বিশেষ নিবন্ধ
 

আইনের মারপ্যাঁচ ও গরিবের কপাল

সৌম্য বন্দ্যোপাধ্যায়: করবী ঘোষের কথাটা ঘুরেফিরে মনে পড়ছে। এবং কী আশ্চর্য, ঠিক একই সময় প্রায় একই রকম কথা শোনা গেল বিলকিস ইয়াকুব রসুলের কণ্ঠেও।
কলকাতায় করবী যে-কথাটা বললেন, একই কথা একই দিনে প্রতিধ্বনিত হল প্রায় দু’হাজার কিলোমিটার দূরে গুজরাতের দাহোদে। বিলকিস ইয়াকুব রসুলের সাকিন ওটাই।
কে করবী ঘোষ, কে-ই বা বিলকিস ইয়াকুব রসুল, হলফ করে বলতে পারি, খুব কম মানুষই তা বলতে পারবেন। খবরের কাগজে যাঁরা কাজ করেন অথবা নিত্য একাধিক কাগজ খুঁটিয়ে পড়েন, তাঁদের কেউ কেউ এই দুই নারীর পরিচয় দিলেও দিতে পারেন। কিন্তু বাকিরা ডাহা ফেল করে ঠোঁট ওলটাবেন।
এই বাকিদের জন্য বলি, করবী ঘোষের ছেলে অর্ণব, যিনি ‘দোহার’-এর প্রাণ কালিকাপ্রসাদের গাড়ির চালক ছিলেন, হয়তো যাঁর মুহূর্তের অসাবধানতায় দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে থেকে গাড়িটা নয়ানজুলিতে পড়ে যায়, যে-দুর্ঘটনায় কালিকাপ্রসাদের মৃত্যু হয়।
আর বিলকিস ইয়াকুব রসুল? গুজরাতের দাহোদ জেলার এক গ্রামের বিবাহিতা নারী। পনেরো বছর আগে ২০০২ সালে যখন গোধরা-কাণ্ড হয়, তখন তাঁর বয়স ছিল ১৯। উন্মত্ত হিন্দুরা যখন খুঁজে খুঁজে মুসলমানদের হত্যা করছে, নারীদের ধর্ষণ করছে, সেই সময় পুরো পরিবার সহ বিলকিসেরা নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে বেরিয়ে পড়েছিলেন। যে-ট্রাকে চেপে তাঁরা পালাচ্ছিলেন, হিন্দুরা তা ধরে ফেলে। পরিবারের ১৪ জন সেদিন খুন হন। বিলকিস গণধর্ষিতা।
ধর্ষণের আগে বিলকিসের তিন বছরের কন্যাকে তাঁর চোখের সামনেই আছড়ে মেরে ফেলেছিল ধর্ষকেরা। বিলকিস
তখন পাঁচ মাসের গর্ভবতী। গণধর্ষণে অচৈতন্য বিলকিসকে দেখে ওরা
মৃত ভেবেছিল। ফলে তাঁর প্রাণে বাঁচা।
দিল্লিতে জ্যোতি নামের যে-মেয়েটি চলন্ত
বাসে ধর্ষিতা হন, যাঁকে বাস থেকে ফেলে দেওয়া হয়েছিল, পরে যিনি মারা যান, পরিচয় গোপন
করতে যাঁর নাম দেওয়া হয়েছিল ‘নির্ভয়া’,
তাঁর ধর্ষকদের ফাঁসির সাজা সুপ্রিম কোর্ট
বহাল রেখেছে। কেন? আদালতের মতে ওই
ঘটনা ছিল ‘বিরলের মধ্যে বিরলতম’। এই রায়ের
ঠিক আগের দিন বিলকিস ইয়াকুব রসুল, পনেরো বছর ধরে ধর্ষক ও পুলিশদের বিরুদ্ধে লড়াই
করে
যিনি গোটা দেশে ‘বিলকিস বানো’ নামে পরিচিত, তাঁর ধর্ষকদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ শোনায় বম্বে হাইকোর্ট। কেন তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হল না? কারণ, বিচারপতিরা মনে করেছেন, গোধরায় ট্রেনের কামরায় আগুন দেওয়ার প্রতিবাদে অপরাধীরা প্রতিশোধস্পৃহায় উন্মত্ত হয়েছিল। ওটা ছিল এক ঘটনার প্রতিক্রিয়া, যা কিনা উত্তেজনার বশে করা।
