগ্রহী, অনেক বিষয়ে তাঁর জ্ঞানও প্রচণ্ড। এই সব মিলিয়েই তাঁর চরিত্র।
নায়ক ও শিল্পপতি
নায়ক বললেই অমিতাভ বচ্চনের কথা মনে হয়। তাঁকে যতবার দেখেন ততই নাকি অবাক লাগে গীতিকার। অমিতাভ বচ্চনের মতো লেজেন্ড আজও সব শোয়ের আগে রিহার্সাল করেন। নিজের রোল বারংবার বলেন আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে। অন্যদের থেকে টিপস নেন, কাজটা আরও ভালো কীভাবে করবেন সেদিকে তাঁর সদা সজাগ নজর। দেখলে অবাক না হয়ে উপায় থাকে না। সাধারণ থেকে সাধারণতর লোকও যদি ভ্রূ কোঁচকায় তাহলেও তিনি নিজের ধরনটা বদলে ফেলেন। অন্য কিছু, আরও উন্নত কিছু করার চেষ্টা করেন। তাঁর সঙ্গে কাজ করলে অনেককিছু শেখা যায়। বললেন গীতিকা। তাঁর মতে শিল্পপতিদের একটা আলাদা ধরন আছে। তাঁরা সবাই নায়ক। তাঁদের অনুষ্ঠানে সকলেরই কিছু না কিছু বক্তব্য থাকে। সেখান থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য বার করা অনেকক্ষেত্রেই কঠিন হয়।
কাজ ও রোজগার
পাবলিক স্পিকিংকে পেশা হিসেবে নিলে রোজগারের সুযোগ কেমন? একটু যেন থমকালেন গীতিকা। সরাসরি টাকা পয়সা বিষয়ে কথা বলা ঠিক হবে কি না ভেবে নিয়ে বললেন রেঞ্জটা বিশাল। যখন কেউ পাবলিক স্পিকিংয়ের কেরিয়ার শুরু করেন তখন শো পিছু মোটামুটি ১৫০০০ টাকা রোজগার করার সম্ভাবনা থাকে। কেরিয়ারের শেষে গিয়ে রোজগারটা দাঁড়ায় ১০ লক্ষ টাকা প্রতি শো। তবে তার জন্য কাজটাও সেরকম হওয়া চাই। কনটেন্ট তৈরি থেকে প্রেজেন্টেশন সবটাই একেবারে পারফেক্ট হতে হবে। গীতিকা নিজের ক্ষেত্রে কনটেন্ট রাইটিং টিমের সঙ্গে বসে বক্তব্য তৈরি করেন, সেই বক্তব্যের মধ্যে কোথায় হাসবেন, কোথায় একটু সিরিয়াস নোট আনবেন আবার কোথায় বা ভাবলেশহীন ভাবে ফ্যাক্ট আওড়াবেন সবই মাপা থাকে। সাজ পোশাক নির্বাচন করেন তিনি নিজেই। শো অনুযায়ী শাড়ি, ইন্ডিয়ান এথনিক, কর্পোরেট প্যান্ট স্যুট সব পোশাকেই তিনি সাবলীল।
ব্যস্ত কেরিয়ার বনাম সুখী গৃহকোণ
না, কোনও ‘বনাম’ নেই। সাফ জানিয়ে দিলেন গীতিকা। তাঁর বক্তব্য কেরিয়ার আর গৃহকোণের ম঩ধ্যে কোনও লড়াইয়ের জায়গা তিনি রাখেননি। যতদিন শুধু কেরিয়ার করতে চেয়েছেন করেছেন। তারপর যখন বিবাহিত জীবন ও সন্তান পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তখন নিজে থেকেই অনুষ্ঠান কমিয়ে দিয়েছেন। সংসারে মন দিয়েছেন। সন্তানকে সময় দিয়েছেন। এখন আর হুট বলতে ছুট বাইরে বাইরে শো করেন না। মুম্বইতেও যেটুকু কাজ করেন সবই প্রচণ্ড নির্বাচিত। গীতিকার শিশু কন্যাটি মুম্বইয়ের একটি স্কুলে ক্লাস থ্রিয়ের ছাত্রী। সুযোগ থাকলে মেয়েকে নিয়েই বাইরে শো করতে যান গীতিকা। বললেন মেয়ের সঙ্গে তাঁর সময় কাটানোতে কোনও কম্প্রোমাইজ নেই। আর কোয়ালিটি টাইমের দোহাই দিয়ে কোয়ান্টিটি কমানোরও পক্ষপাতি নন তিনি। তাই বাচ্চা মানুষ করার ক্ষেত্রে গীতিকা হয়ে ওঠেন সুপার মম। একই সঙ্গে বাচ্চাকে পড়ানো থেকে তাঁর স্কুলের যাবতীয় ফাংশনে অংশগ্রহণ বা তার আবদার রক্ষা সবই হাসি মুখে করেন গীতিকা। বললেন, ‘বাড়ির, বিশেষত স্বামীর সমর্থনেই আজ আমি সুপার মম হয়েছি। তবু বলব বাচ্চা মানুষ করার পিছনে মায়ের ভূমিকা অনস্বীকার্য।’
20th  April, 2019
মাদার টেরেজা
আর্তের সেবায় এক মহীয়সী নারী

