Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

শ্রীরামকৃষ্ণ আধ্যাত্মিক গগনে উজ্জ্বলতম তারকা

 অনিঃশেষ সেই আনন্দ, অদম্য সেই শক্তি। সে এক অনন্ত সুখের আকর। ধারণার উচ্চতায়, সুপ্রাচীন জ্ঞানের প্রকাশে, অন্তর্দৃষ্টির গভীরতায়, ধ্যানতন্ময় প্রশান্তিতে, ভক্তির উচ্ছ্বাস ও উদ্দীপনায়, সাধকজীবনের কঠোরতায়, বাণীর মনোহারিত্বে তাঁর জীবনকে সমৃদ্ধ অধ্যাত্মজীবনের বিস্ময়কর উদাহরণ। প্রসারিত দৃষ্টিসম্পন্ন, করুণার বারিধি, এক অতুলীয় বিশ্বতোমুখ প্রতিভার অধিকারী শ্রীরামকৃষ্ণ আধ্যাত্মিক গগনে উজ্জ্বলতম তারকার মতোই দেদীপ্যমান। স্বামীজী বলেছেন, ঠাকুরের নিজের জীবন উপনিষদের এক জীবন্ত ভাষ্য; বলা যায়, উপনিষদের আত্মা যেন মানুষের রূপ ধরে ভারতবর্ষের বিচিত্র ভাবধারার অন্তর্লীন ঐক্যকে তুলে ধরেছে ঠাকুরের মধ্যে। পাশ্চাত্য প্রত্যক্ষবাদে বিশ্বাসী কোনো অজ্ঞেয়বাদী বুদ্ধিজীবীই মরমী সাধকদের আধ্যাত্মিক অভিজ্ঞতাসমূহে বিশ্বাস রাখতে ইচ্ছুক নন। ঈশ্বরদর্শনের নিশ্চিত অভিজ্ঞতা যে যোগী সাধকের নির্ভর, তিনিই পারেন অজ্ঞেয়বাদীর সংশয় ছিন্ন করে তাঁকে ইতিবাচক উত্তর দিতে। শ্রীরামকৃষ্ণ ঈশ্বরকে সামনাসামনি দেখেছিলেন এবং বিবেকানন্দের মনে বিশ্বাস উৎপন্ন করার ক্ষমতা তাঁরই ছিল। খণ্ডকে অখণ্ডকে বলে ভুল করার ফলে অখণ্ড যার আয়ত্তের বাইরেই থাকে, সেই অহংতাড়িত মন ও যুক্তিতর্কের প্রতিস্পর্ধা অগ্রাহ্য করে সত্য সবসময় অবিচল হয়ে অবস্থান করে। যখন আমরা শ্রীরামকৃষ্ণের মধ্যে অতুলনীয় এবং অভূতপূর্ব এক আধ্যাত্মিক প্রকাশ লক্ষ করি, আমরা বিস্মিত হয়ে যাই তার প্রচণ্ড প্রাণশক্তিতে, তার অশেষ ক্ষমতায়, গভীর আনন্দময় করুণাঘন অভিব্যক্তিতে। এক অবিশ্বাসী পৃথিবীর চোখের সামনে তিনি খোলাখুলি উজাড় করে দিয়েছিলেন আধ্যাত্মিক সত্যের রত্নরাজী। যে সহজাত আধ্যাত্মিক ঐশ্বর্য তিনি প্রকাশ করতেন, তা ছিল বিস্ময়করভাবে বহুলাঙ্গ দ্যুতিময়। যেমন অবিশ্বাসীদের কাছে, তেমনি বিশ্বাসীদের কাছেও তিনি ছিলেন এক কঠিন সমস্যা। তাঁর আধ্যাত্মিক গভীরতায় বৈশিষ্ট্য ছিল এক বিরল প্রাণশক্তি যা আর পাঁচজনের মধ্যে ছড়িয়ে দেবার দুর্দমনীয় আবেগে উদ্দীপ্ত হতেন তিনি। কেবল আত্মার শক্তিতে নির্ভর করেই তিনি চলতেন। যে পরম সত্য তাঁর সত্তার অন্তরশায়ী, তার সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন যোগ থাকায় ঈশ্বরের প্রকৃত অস্তিত্ব ও তাঁর নিকট-সান্নিধ্য