করবী ও বিলকিস, দুই হতভাগ্য আজ বলতেই পারেন, আইন দু’ধরনের। একটা আইন দেশের বড়লোক ও ক্ষমতাধরদের জন্য, অন্যটা তাঁদের
মতো হতভাগ্যদের জন্য।
বিলকিস প্রায় বলেও ফেলেছিলেন তা। জ্যোতির ধর্ষণ ও হত্যা মামলার রায় বেরনোর পরের দিন। বিস্মিত বিলকিসের প্রশ্ন ছিল, জ্যোতির অপরাধীদের ফাঁসি হল অথচ তাঁর অপরাধীদের যাবজ্জীবন? বলেছিলেন, ‘আশা করি সুপ্রিম কোর্টে ন্যায়বিচার পাব।’
বিচার পেতে বিলকিস বানোকে যাঁরা সাহায্য করেছিলেন, সেই মানবাধিকার কর্মীরা তাঁকে দিল্লি নিয়ে আসেন। দিল্লি প্রেস ক্লাবে তাঁদের ঘেরাটোপে থাকা বিলকিস বানো ফাঁসির দাবি জানাতে পারেননি। শুধু বলেছিলেন, ‘আমি ন্যায়বিচার চাই।’
বিচারের সঙ্গে ‘ন্যায়’ শব্দটি সব সময় যে
মানানসই নয়, করবী ঘোষ এই মুহূর্তে তা হাড়ে
হাড়ে টের পাচ্ছেন। টের পাইয়েছে আরও
একটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।
কালিকাপ্রসাদের গাড়ি দুর্ঘটনায় পড়েছিল হাইওয়েতে, তরুণ অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের গাড়ি দুর্ঘটনা হয় খোদ কলকাতায়। গভীর রাতে। বিক্রম সামান্য আহত হলেও তাঁর সঙ্গী সোনিকা মারা যান। গাড়ির স্টিয়ারিংয়ে ছিলেন বিক্রমই। পুলিশ তাঁকে সঙ্গে সঙ্গেই জামিন দেয়। কালিকাপ্রসাদের গাড়ি চালাচ্ছিলেন করবীর ছেলে অর্ণব। তিনি এখনও জামিন পাননি!
একই ধরনের দুটি দুর্ঘটনা। একজন চালক পরিচিত এবং নিশ্চিতই প্রভাবশালী। অন্যজন ‘ম্যাঙ্গো পিপল’, মানে আম জনতা। একজন ধনী, অন্য জন গরিব। আইন অথচ একটাই।
করবীর কথায় ফিরে আসি। সংবাদপত্রে তাঁর খেদ, ‘আমার ছেলে গরিবের ঘরে জন্মেছে। এটাই কি ওর অপরাধ? তাই আজও ওকে জেলের ভেতরে দাগি অপরাধীদের সঙ্গে কাটাতে হচ্ছে। আর যারা সোনার চামচ মুখে দিয়ে জন্মেছে, তারা একই ধরনের অপরাধ করে বাইরে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এটা কেমন আইন? আমরা গরিব বলে আমাদের জন্য ৩০৪ নম্বর ধারা। আর বড়লোকদের জন্য ৩০৪-এ!’
করবীর কথা সারাদিন ধরে ভাবাল। সত্যিই তো! অপরাধের চরিত্র এক। তবে কেন দু’ধরনের শাস্তি? অর্ণব নেশা করেছিলেন, এমন অভিযোগ কেউ করেনি। বিক্রম কিন্তু সে রাতে নেশা করেছিলেন। কতটা নেশা, কতটা বেহুঁশ তিনি হয়ে পড়েছিলেন তা তদন্ত সাপেক্ষ। কিন্তু দুটি দুর্ঘটনাই তো একটি একটি দুটি অমূল্য প্রাণ কেড়ে নিয়েছে? তবে কেন আইনের রক্ষকদের এহেন ভিন্ন আচরণ?
