Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

বনে থাকে বাঘ 
অতনু বিশ্বাস

ছেলেবেলায় ‘সহজ পাঠ’-এ পড়েছিলাম ‘বনে থাকে বাঘ’। যদিও এই পাঠটা যে খুব সহজ আর স্বাভাবিক নাও হতে পারে, অর্থাৎ বনে বাঘ নাও থাকতে পারে, সেটা বুঝতে বেশ বড় হতে হল। ছোটবেলায় অবশ্য মনে বদ্ধমূল ধারণা ছিল, বন-জঙ্গল গিজগিজ করে বাঘে। শিশু বয়সে অন্যান্য বেশ কিছু গল্প শুনে বা পড়ে বাঘের অপ্রতুলতা সম্পর্কে কোনও সন্দেহ হবার কারণ ঘটেনি। যেমন, উপেন্দ্রকিশোরের গল্পে তো বাঘের ছড়াছড়ি। বহুবার ভেবেছি, ‘টুনটুনির বই’য়ের নাম ‘বাঘের বই’ দিলেও চলত। সেখানে বাঘ আর শিয়াল, চড়াই আর বাঘ, দুষ্টু বাঘ, বোকা বাঘ, বাঘ-বর, আরও কত কী! তবে সিংহের মামা ভোম্বলদাস গণ্ডা দশেক বাঘ মেরেছে শুনে মনে হয়েছিল, বেচারা বাঘেরা কোথায় যাবে তাহলে। বাঘ কি তাহলে শেষ হয়ে যাবে নাকি? আর একটু বড় হয়ে যখন জিম করবেটের শিকারের গল্পগুলি পড়ছি, তখন বাঘগুলিকে আর একটু ভয়ঙ্কর মনে হয়েছে, এই যা। তবে তাদের অস্তিত্বের সঙ্কটের কোনও কারণ আছে বলে তখনও মনে হয়নি এতটুকু।
বাস্তবে কিন্তু তখনই ভোম্বলদাসদের কর্মকাণ্ডের ফলশ্রুতি পরিষ্কার দেখা যাচ্ছিল। সঙ্গে আরও কারণ আছে অবশ্যই। আমরা অতটা ঠাহর করতে পারিনি, এই যা। বাঘের জনসংখ্যায় (বাঘ-সংখ্যায়) টান ধরে গিয়েছে তখনই। পৃথিবী জুড়েই। আসলে ‘পৃথিবী জুড়ে’ কথাটা তো এক্ষেত্রে গৌরবে বহুবচন। এক বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ বাঘের বাসভূমি তো আমাদের ভারতবর্ষের জঙ্গলগুলি। গত শতকের সাতের দশকের গোড়াতেই পৃথিবীতে বাঘের সংখ্যা কমে যায় বিপজ্জনক ভাবে। মনে আছে, হরতকী গ্রামের বাঘা বাইন জঙ্গলে গিয়ে বাঘের ভয় পায়, কিন্তু দেখা পায় না বাঘের। ওই যে উপেন্দ্রকিশোর লিখেছেন, ‘বাঘে খাবে দূরে থাক, সে বনে বাঘ-ভালুক কিছু নেই।’১৯৭৩ সালেই ভারত সরকার শুরু করে ‘প্রোজেক্ট টাইগার’। অনেকটা যেন 'বাঘ বাঁচাও' প্রকল্প। যেন আগে থেকে সাবধান হওয়া যাতে এমন দিন না আসে যে, উপেন্দ্রকিশোরের গল্পের বাঘগুলি সম্পর্কে আমাদের বলতে হয়, “হ্যাঁ, বাঘ নামে এক প্রাণী এক সময় ছিল পৃথিবীতে...”।
কিন্তু ২০১০ সাল নাগাদ দেখা গেল যে, গোটা পৃথিবীতে বাঘ মাত্র ৩,২০০টি। পরিবেশের বদল, খাদ্যে টান, বাঘেদের বাসস্থান ধ্বংস এবং নির্বিচারে বেআইনি বাঘ শিকার, এসবের মিলিত ফলশ্রুতিতে। সে বছর ভারত-সহ পৃথিবীর ১৩টি বাঘ-সমৃদ্ধ দেশ বৈঠকে বসে রাশিয়ায়। সেন্ট পিটার্সবার্গে। পরিকল্পনা হয় বাঘের সংখ্যা বাড়ানোর। লক্ষ্য পরিষ্কার। ২০২২-এর মধ্যে দেশগুলি যাতে দ্বিগুণ করতে পারে নিজ নিজ দেশের বাঘের সংখ্যা। ভারত কিন্তু, অন্তত, সেই লক্ষ্যে পৌঁছেছে এর মধ্যেই, ২০১৮-র হিসেবে।