অ্যাগনেস গনহ্যাজ বোজাহিও তাঁর জন্মভূমি যুগোস্লাভিয়ার স্কপজি শহর ছেড়ে ১৯২৮ সালে কলকাতায় আসেন। আসা মাত্র নিবেদিতার মতোই ভালোবেসে ফেলেন কলকাতার মানুষজনকে। স্থির করলেন সন্ন্যাসিনী হয়ে গরিব-দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াবেন, আর্তের সেবা করবেন।   বিশদ

18th  May, 2019
মা সারদার স্নেহধন্যা নটী নীরদা সুন্দরী 

প্রেমের ঠাকুর রামকৃষ্ণ নটী বিনোদিনীর শ্রীচৈতন্যলীলা দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন এবং নটী বিনোদিনী ধন্য হয়েছিলেন ঠাকুরের আশীর্বাদ পেয়ে। একইভাবে ধন্য হয়েছিলেন এই বাংলারই আর এক নটী নীরদা সুন্দরী। তাঁর অভিনয় দেখে মা সারদা তাঁকে আশীর্বাদ করেছিলেন।  বিশদ

18th  May, 2019
বুদ্ধ পূর্ণিমা ও শান্তির বার্তা 

বিশ্ববাসীর মাঝে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে চান সুলতা মিত্র সরকার। এমনই অভিপ্রায় নিয়ে সম্প্রতি কাম্বোডিয়ার মন্দির নগরী আঙ্করভাটে একটি বুদ্ধমূর্তি তিনি স্থাপন করেছেন। বুদ্ধ পূর্ণিমার পুণ্যতিথিতে মূর্তি স্থাপনের কথায় কমলিনী চক্রবর্তী।  বিশদ

18th  May, 2019
বেশি বয়সেও পেতে পারেন মাতৃত্বের স্বাদ

পরামর্শে ঘোষ দস্তিদার ইনস্টিটিউট ফর ফার্টিলিটি রিসার্চের কর্ণধার ডাঃ সুদর্শন ঘোষ দস্তিদার। বিশদ

12th  May, 2019
সিঙ্গল মাদারের ডায়েরি

একা মা হওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া মুখের কথা নয়। তবে সব চাইতে কঠিন বোধহয় সন্তানকে বড় করে তোলা। কেমন আছেন তিনি? কেমনভাবে মানুষ করে তুলছেন সন্তানকে, একা মা’দের মুখ মুখার্জি ফার্টিলিটি সেন্টারের কর্ণধার ডাঃ শিউলি মুখোপাধ্যায়?
বিশদ

12th  May, 2019
ইতিহাসে মাদার্স ডে

বিদেশে তো বটেই এমন কি দেশেও এখন মাদার্স ডে রীতিমতো জনপ্রিয়। তবে ঘটা করে মাদার্স ডে পালন করলেও আমরা দিনটির ইতিহাস সম্বন্ধে ততটা ওয়াকিবহাল নই। ইতিহাস ঘেঁটে মাদার্স ডের তাৎপর্যের কাহিনী শোনাচ্ছেন কমলিনী চক্রবর্তী।
বিশদ

11th  May, 2019
 আধুনিক নার্সিংয়ের অগ্রদূত ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল

 আগামীকাল ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেলের জন্মদিন। দিনটি আন্তর্জাতিক নার্স ডে হিসেবে পালন করা হয় গোটা বিশ্বে। বিশদ

11th  May, 2019
শিশুর বেড়ে ওঠায়
মায়ের ভূমিকা

শিশু ভূমিষ্ঠ হবার আগে থেকেই শুরু হয় বাবা-মায়ের চিন্তা, নানান জল্পনা কল্পনা। এই সমাজে সুস্থ সুন্দরভাবে শিশুকে মানুষ করবেন কী করে? সত্যিই বিষয়টা চিন্তার। তবে অমূলক ভয় পাওয়ারও কিছু নেই। গবেষণাসূত্রে জানা গিয়েছে মা যদি গর্ভাবস্থাকালীন হাসি-খুশি প্রাণোচ্ছল থাকেন তবে শিশুও ইতিবাচক মানসিকতার অধিকারী হবে। তাই গর্ভাবস্থায় মাকে সব সময় হাসিখুশি থাকতে বলা হয়।
বিশদ

11th  May, 2019
 স্বামী ও স্ত্রী একই পেশায় থাকলে...