করবীর ক্ষোভ কমার নয়। কেনই বা কমবে? অর্ণবের রোজগারে সংসার চলে। নিম্নবিত্ত পরিবারে সব সময়েই যা হয়, নুন আনতে পান্তা ফুরনোর হাল, করবীর পরিবারও তা থেকে মুক্ত নয়। আচমকা বিপর্যয়ে এইসব পরিবারের মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে। করবীর মাথাতেও ভেঙে পড়েছে আকাশ। হাঁড়ি না-চড়ার হাল যাঁর, তাঁকে এখন উকিলের ফি জোগাড় করতে হচ্ছে। কলকাতা থেকে ছুটতে হচ্ছে হুগলির কারাগারে, যেখানে অর্ণব আরও অনেক দাগি অপরাধীর সঙ্গে দিন কাটাচ্ছে। ছেলের জামিনের চিন্তা তাঁর দিনরাত এক করে দিয়েছে।
এই আমরা গণতন্ত্রের বড়াই করি। এই আমরা বিচার ব্যবস্থার প্রতি শ্রদ্ধাবনত থাকি। এই সেদিন অর্ণবের জামিন ফের অগ্রাহ্য হল। তারা এখন হাইকোর্টের দ্বারস্থ। বিক্রমকে অথচ কিছুই করতে হল না! এক দেশ, এক রাজ্য, এক আইন, এক পুলিশ, এক আদালত, অথচ কী বিপুল ফারাক!
মানবাধিকার আন্দোলনের সঙ্গে যাঁরা যুক্ত, তাঁরা জোরের সঙ্গে বলেন, এ দেশে আইন সবার জন্য সমান নয়। খুব একটা ভুল কি বলেন তাঁরা? হয়তো নয়। রাজনীতির মানুষজন আকছার বলেন, আইন আইনের পথে চলবে। সেই পথটা যে বেজায় ঘোরালো, সে কথা তাঁরা বলেন না। আইনের ব্যাখ্যা একেকজনের কাছে যে একেকরকম, তা-ও তো বিস্ময় জাগায়! না হলে জ্যোতির ধর্ষকদের মৃত্যুদণ্ড হয়, আর বিলকিস বানোর ধর্ষকদের যাবজ্জীবন? দিল্লির বুকে ঘটে যাওয়া ঘটনা নিয়ে মিডিয়া তোলপাড় তুলেছিল বলে মাত্র সাড়ে চার বছরের মধ্যে জ্যোতির হতভাগ্য মা-বাবা সুবিচার পান, আর সুদূর গুজরাতের অজ্ঞাতকুলশীল বিলকিস বানোদের বিচার পেতে অপেক্ষায় থাকতে হয় দীর্ঘ পনেরোটা বছর? বিক্রমকে একটা দিনের জন্যও হাজতবাস করতে হল না, অথচ অর্ণব পচে মরছেন কারাগারে।
হতভাগ্য করবীর কথা যত ভাবছি ততই মনে পড়ে যাচ্ছে আইন, আইনের মারপ্যাঁচ, তার ফাঁক ফোকর, তার ব্যাখ্যা, আইনের রক্ষকদের প্রভাবশালী তত্ত্ব ও তার প্রয়োগের কথা। মনে পড়ছে মানবাধিকার কর্মীদের বহু উচ্চারিত সেই অমোঘ বাক্য, এ দেশে শুধু ধনঞ্জয়দেরই ফাঁসি হয়। এ দেশে প্রভাব ও প্রতিপত্তিশালী এমন কারও ফাঁসি হয়েছে আমি অন্তত মনে করতে পারছি না। হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে বছরের পর বছর জেলের ঘানি টানছেন, এমন কোনও বাঘা শিল্পপতির নামও মনে করতে পারলাম না। অথচ এ দেশে নাকি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত! এ দেশে আইন নাকি তার নিজের পথে নিজস্ব ধারায় বয়ে যায়!
বিলকিস বানো, করবী ঘোষ বা অর্ণবদের জন্য সহানুভূতি ছাড়া কীই বা দেখাতে পারি?
14th  May, 2017
গুম-নিখোঁজ ও পরমানন্দ মন্ত্রণালয়
সৌম্য বন্দ্যোপাধ্যায়