২০১৮-র চতুর্থ বাঘ-শুমারি অনুসারে এদেশে এক বছর বয়সের ঊর্ধ্বে থাকা বাঘের সংখ্যা ২,৯৬৭। চার বছর পরে পরে হয় এই বাঘ গোনার কর্মকাণ্ড। ২০০৬-এর বাঘ-শুমারিতে এদেশে বাঘ ছিল ১,৪১১টি, ২০১০-এ তা দাঁড়ায় ১,৭০৬টিতে, আর ২০১৪ সালের তৃতীয় বাঘ-শুমারিতে বাঘের সংখ্যা ছিল ২,২২৬টি। তাই, এটা পরিষ্কার যে, বাঘের অনুকূল বাসস্থান, খাদ্য ইত্যাদির সংরক্ষণ করা এবং ভোম্বলদাসদের আটকাতে ভারত মোটামুটিভাবে বেশ সফল এই সময়কালে। পৃথিবীর মোট বাঘের সংখ্যা এখন মোটামুটি ৩,৯০০-র মতো। তাই ২০১৮-র হিসেব অনুসারে পৃথিবীর ৭৭ শতাংশ বাঘই এখন ভারতে। তাই ভারতে বাঘ সংখ্যায় বাড়লেও, অন্যান্য জায়গায় মোটের উপর বাঘের সংখ্যা যে কমে এসেছে এই সময়ের মধ্যে, সেটাও পরিষ্কার।
এবারের বাঘ-শুমারির হিসেব অনুসারে কোনও বাঘ নেই উত্তরবঙ্গের বক্সার ব্যাঘ্র সংরক্ষণ কেন্দ্রে। এনিয়ে বিস্তর হইচই আর আলোচনা চলছে মিডিয়াতে। বিশেষ করে বাংলার মিডিয়াতে। তবে, সুন্দরবনের বাঘের সংখ্যার হিসেবটা একবার দেখা যেতে পারে। ২০১০-এর শুমারিতে ভারতের সুন্দরবন অঞ্চলে বাঘের সংখ্যা ছিল ৭০। গত ২০১৪-তে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৭৬, আর এবারে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৮-তে। তাই একটু একটু করে উজ্জ্বল হলুদ হয়ে উঠছে আমাদের সুন্দরবন।
বাঘ গোনার কাজটা কিন্তু মানুষ গোনার চাইতে ঢের কঠিন। বাঘেরা ঘুরে বেড়াবে ঘন জঙ্গলে। গভীর জঙ্গলের গভীরতম অংশে সমীক্ষা করতে যাবে কে? কীভাবে? এমনিতে জঙ্গলের বাঘকে খুঁজে পাওয়াই মুশকিল। তার উপর খুঁজে পেতে তাকে পাশে বসিয়ে মানুষের আদমশুমারির মতো প্রশ্ন করে ফর্ম ভর্তি করার মতো উপেন্দ্রকিশোরীয় গল্প তো বাস্তবে সম্ভব নয় একেবারে। বাঘগুলিকে লাইনে দাঁড় করিয়েও পটাপট গুনে ফেলা সম্ভব নয়। তাই বাঘ গোনাটা হয় একেবারে অন্যভাবে।
আসলে গোনা যায় বা দেখা যায় কিছু সংখ্যক বাঘ, আর সেই সঙ্গে অনুমান করা হয় না দেখা বাঘের সংখ্যা। যোগ করা হয় এই দুটো সংখ্যাকে। ২০১৪-তে যেমন দেখা আর অনুমান করা বাঘ যথাক্রমে মোট সংখ্যার ৭০ আর ৩০ শতাংশ। ২০১৮-তে দেখে গোনা বাঘের সংখ্যা কিন্তু অনেক বেশি। দেখা বা অন্য কোনও সূত্রে খোঁজ পাওয়া বাঘ এবার ৮৩ শতাংশ। কিন্তু বাঘের খোঁজ পাবার পদ্ধতিটাও বদলাচ্ছে, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে।