এক পেশাতে কাজ করছেন স্বামী স্ত্রী। পেশাদারিত্ব বজায় রেখেই ঠিক রাখুন সম্পর্ক। পরামর্শ দিলেন সাইকিয়াট্রিস্ট ডঃ রীমা মুখোপাধ্যায় বিশদ

04th  May, 2019
জনমতের বিচারে সবচেয়ে প্রভাবশালী
দীপিকা পাড়ুকোন

কেবল পর্দা বা বলিউডে নয়, বাস্তব জীবনের নানা ক্ষেত্রে প্রভাব রাখেন বলিউডের বহু তারকা। সম্প্রতি আমাদের দেশে সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের তালিকায় উঠে এসেছে বলিউড তারকা দীপিকা পাড়ুকোন ও অমিতাভ বচ্চনের নাম। এক সমীক্ষা থেকে জানা গেছে, ভারতীয়দের জীবনের নানা ক্ষেত্রে এই তারকাদের রয়েছে বিশাল প্রভাব।
বিশদ

04th  May, 2019
আইএমএফ-এর প্রথম নারী অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথ

আইএমএফ (দ্য ইন্টারন্যাশনাল মানিটারি ফান্ড) বা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের প্রধান অর্থনীতিবিদ হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন গীতা গোপীনাথ। এই প্রথম কোনও নারী এই দায়িত্বে নিযুক্ত হয়েছেন। রঘুরাম রাজনের পরে গীতাদেবীই হতে চলেছেন এই দায়িত্ব নেওয়া ভারতীয়। সম্প্রতি এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে আইএমএফ।
বিশদ

04th  May, 2019
 সম্পদে ব্রিটেনের রানিকে টপকে গেলেন কোটস

সম্পদের বিচারে ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ বহুদিন ধরেই ছিলেন ধরা ছোঁয়ার বাইরে। কিন্তু এবার ব্রিটেনেরই এক নারী পিছনে ফেলে দিয়েছেন রানিকে। অনলাইন বেটি প্রতিষ্ঠান ‘বেট ৩৬৫’-এর প্রতিষ্ঠাতা হলেন ডেনিস কোটস। বর্তমানে তাঁর সম্পদের পরিমাণ রানির চেয়ে দশগুণ বেশি।
বিশদ

04th  May, 2019
 আশা দিদি

মেয়েটি সন্তান সম্ভবা। প্রসবের দিনও এগিয়ে আসছে। কিন্তু গ্রামে তেমন কোনও হাসপাতাল নেই। এমন অবস্থায় হঠাৎ প্রসব যন্ত্রনা উঠলে ‘দাই’দের ওপর ভরসাটা এই একবিংশ শতাব্দীতেও প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে দেখা যায়। অজ্ঞতাবশত ও যোগাযোগের উপায় না থাকায় অসহায় মানুষ একজন ভাবী মা ও তার সন্তানকে অপ্রশিক্ষিত মহিলার হাতে ছেড়ে দেন।
বিশদ

04th  May, 2019
 আইএস জঙ্গিদের রুখে দিয়ে ‘শান্তির গ্রাম’ গড়েছেন নারীরা

  পুরুষের দ্বারা নানাভাবে নির্যাতিত নারীরা গড়ে তুলেছেন জিনওসার গ্রাম। সেখানে পুরুষের প্রবেশ নিষেধ। তাই নিশ্চিন্তে জীবনটা কাটাতে পারছেন তাঁরা। জিনওসার গ্রামটা পেরলেই যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ সিরিয়া। সেখানে আইএস জঙ্গিদের কালো পতাকা আর ঘন ঘন গ্রেনেডের হুঙ্কারে জনপদ কার্যত শূন্য।
বিশদ

27th  April, 2019
একনজরে
 নয়াদিল্লি, ২১ মে (পিটিআই): নির্বাচনী প্রচারে প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে একাধিকবার টেনে এনে কংগ্রেসকে নিশানা করেছিলেন। কখনও বফর্স কেলেঙ্কারির প্রসঙ্গ টেনে রাজীব গান্ধীকে ‘ভ্রষ্টাচারী নম্বর ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এবছর মাধ্যমিকের প্রথম দশে জায়গা করে নিল ৫১ জন পরীক্ষার্থী। ৬৯৪ নম্বর পেয়ে রাজ্যে প্রথম হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপীঠের সৌগত ...

  সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: উত্তর দিনাজপুরের কৃষকদের মধ্যে মাশরুম ও ব্রোকলি চাষে আগ্রহ বাড়াতে উদ্যোগ নিয়েছে জেলা উদ্যানপালন দপ্তর। এব্যাপারে তারা বেশকিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। দপ্তর ...

বাংলা নিউজ এজেন্সি: মাধ্যমিকে সম্ভাব্য মেধা তালিকায় পূর্ব বর্ধমান জেলার চারজন এবং পশ্চিম বর্ধমানের এক পড়ুয়া জায়গা করে নিল। বর্ধমান বিদ্যার্থীভবন বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্র সাহিত্যিকা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

গোপন প্রেম, গোপন থাকবে না। ব্যবসায়ীদের জন্য সময়টি ভালো, বয়স্করা একটু সাবধানী হবেন। ঠান্ডা লাগা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৫৪৫: সম্রাট শেরশাহের মৃত্যু
১৭৭২: রাজা রামমোহন রায়ের জন্ম
১৮৫৯: গোয়েন্দা শার্লক হোমসের স্রস্টা স্টটিশ সাহিত্যিক আর্থার কোনান ডয়েলের জন্ম
১৮৮৫: ফরাসি সাহিত্যিক ভিক্টর হুগোর মৃত্যু
১৯৪০: ক্রিকেটার এরাপল্লি প্রসন্নর জন্ম
১৯৪৬: আইরিশ ফুটবলার জর্জ বেস্টের জন্ম
২০০৪: ১৭তম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ডঃ মনমোহন সিংয়ের শপথ গ্রহণ

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.৯২ টাকা ৭০.৬১ টাকা
পাউন্ড ৮৭.১৮ টাকা ৯০.৩৮ টাকা
ইউরো ৭৬.৫০ টাকা ৭৯.৪৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,০৯৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০,৪৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩০,৯০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৬,২৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৬,৩৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২২ মে ২০১৯, বুধবার, চতুর্থী ৫৮/১৮ রাত্রি ২/৪১। পূর্বাষাঢ়া অহোরাত্র। সূ উ ৪/৫৭/৫৩, অ ৬/৮/৩০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৭ গতে ১১/৭ মধ্যে পুনঃ ১/৪৪ গতে ৫/১৫ মধ্যে। রাত্রি ৯/৪৫ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৫ গতে ১/২১ মধ্যে, বারবেলা ৮/১৬ গতে ৯/৫৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৩৩ গতে ১/১২ মধ্যে, কালরাত্রি ২/১৫ গতে ৩/৩৭ মধ্যে।
৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২২ মে ২০১৯, বুধবার, চতুর্থী ৫৪/৪৯/৫ রাত্রি ২/৫২/৫৯। পূর্বাষা‌ঢ়ানক্ষত্র ৬০/০/০ অহোরাত্র, সূ উ ৪/৫৭/২১, অ ৬/১০/৪১, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৬ গতে ১১/১০ মধ্যে ও ১/৫০ গতে ৫/২৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৫০ মধ্যে ও ১১/৫৮ গতে ১/২২ মধ্যে, বারবেলা ১১/৩৪/১ গতে ১/১৩/১১ মধ্যে, কালবেলা ৮/১৫/৪১ গতে ৯/৫৪/৫১ মধ্যে, কালরাত্রি ২/১৫/৪১ গতে ৩/৩৬/৩১ মধ্যে।
১৬ রমজান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ঘেরাও মুক্ত হলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য 

04:21:49 PM

১৪০ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

03:52:18 PM

ধূপগুড়ির বিএমওএইচ-এর বিরুদ্ধে এফআইআর করার অভিযোগে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হল স্বাস্থ্য দপ্তরের এক চুক্তিভিত্তিক কর্মীকে 

03:03:00 PM

জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চে আইইডি বিস্ফোরণ, শহিদ ১ জওয়ান, জখম ৭ 

01:31:14 PM

২১ ঘণ্টা ধরে অবরুদ্ধ বিশ্বভারতীর উপাচার্য এবং অধ্যাপকরা 
ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে ছাত্র আন্দোলনে জেরে ২১ ঘণ্টা ধরে অবরুদ্ধ ...বিশদ

01:27:28 PM

বর্ধমানের শাঁখারিপুকুর এলাকায় গাড়ি-লরির মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ২ 

01:23:08 PM