বাংলাদেশে ‘লিট ফেস্ট’ শুরু ও শেষ হল। সেই কারণে কি না জানি না, অরুন্ধতী রায়ের দ্বিতীয় উপন্যাস ‘দ্য মিনিস্ট্রি অব আটমোস্ট হ্যাপিনেস’ হুট করে সংবাদপত্রে চর্চার কেন্দ্রে উঠে এল। এই মুহূর্তে বাংলাদেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় সাহিত্যিক ও সাংবাদিক, আমার অতি ঘনিষ্ঠ ও প্রিয় আনিসুল হক এই উপন্যাসের বাংলা নাম দিয়েছেন ‘পরমানন্দ মন্ত্রণালয়’।
বিশদ

19th  November, 2017
লন্ডন, এডিনবরা এবং মমতা
শুভা দত্ত

দুর্গাপুজোর দিন যত এগিয়ে আসে, আনন্দটা তার সঙ্গে সমানুপাতিক হারে বাড়ে। এ আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির চিরন্তন সত্য। আর মা দুর্গাকে ঘিরে সেই উৎসবের রামধনু রং ফিকে হতে শুরু করে নবমীর সন্ধ্যা থেকেই। আজ বাদে কাল দশমী। মায়ের ফিরে যাওয়ার পালা।
বিশদ

19th  November, 2017
চীনের প্রেসিডেন্ট বনাম ভারতের ডিফেন্স রিসার্চ
প্রশান্ত দাস

জিনপিং দেশের বিখ্যাত বিজ্ঞানীদের বললেন—আমাদের সমাজতন্ত্র দেশকে তরতর করে এগিয়ে নিয়ে চলেছে। এগিয়ে চলেছে আমাদের অর্থনীতি। কিন্তু গত পাঁচ বছরে আপনারা ক’টি অবিশ্বাস্য অস্ত্র দিতে পেরেছেন সেনাদের? ভারতের ডিআরডিও কী করে পৃথিবীতে দু’নম্বর রিসার্চ সেন্টার হল? কী নেই আপনাদের? যা যা চাই, তালিকা পাঠান। যতদিন না আমরা ডিআরডিও-কে ছাপিয়ে যেতে পারছি, ততদিন আমরা নিজেদের এশিয়ার মধ্যে এক নং বলতে পারব না।
বিশদ

18th  November, 2017
রাজ্যের লাইব্রেরিগুলিকে বাঁচাতেই হবে
পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়

মনে পড়ছে গত ডিসেম্বরের কথা। বীরভূম জেলার সরকারি বইমেলার আয়োজন হয়েছিল সিউড়িতে, ইরিগেশন কলোনির মাঠে। আমি উদ্বোধক, মঞ্চে জেলার মন্ত্রীরা, সঙ্গত কারণেই উপস্থিত ছিলেন গ্রন্থাগারমন্ত্রীও। মঞ্চে বসেই সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর সঙ্গে পরিচয়, আলাপচারিতা।
বিশদ

18th  November, 2017
মোদির আমলে শিশুদের খিদের যন্ত্রণা তীব্র, কারণ শিশু ও মহিলা উন্নয়নে গুরুত্ব কম
দেবনারায়ণ সরকার

কেন্দ্রীয় সরকারের গত ৩ বছরের বাজেটের তথ্য সার্বিকভাবে বিচার করলে দেখা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় বাজেটে মোট ব্যয় যেখানে ২১ শতাংশের বেশি বেড়েছে (টাকার অঙ্কে অতিরিক্ত প্রায় ৩ লক্ষ ৫১ হাজার কোটি টাকা), সেখানে মহিলা ও শিশু উন্নয়নে ব্যয় কপর্দকও বাড়েনি, বরং প্রায় ১ শতাংশ কমেছে। একইভাবে মহিলা ও শিশু উন্নয়ন ব্যয় বাজেটের মোট ব্যয়ের ১ শতাংশের অনেক নীচে নেমেছে। মোদ্দা কথা হল, যে দেশের কেন্দ্রীয় বাজেটে মহিলা ও শিশু উন্নয়নের ব্যয় বাজেটে মোট ব্যয়ের ১ শতাংশেরও কম এবং এই ব্যয় মোদির জমানায় যেহেতু আরও কমছে, সেই দেশে রোজ রাতে খালি পেটে শুতে যাওয়া শিশুদের সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধিটাই স্বাভাবিক। তাই ভারতে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে অপুষ্টিও।
বিশদ