সম্পর্কে ছবির মতো বুঝিয়ে দিতে পারতেন মানুষকে। অখণ্ডতা সঙ্গতি পরাদৃষ্টি প্রভৃতি আধ্যাত্মিক জীবনের উচ্চতর সত্যগুলির প্রমাণভিত্তিক যথার্থতার প্রতিপাদনই ছিল সেইযুগের সবচেয়ে বড়ো প্রয়োজন। আত্মবোধের নিশ্চিন্ততায় নিমগ্ন শ্রীরামকৃষ্ণকে শুষ্ক বিচার বিশ্বাসহীনতার মরুভূমিতে মনে হতো একটি সবুজ মরূদ্যান। শ্রীঅরবিন্দ বলেছেন, পাঁচশো বছরে আর একজন রামকৃষ্ণের ভার পৃথিবী ধারণ করতে পারবেন না।
সাধক শ্রীরামকৃষ্ণের আর একটি অসাধারণ বৈশিষ্ট্য হল যে বিজ্ঞানীর মতো মনের গড়ন ছিল বলে তিনি কোনোকিছুই প্রমাণ ছাড়া মেনে নিতে পারতেন না। বিজ্ঞানের পথ ধরেই তাঁর সাধনা এগিয়েছিল। কোনো কিছু মেনে নেবার আগে গভীর পর্যবেক্ষণ, পরীক্ষা, গবেষণা এবং পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচারের পর, তবে তিনি কোনো কিছু মেনে নিতে প্রস্তুত ছিলেন। ঠিক সেই কারণেই সংশয়ান্বিত পৃথিবীকে অধ্যাত্মজীবনের বাস্তবতা সম্পর্কে এত স্পষ্ট ও প্রত্যক্ষ পরিচয় দিতে সমর্থ হয়েছিলেন তিনি। মহৎ সত্যগুলিকে আবিষ্কার করার পর পরীক্ষিত সত্যের প্রদর্শনের ক্ষেত্রে তাঁর সত্তা প্রকৃতই একটি বীক্ষণাগারে পরিবর্তিত হয়েছিল। উপনিষদের বাণীর সত্যতার অভ্রান্ত প্রমাণ, রামকৃষ্ণের জীবনালোকে সমস্ত শাস্ত্রবচনই এক নতুন অর্থে প্রভাবিত হলো, নতুন জীবন পেল তাঁরা। তাই স্বামী বিবেকানন্দ বলেছেন—
‘শ্রীরামকৃষ্ণের জীবনের আশ্চর্য সন্ধানী আলোয় সমগ্র হিন্দু ধর্মের যথার্থ পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের সামনে উদ্ভাসিত হয়ে ওঠে। শাস্ত্রসমূহে যে জ্ঞান তাত্ত্বিক স্তরে সীমাবদ্ধ ছিল, তার ব্যবহারিক রূপ দেখা গেল তাঁর জীবনে। ঋষি ও অবতারগণ যে বিষয়ে শিক্ষা দিতে চেয়েছিলেন, তাঁর জীবন দিয়ে তিনি তাই করলেন। শ্রীরামকৃষ্ণকে না জেনে বেদ, বেদান্ত, ভাগবত এবং অন্যান্য পুরাণসমূহের প্রকৃত অর্থ উপলব্ধি করা কারো পক্ষে কখনোই সম্ভব নয়।’
উপলব্ধিই ধর্মের মূল কথা। যে হৃদয় সত্যকে জানার জন্যে তৃষিত হয়ে আছে, কোনো বিশেষ ধর্মমত কি তাকে তৃপ্তি দিতে পারে? একমাত্র উপলব্ধিজাত দৃঢ় বিশ্বাসই সত্যসন্ধানের প্রক্রিয়ায় টাটকা বাতাসের ছোঁয়া এনে দিতে পারে। পরাদৃষ্টির অধিকারী হওয়া এবং ঈশ্বরের নানা রূপের মধ্যে অখণ্ড সত্তার উপলব্ধিই হলো আধ্যাত্মিক জীবনের লক্ষ্য। স্বামী
তথাগতানন্দের ‘আভাসিত আলো’ থেকে
30th  July, 2019
জীবন-শৃঙ্খল