প্রায় বছর পনেরো আগে কলকাতার ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউটে আমার কয়েকজন সহকর্মী বাঘের পায়ের ছাপ থেকে সুন্দরবনের বাঘ গোনার জন্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এক প্রোজেক্টে এক সফটওয়্যার তৈরি নিয়ে কাজ করেছিল। এমনিতে বাঘের পায়ের ছাপ একেবারেই আলাদা আলাদা। ধরা যাক, সেটাই বাঘের স্বাক্ষর। পায়ের ছাপ বলতে চারটে করে আঙুল, আর প্যাডের ছাপ। বাঘ বদলালে বদলে যাবে এই বিভিন্ন আঙুল আর প্যাডের দূরত্বগুলি। বাঘের পায়ের ছাপের প্লাস্টারের ছাঁচগুলি থেকে অনুমান করা হয়েছে বাঘের সংখ্যা, রাশিবিজ্ঞানের তত্ত্বের প্রয়োগ করে। আর সেই সঙ্গে রাশিবিজ্ঞানের সাহায্যেই অনুমান করা হয় ছাপ পাওয়া যায় নি এমন বাঘের সংখ্যা।
সময় বদলেছে। বদলেছে বাঘ গোনার প্রযুক্তিও। ২০১৮-তে বাঘ গুনতে চষে ফেলা হয়েছে দেশের ৩ লক্ষ ৮১ হাজার বর্গ কিলোমিটার জঙ্গল। জঙ্গলের মধ্যে যাওয়া হয়েছে ৫ লক্ষ ২৩ হাজার কিলোমিটার ফুট। দেশের ১৪১টি অঞ্চলের প্রায় ২৭ হাজার জায়গাকে আনা হয়েছে ক্যামেরার আওতায়। তোলা হয়েছে প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ ছবি, যার মধ্যে বাঘের ছবি প্রায় ৭৭ হাজার, আর চিতার ছবি প্রায় ৫২ হাজার। এর সঙ্গে যোগ করা হয়েছে আরও নানা ধরনের তথ্য—গাছপালা, অন্যান্য জন্তু-জানোয়ার ইত্যাদি ইত্যাদি। এ এক বিপুল তথ্য। এইসব তথ্য সংগ্রহে অনেক ক্ষেত্রেই ব্যবহার করা হয়েছে আধুনিক প্রযুক্তি। প্রায় ৪৪ হাজার কর্মকর্তা আর ৫৫ জন জীববিদ্যা-বিশারদের একযোগে মোট ৬ লক্ষ মানব-দিবসের ফল এবারের এই বাঘ-শুমারি। এই বিপুল তথ্যকে বিশ্লেষণ করে পাওয়া গিয়েছে ২,৪৬১টি বাঘের খোঁজ। বাকি শ’পাঁচেক বাঘ অনুমান করা হয়েছে অন্যান্য তথ্যের উপর নির্ভর করে রাশিবিজ্ঞানের ব্যবহারে।
দেখা যাচ্ছে, বাঘ সংরক্ষণে বেশ ভালোই কাজ করছে ভারত। তাই, মোটের উপর বলা চলে, এদেশের বনে বাঘ আছে। এবং তারা বাড়িয়ে চলেছে তাদের সংখ্যা। বছরে ৬ শতাংশ হারে। তবে, রাষ্ট্রের দায়িত্ব এখানেই শেষ নয়। দেশের নানা প্রান্তের জঙ্গলের মধ্যে বাঘের বেঁচে থাকার অনুকূল পরিবেশ তৈরি করা, সংরক্ষণ করা, এবং সেই সঙ্গে ভোম্বলদাসদের হাত থেকে তাদের রক্ষা করা খুব সহজ নয়। চার ভাগের এক ভাগ বাঘই মারা যায় চোরা-শিকারের ফলে। গোটা পৃথিবীর মধ্যে বাঘের প্রধান বাসভূমি আমাদের এই দেশ, আর তাই আমাদের দায়িত্ব অবশ্যই খানিক বেশি। যাই হোক, আপাতত আমরা বেশ গর্বের সঙ্গেই বলতে পারি যে, আমাদের বনে জঙ্গলে ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’, এবং বেশ ভালোভাবেই।
 ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউট, কলকাতার রাশিবিজ্ঞানের অধ্যাপক। মতামত ব্যক্তিগত 
13th  August, 2019
জন্মদিনে এক অসাধারণ নেতাকে কুর্নিশ
অমিত শাহ