17th  November, 2017
ডেঙ্গু: রাজনীতি ছেড়ে হাত মিলিয়ে কাজের সময়
অনিরুদ্ধ কর

অবিলম্বে একটা স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর বা নিয়মাবলী প্রকাশ করতে হবে সরকারের তরফে। সরকারি নির্দেশ মানতে বাধ্য সকল সরকারি বেসরকারি ও প্রাইভেট চিকিৎসা কেন্দ্র। অতীতের দিকে নজর দিলে দেখা যাবে বার্ড ফ্লু বা সোয়াইন ফ্লু-র সময় সরকারের তরফে এমন নিয়মাবলী প্রকাশ করা হয়েছিল। চিকিৎসাব্যবস্থায় কী কী থাকতে হবে এবং কোথায় থাকবে তাও বলে দেওয়া হয়েছিল। ফ্লু-র ওষুধ একমাত্র সরকার দিত। খোলাবাজারে মিলত না সেই ওষুধ। কারণ সেক্ষেত্রে ওষুধ নিয়ে কালোবাজারি এবং চড়া দামে ওষুধ বিক্রি হওয়ার আশঙ্কা থেকে যেত। এছাড়া একটি রাজ্যস্তরের কমিটি ছিল পর্যালোচনার জন্য।
বিশদ

17th  November, 2017
প্যারিস, পরিবেশ এবং উচ্চাকাঙ্ক্ষী ভারত
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 পরিবেশ মানে হল যেখানে সেখানে থুতু না ফেলা। মন্তব্যটি আমারই এক ঘনিষ্ঠ বন্ধুর। এবং কী ভয়ঙ্কর সাবলীল স্বীকারোক্তি। যে দেশে ৩০ কোটি মানুষ এখনও দারিদ্রসীমার নীচে বসবাস করেন, যেখানে সাক্ষরতা বলতে বোঝানো হয় নিজের নাম সই করতে পারা, সেখানে সচেতনতার প্রাথমিক পাঠটা এমন একটা মন্তব্য দিয়ে শুরু করলে মন্দ কী!
বিশদ

16th  November, 2017
সার্ধশতবর্ষের শ্রদ্ধাঞ্জলি টেম্‌স থেকে গঙ্গা: ভগিনী নিবেদিতার দার্শনিক যাত্রা
জয়ন্ত কুশারী

 আয়ারল্যান্ডের স্বল্প জনবসতি শহর ডুং গানন। স্যামুয়েল রিচমন্ড নোবেল নামে এক ধর্মযাজক ও তাঁর ভক্তিমতী স্ত্রী মেরি ইসাবেল হ্যামিলটন বাস করেন এই শহরে। এঁরা সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের কাছে করজোড়ে প্রার্থনা করেন সুখপ্রসবে প্রথম সন্তানটি হলে তাঁরা ঈশ্বরের চরণেই সদ্যোজাতকে সমর্পণ করবেন।
বিশদ

16th  November, 2017
নোট বাতিল: উত্তরপ্রদেশের ভোট, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক এবং চে গুয়েভারা
শুভময় মৈত্র

নোট বাতিলের কারণ এবং ফল সংক্রান্ত আলোচনা দেখে, শুনে এবং পড়ে জনগণ এই বিষয়ে যথেষ্ট অবহিত, হয়তো বা কিছুটা ক্লান্তও বটে। বিজেপি সরকার কেন এই সিদ্ধান্ত নিলেন, এর কী কী ভুল ভ্রান্তি আছে, দেশের কী ক্ষতি হল, সাধারণ মানুষ ঠিক কতটা ভুগলেন এই নিয়ে আমরা যতটা আলোচনা করেছি সেই পরিমাণটা সময় এবং সম্পদের হিসেবে পাঁচশো আর হাজার টাকার মোট বাতিল নোটের মূল্যের থেকে বেশিও হয়ে যেতে পারে।
বিশদ

14th  November, 2017
বুকে লাল গোলাপের সেই মানুষটির কথা আজ খুব মনে পড়ছে
মোশারফ হোসেন

স্বপনদা বলত, পচার চাই। বুঝলে ভায়া, পচারটাই আসল। বাঁকুড়া মানুষ স্বপনদা র-ফলা উচ্চারণ করতে পারত না। তার মুখে ‘প্রচার’ শব্দটা ‘পচার’ হয়েই বেরত। আগ্রার ভঁপু চক্কোত্তিও একই কথা বলেছিলেন। ভঁপুবাবুর সঙ্গে আমার আলাপ হয়েছিল ১৯৯৩ সালে। এরকমই এক নভেম্বরে। উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা ভোটের খবর করতে গিয়ে।
বিশদ

14th  November, 2017
ফাইলের ভয় দেখিয়ে মুকুল কি রাজ্য রাজনীতিতে জায়গা করতে পারবেন?
শুভা দত্ত

ভয় দেখাচ্ছেন মুকুল রায়, ফাইলের ভয়। মারাত্মক তথ্য ঠাসা গোপন সব ফাইল নাকি সদ্য গেরুয়াধারী মুকুল রায়ের হাতে! সেসব ফাইলের তথ্য প্রকাশ পেলেই নাকি ধরাশায়ী হবে তৃণমূল! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজত্ব চলে যাবে! আর সেই সুযোগে ড্যাং ড্যাং করে মুকুল রায়ের বিজেপি পশ্চিমবঙ্গের দখল নেবে। মমতা ভুলে বাংলার জনতাও মোদিজি অমিতজির বন্দনায় আত্মহারা হবে।
বিশদ

12th  November, 2017
ভারতের স্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যবস্থাকে আরও জনকল্যাণমুখী ও সংগঠিত করা প্রয়োজন
বরুণ গান্ধী

 এবারে আমার আলোচনার বিষয়বস্তু হল, আমাদের দেশের সামগ্রিক স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে। খুব বেশিদিন নয়, মাত্র মাসদুয়েক আগের কথা। গোরখপুরের বি আর ডি হাসপাতালে ৬০ জন ছোট ছেলে-মেয়ে পাঁচ দিনের মধ্যে প্রায় বিনা চিকিৎসায় মারা গেল। এর থেকে দুঃখের ঘটনা আর কিছু হয় না। খবরে প্রকাশ, প্রতিদিন এই হাসপাতালে গড়ে ২০০/২৫০ জন এনসেফ্যালাইটিস রোগে আক্রান্ত রোগী ভরতি হচ্ছিলেন। রোগীর এহেন ভিড়ে এখানকার চিকিৎসার পরিকাঠামো একরকম ভেঙে পড়ে। বিশদ

12th  November, 2017
একনজরে
সংবাদদাতা, কান্দি: কান্দি মহকুমা এলাকায় অযত্নে শুকিয়ে নষ্ট হচ্ছে সবুজমালা প্রকল্পের বহু মূল্যবান গাছ। বছরখানেক আগে কান্দি মহকুমা এলাকার বিভিন্ন রাস্তার দু’পাশে ওই গাছগুলি লাগানো হয়েছিল। কিন্তু বছর পেরনোর আগেই অর্ধেক গাছ শুকিয়ে নষ্ট হয়ে গিয়েছে যত্নের অভাবে। গাছের চারদিকের ...