 আজ, মঙ্গলবার আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ৬৯তম জন্মদিন। অল্প বয়স থেকেই মোদিজি নিজেকে দেশের সেবায় উৎসর্গ করেছেন। যৌবন থেকেই তাঁর মধ্যে পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর উন্নয়নে কাজের একটি প্রবণতা লক্ষ করা যায়। দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণের কারণে মোদিজির শৈশবটা খুব সুখের ছিল না। বিশদ

ব্যাঙ্ক-সংযুক্তিকরণ কতটা সাধারণ মানুষ এবং সামগ্রিক ব্যাঙ্কব্যবস্থার উন্নতির স্বার্থে?
সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়

অনেকগুলি ব্যাঙ্ক সংযুক্ত করে দেশে সরকারি ব্যাঙ্কের সংখ্যা কমিয়ে আনা হল আর সংযুক্তির পর চারটি এমন বেশ বড় ব্যাঙ্ক তৈরি হল, আকার আয়তনে সেগুলিকে খুব বড় মাপের ব্যাঙ্কের তকমা দেওয়া যাবে। এসব ঘোষণার পর অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য, এতে দেশের অর্থনীতির খুব উপকার হবে।  
বিশদ

16th  September, 2019
রাজনীতির উত্তাপ কি পুজোর আমেজ
জমে ওঠার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে?
শুভা দত্ত

 পরিস্থিতি যা তাতে এমন কথা উঠলে আশ্চর্যের কিছু নেই। উঠতেই পারে, উঠছেও। বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসবের মুখে প্রায় প্রতিদিনই যদি কিছু না কিছু নিয়ে নগরী মহানগরীর রাজপথে ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটে, পুলিস জলকামান, লাঠিসোঁটা, কাঁদানে গ্যাস, ইটবৃষ্টি, মারদাঙ্গা, রক্তারক্তিতে যদি প্রায় যুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় এবং তাতে সংশ্লিষ্ট এলাকার জনজীবন ব্যবসাপত্তর উৎসবের মরশুমি বাজার কিছু সময়ের জন্য বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে তবে এমন কথা এমন প্রশ্ন ওঠাই তো স্বাভাবিক।
বিশদ

15th  September, 2019
আমেরিকায় মধ্যবয়সের
সঙ্গী সোশ্যাল মিডিয়া
আলোলিকা মুখোপাধ্যায়

যে বয়সে পৌঁছে দূরের আত্মীয়স্বজন ও পুরনো বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা ক্রমশ আগের মতো সম্ভব হয় না, সেই প্রৌঢ় ও বৃদ্ধ-বৃদ্ধার জীবনে ইন্টারনেট এক প্রয়োজনীয় ভূমিকা নিয়েছে। প্রয়োজনীয় এই কারণে যে, নিঃসঙ্গতা এমন এক উপসর্গ যা বয়স্ক মানুষদের শরীর ও মনের উপর প্রভাব ফেলে। বিশদ

14th  September, 2019
মোদি সরকারের অভূতপূর্ব কাশ্মীর পদক্ষেপ পরবর্তী ভারতীয় কূটনীতির সাফল্য-ব্যর্থতা
গৌরীশঙ্কর নাগ

 এই অবস্থায় এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে, ৩৭০ ধারা বিলোপ পর্বের প্রাথমিক অবস্থাটা আমরা অত্যন্ত উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে অতিক্রম করেছি।
বিশদ

14th  September, 2019
ব্যর্থতা নয়, অভিনন্দনই
প্রাপ্য ইসরোর বিজ্ঞানীদের
মৃণালকান্তি দাস

 কালামের জেদেই ভেঙে পড়েছিল ইসরোর রোহিনী। না, তারপরেও এ পি জে আব্দুল কালামকে সে দিন ‘ফায়ার’ করেননি ইসরোর তদানীন্তন চেয়ারম্যান সতীশ ধাওয়ান! বলেননি, ‘দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হল কালামকে’! তার এক বছরের মধ্যেই ধরা দিয়েছিল সাফল্য। ধাওয়ানের নির্দেশে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন সেই কালাম-ই। তাঁর কথায়, ‘ওই দিন আমি খুব গুরুত্বপূর্ণ পাঠ পেয়েছিলাম। ব্যর্থতা এলে তার দায় সংস্থার প্রধানের। কিন্তু,সাফল্য পেলে তা দলের সকলের। এটা কোনও পুঁথি পড়ে আমাকে শিখতে হয়নি। এটা অভিজ্ঞতা থেকে অর্জিত।’ বিশদ

13th  September, 2019
রাষ্ট্রহীনতার যন্ত্রণা
শান্তনু দত্তগুপ্ত

ভিক্টর নাভরস্কি নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশনের লাইনে দাঁড়িয়ে আবিষ্কার করলেন, তিনি আচমকাই ‘রাষ্ট্রহীন’ হয়ে পড়েছেন। কারণ, তাঁর দেশ ক্রাকোজিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হয়েছে। পরিস্থিতি এতটাই জটিল যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশগুলির কাছে মানবিকতার নিরিখে ক্রাকোজিয়ার আর কোনও ‘অস্তিত্ব’ নেই।
বিশদ

10th  September, 2019
জাতির গঠনে জাতীয় শিক্ষানীতি
গৌরী বন্দ্যোপাধ্যায়

 অভিধান অনুসরণ করে বলা যায়, পঠন-পাঠন ক্রিয়াসহ বিভিন্ন অভিজ্ঞতালব্ধ মূল্যবোধের বিকাশ ঘটানোর প্রক্রিয়াই শিক্ষা। জ্ঞানকে বলা হচ্ছে অভিজ্ঞতালব্ধ প্রতীতি। শিক্ষা দ্বারা অর্জিত বিশেষ জ্ঞানকে আমরা বিদ্যা বলি। কালের কষ্টিপাথরে যাচাই করে মানুষ আবহমান কাল ধরে নিজ অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞানরাশিকে পরবর্তী প্রজন্মের জন্য পুস্তকের মধ্যে লিখে সঞ্চিত করে গেছে।
বিশদ

09th  September, 2019
আন্তর্জাতিক সম্পর্কের শতবর্ষে ভারত প্রান্তিক রাষ্ট্র থেকে প্রথম দশে, লক্ষ্য শীর্ষস্থান
বিশ্বনাথ চক্রবর্তী

 প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সমাপ্তির মুখে উড্রো উইলসন সমেত বিশ্বের তাবড় নেতারা প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ভয়াবহতা দেখে শঙ্কিত হয়ে পড়েন। যুদ্ধের রাহুর গ্রাস থেকে এই সুন্দর পৃথিবীকে কীভাবে রক্ষা করা যায় তা নিয়ে তাঁরা চিন্তিত ছিলেন। উইলসন বুঝতে পেরেছিলেন মানুষের মগজে রয়েছে যুদ্ধের অভিলাষ। যুদ্ধভাবনা মুছে ফেলে শান্তিভাবনা প্রতিষ্ঠা করা দরকার।
বিশদ