বিএনএ, শিলিগুড়ি: শনিবার গভীর রাতে ভক্তিনগর থানার সেভক রোডের একটি গুদামে দুষ্কৃতী হামলায় এক নিরাপত্তা রক্ষী খুন হন। পুলিস জানিয়েছে, নিহত নিরাপত্তারক্ষীর নাম রঘুনাথ রায়(৬২)। অভিযুক্তের খোঁজে পুলিস তল্লাশি শুরু করেছে।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ১৯ নভেম্বর: দেরিতে হলেও শেষমেশ ঘুম ভাঙল দিল্লির আম আদমি পার্টির (আপ) সরকারের। দূষণ ইস্যুতে বারবার জাতীয় পরিবেশ আদালত (এনজিটি) এবং সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত গ্রিন বডি ইপিসিএ’র কাছ থেকে ধমক খেয়ে অবশেষে আজ দিল্লি সরকার ঘোষণা করল, ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ডিমের দাম আকাশছোঁয়া। কমার নামগন্ধ নেই। সাত থেকে সাড়ে সাত টাকায় শহর ও শহরতলির বাজারে বিক্রি হচ্ছে পোলট্রির ডিম। এমন অবস্থায় রাজ্য ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

প্রেম-প্রণয়ে নতুনত্ব থাকবে। নতুন বন্ধু লাভ, ভ্রমণ ও মানসিক প্রফুল্লতা বজায় থাকবে। কোনও কোনও ক্ষেত্রে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৭৫০- মহীশূরের শাসক টিপু সুলতানের জন্ম।
১৯১০- রুশ সাহিত্যিক লিও তলস্তয়ের মৃত্যু।
১৯১৭- কলকাতায় প্রতিষ্ঠা হল বোস রিসার্চ ইনস্টিটিউট।
১৯৫৫- নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের পক্ষে টেস্টে প্রথম দ্বিশতরান করলেন উমরিগড় (২২৩)।  

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৪.০০ টাকা ৬৫.৬৮ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৩২ টাকা ৮৭.১৯ টাকা
ইউরো ৭৫.২০ টাকা ৭৭.৮৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
18th  November, 2017
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩০,১৯৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৮,৬৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৯,০৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪০,২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪০,৩০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
19th  November, 2017

দিন পঞ্জিকা

৪ অগ্রহায়ণ, ২০ নভেম্বর, সোমবার, দ্বিতীয়া রাত্রি ৯/৩৬, নক্ষত্র-জ্যেষ্ঠা রাত্রি ১২/৪৮, সূ উ ৫/৫৬/২৫, অ ৪/৪৮/৪, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৭/২৩ মধ্যে পুনঃ ৮/৫০ গতে ১১/০ মধ্যে। রাত্রি ঘ ৭/২৬ গতে ১০/৬ মধ্যে পুনঃ ২/২৭ গতে ৩/১৯ মধ্যে, বারবেলা ঘ ৭/১৮ গতে ৮/৪০ মধ্যে পুনঃ ২/৫ গতে ৩/২৬ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/৪৪ গতে ১১/২২ মধ্যে।
৩ অগ্রহায়ণ, ২০ নভেম্বর, সোমবার, দ্বিতীয়া রাত্রি ৭/৪২/২৮, জ্যেষ্ঠানক্ষত্র ১১/৫৫/৩৬, সূ উ ৫/৫৬/৫৮, অ ৪/৪৬/৫৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/২৩/৩৮, ৮/৫০/১৮-১১/০/১৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৪/৫৮-১০/৫৫/১৮, ২/২৫/৩৭-৩/১৮/১৮, বারবেলা ২/৪/২৮-৩/২৬/৪৩, কালবেলা ৭/১৮/১৩-৮/৩৯/২৮, কালরাত্রি ৯/৪৩/১৩-১১/২১/৫৮। 
৩০ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইএসএল: মুম্বই সিটি এফসিকে ২-০ গোলে হারাল বেঙ্গালুরু এফসি 

19-11-2017 - 10:01:17 PM

পিছোল ‘পদ্মাবতী’-র মুক্তির তারিখ, ১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে না সিনেমাটি

19-11-2017 - 04:14:46 PM

বিষ্ণুপুরের লালবাঁধ এলাকায় কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুন, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

19-11-2017 - 04:10:28 PM

দুর্গাপুরে বৃদ্ধা খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার পরিচারিকা

19-11-2017 - 04:06:09 PM

উত্তর দিনাজপুরের হাসকুন্ডা এলাকায় পাওয়ার স্টেশনের জমি দখলকে ঘিরে সংঘর্ষ, জখম ২ পুলিশ কর্মী-সহ ৩ জন

19-11-2017 - 02:39:00 PM