09th  September, 2019
পুজোর মুখে বিপর্যয়: ঘরে বাইরে

 দুর্ঘটনা বিপর্যয় তো আর জানান দিয়ে আসে না! নেপালের ভূমিকম্প কি আমাদের আয়েলার মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে কত মানুষ ঘর-সংসার সব হারিয়ে রাতারাতি সর্বস্বান্ত হয়েছেন, কত সংসার উজাড় হয়ে গেছে—শত চেষ্টাতেও সেই ক্ষত পুরোটা পূরণ করা গিয়েছে কি? যায়নি। এই বউবাজারে রশিদ জমানার সেই ভয়ানক বিস্ফোরণের পর কত লোকের কত সর্বনাশ হয়েছিল—কজন তার বিহিত পেয়েছিলেন? মেট্রো রেলের সুড়ঙ্গ কাটতে গিয়ে সেপ্টেম্বরের শুরুতে বউবাজারে বাড়ি ধসে যে ক্ষতি বাসিন্দাদের হল তাতে তাই ‘অপূরণীয় ক্ষতি’ বললে কিছুমাত্র ভুল হয় না। বিশদ

08th  September, 2019
বন্ধ হোক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পঞ্চায়েত দখল
তন্ময় মল্লিক

পঞ্চায়েত কারও চোখে স্থানীয় সরকার, কারও চোখে উন্নয়নের হাতিয়ার, কারও চোখে চোর তৈরির কারখানা। পঞ্চায়েত সম্পর্কে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি ভিন্ন হলেও একটা ব্যাপারে প্রায় সকলেই এক মত, পঞ্চায়েত আসলে মধুভাণ্ড। এই মধুভাণ্ডের নাগাল পাওয়া নিয়েই যত মারামারি, বোমাবাজি, খুনোখুনি। এই পঞ্চায়েতই নাকি এবার পশ্চিমবঙ্গের লোকসভা ভোটে ওলট-পালটের নাটের গুরু।
বিশদ

07th  September, 2019
অজানা ভবিষ্যৎ
সমৃদ্ধ দত্ত

টাকা কোথায় গেল? একের পর এক গ্রামবাসীর টাকা উধাও। সকলে সেই অফিসে আবার গেলেন। তারা এবার ভালো করে কম্পিউটার চেক করে বললেন, তোমাদের আগে যে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ছিল সেটা তো চেঞ্জ হয়েছে। এখানে নতুন এক অ্যাকাউন্ট দেখাচ্ছে। ওখানেই গেছে টাকা। প্রমোদকুমাররা জানেই না কোথায় নতুন অ্যাকাউন্ট! এক সহৃদয় ব্যাঙ্ককর্মী আবিষ্কার করলেন মোবাইল সার্ভিস প্রভাইডার কোম্পানি পেমেন্ট ব্যাঙ্ক চালু করেছে। ওই যে ফোনে আধার নম্বর চাওয়া হল এবং প্রমোদকুমাররা গিয়ে লিংক করিয়ে এলেন, আসলে ওই আধার নম্বরের মাধ্যমে তাঁদের অজ্ঞাতেই তাঁদের নামে পেমেন্ট ব্যাঙ্ক ‌অ্যাকাউন্ট চালু হয়ে গিয়ে সেই অ্যাকাউন্টই শো করতে শুরু করেছে সরকারি দপ্তরে। আর সব টাকা সেখানে যাচ্ছে।
বিশদ

06th  September, 2019
একনজরে
পবিত্র ত্রিবেদী, কলকাতা: গতবারের মতো এবারও দুর্গাপুজোয় শিশু-কিশোরদের দিতে চমক দিতে তৈরি সল্টলেক এফডি পার্কের দুর্গা পুজো। সেখানে এবার মণ্ডপসজ্জায় ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে গালিভার্স ট্রাভেলস। ...

সংবাদদাতা, আলিপুরদুয়ার: দলসিংপাড়ায় রবিবার রাতে ১৫টি তক্ষক উদ্ধার করলেন স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের কর্মীরা। এই ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে তিনজনকে। বনদপ্তরের উত্তরবঙ্গ স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের কর্মীরা ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: সোমবার কৃষকবন্ধু প্রকল্পে ১৪টি পরিবারকে দু’লক্ষ টাকা করে আর্থিক অনুদানের চেক তুলে দিল কৃষি দপ্তর। এদিন দুপুরে রামপুরহাট-১ ব্লকের কিষাণ মান্ডিতে একটি অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সেই চেক তুলে দেন কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সন্তানের বিদ্যাশিক্ষায় নজর দেওয়া প্রয়োজন। অতিরিক্ত পরিশ্রমে শরীরে অবনতি। নানাভাবে অর্থ অপচয়। কর্মপরিবর্তনের সম্ভাবনা বৃদ্ধি।প্রতিকার: ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৬৭: চিত্রশিল্পী গগনেন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্ম
১৯১৫: চিত্রশিল্পী এম এফ হুসেনের জন্ম
১৯৫০: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্ম
১৯৮৬: ক্রিকেটার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের জন্ম
১৯৯৯: কবি ও গীতিকার হসরত জয়পুরির মৃত্যু 

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৯৩ টাকা ৭৩.০৮ টাকা
পাউন্ড ৮৭.১৪ টাকা ৯১.৩৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৫ টাকা ৮১.০৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮, ৩৭৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬, ৪১০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬, ৯৫৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬, ১৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬, ২৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, তৃতীয়া ২৭/৪৪ অপঃ ৪/৩৩। অশ্বিনী অহোরাত্র। সূ উ ৫/২৭/১৪, অ ৫/৩৫/৪০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৫৩ গতে ১০/১৮ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৪ গতে ২/২২ মধ্যে পুনঃ ৩/৯ গতে ৪/৪৬ মধ্যে। রাত্রি ৬/২২ মধ্যে পুনঃ ৮/৪৫ গতে ১১/৭ মধ্যে পুনঃ ১/৩০ গতে ৩/৫ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৮ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ১/৩ গতে ২/৩৪ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/৬ গতে ৮/৩৫ মধ্যে। আজ শ্রীশ্রীবিশ্বকর্মা পূজা
৩০ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, তৃতীয়া ২১/৫৫/১১ দিবা ২/১২/৫৬। অশ্বিনী ৬০/০/০ অহোরাত্র, সূ উ ৫/২৬/৫২, অ ৩/৩৭/৩২, অমৃতযোগ দিবা ৭/৫২ গতে ১০/১৭ মধ্যে ও ১২/৪২ গতে ২/২৯ মধ্যে ও ৩/৬ গতে ৪/৪৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২০ মধ্যে ও ৮/৪৩ গতে ১১/৭ মধ্যে ও ১/২৮ গতে ৩/৪ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৮/১২ গতে ৮/২৯/৩২ মধ্যে, কালবেলা ১/৩/৩২ গতে ২/৩৪/৫২ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/৬/১২ গতে ৮/৩৪/৫২ মধ্যে।
১৭ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
শহরে ট্রাফিকের হাল
আজ, মঙ্গলবার সকালে শহরের রাস্তাঘাটে যান চলাচল মোটের উপর স্বাভাবিক। ...বিশদ

10:05:00 AM

দিল্লির জ্যোতিনগরে এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে খুন করল অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীরা 

09:58:00 AM

সরকারি স্কুল শিক্ষক সংগঠনের মাধ্যমিকের মডেল প্রশ্নপত্র প্রকাশ
 

আগামী বছরের মাধ্যমিকের মডেল প্রশ্নপত্র প্রকাশ করল পশ্চিমবঙ্গ সরকারি স্কুল ...বিশদ

09:55:07 AM

বীরভূমের সাহাপুরে ১৭টি তাজা বোমা উদ্ধার করল পুলিস 

09:53:00 AM

শিলিগুড়িতে ব্যাপক বৃষ্টি 

09:52:00 AM

পুরুলিয়ায় দুষ্কৃতীদের গুলিতে জখম ২ 
সোমবার রাতে গুলি চালানোর ঘটনায় পুরুলিয়ার নিতুরিয়া এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়াল। ...বিশদ

09:51:00 AM