 সারা জগৎ মুক্তির জন্য উদ্‌গ্রীব, অথচ প্রত্যেক জীব তার শৃঙ্খলকেই ভালবাসে। এই হল আমাদের স্বভাবের প্রথম প্রহেলিকা ও দুর্ভেদ্য গ্রন্থি। জন্মের বন্ধন মানুষ ভালবাসে, তাই ত জন্মের দোসর মৃত্যুর বন্ধনে সে আবদ্ধ। এই যাবতীয় শৃঙ্খলের মধ্যে থেকেই সে তার সত্তার মুক্তি, তার আত্মপরিপূর্ণতার ঈশ্বরত্ব আকাঙ্ক্ষা করে। বিশদ

25th  August, 2019
লোকহিত

লোকসাধারণ বলিয়া একটা পদার্থ আমাদের দেশে আছে এটা আমরা কিছুদিন হইতে আন্দাজ করিতেছি এবং এই লোকসাধারণের জন্য কিছু করা উচিত হঠাৎ এই ভাবনা আমাদের মাথায় চাপিয়াছে। যাদৃশী ভাবনা যস্য সিদ্ধির্ভবতি তাদৃশী। এই কারণে, ভাবনার জন্যই ভাবনা হয়।
বিশদ

24th  August, 2019
শ্রীকৃষ্ণ জন্মাষ্টমীর তাৎপর্য

 সনাতন ধর্মে বার মাসে তের পার্বণ। এই বহুবিধ ধর্মানুষ্ঠানের মধ্যে শ্রীকৃষ্ণের আবির্ভাবতিথি তথা জন্মাষ্টমী অনুষ্ঠান অন্যতম। ধর্মানুষ্ঠানের এই বৈচিত্র্য ধারা সেই এক ঈশ্বরের লীলাবিলাস। অর্থাৎ বহুভাবে সেই এক ঈশ্বরকে জানার প্রক্রিয়া। একং সদ্বিপ্রা বহুধা বদন্তি—অর্থাৎ সেই এক সদ্বস্তুকে গুণীজন বহুভাবে জানেন। বিশদ

23rd  August, 2019
 কুণ্ডলীশক্তি

 “মস্তিষ্ক-মধ্যগত ব্রহ্মরন্ধ্রস্থ অবকাশ বা আকাশে অখণ্ড-সচ্চিদানন্দস্বরূপ পরমাত্মার বা শ্রীভগবানের জ্ঞানস্বরূপে অবস্থান। তাঁহার প্রতি কুণ্ডলীশক্তির বিশেষ অনুরাগ, অথবা শ্রীভগবান তাঁহাকে নিরন্তর আকর্ষণ করিতেছেন।” এই আকর্ষণ কিরূপে বুঝিতে বা অনুভব করিতে পারা যায়? বিশদ

22nd  August, 2019
সাহিত্য ও চিত্রকলা

আমি কী বোঝাব তোমাদের কাকে বলে সাহিত্য, কাকে বলে চিত্রকলা। বিশ্লেষণ ক’রে কি এর মর্মে গিয়ে পৌঁছতে পারি। কোন্‌ আদি উৎস থেকে এর স্রোতের ধারা বাহির হয়েছে এক মুহূর্তে তা বোঝা যায়, যখন সেই স্রোতে মন আপনার গা ভাসিয়ে দেয়। 
বিশদ

21st  August, 2019
ভক্তের শ্রেষ্ঠত্ব 

আমার মনে হয়, প্রপত্তি সম্পর্কে আমার কিছু বলা দরকার। বোধ হয়, সেটা আমার সামাজিক ও আধ্যাত্মিক দায়িত্ব ও কর্ত্তব্যও। সংস্কৃতে প্র—পত+঩ক্তিন প্রত্যয় করে ‘প্রপত্তি’ শব্দটি নিষ্পন্ন।
বিশদ

20th  August, 2019
অমৃতকথা 

কামারপুকুরে একদিন ঠাকুর এসে বললেন, ‘খিচুড়ি খাওয়াও।’ খিচুড়ি রেঁধে রঘুবীরকে ভোগ দিলুম। মাড়োয়ারী (অর্থাৎ হিন্দুস্থানী) কিনা, তাই খিচুড়ি। তারপর বসে ভাবে ঠাকুরকে খাওয়াতে লাগলুম।  বিশদ

19th  August, 2019
সাধনা

যেমন সাধনা তেমন সিদ্ধি। মনকে ইষ্টমুখী করাই সাধনা। সংসারের দিকে মন ছুটছে, চাহিদা জাগছে নানান্‌ রকমের। কিন্তু কেন? সব চাহিদা সব আকুলতা সংসারকে দেবে কেন? এটা তো ঠিক যে, আমরা কিছুটা অংশ অন্ততঃ ভগবানের দিকে দিতে পারি। কাজেই সেটা দিয়েই শুরু করতে হবে।
বিশদ

18th  August, 2019
নারীপ্রগতি

 পাশ্চাত্যের নারীপ্রগতি বিবেকানন্দকে মুগ্ধ করেছিল। অন্যদিকে, স্বদেশের কন্যাদের তত্কালীন সামাজিক পরিস্থিতি স্মরণ করে তিনি ব্যথিত হতেন। বেদান্ত-ভিত্তিক ধর্মের ওপর আইরিশ কন্যা মার্গারেটের শ্রদ্ধা ও আস্থা তাঁকে আশান্বিত করে। স্বামীজীর আদর্শে অনুপ্রাণিত, আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত মার্গারেটকে ভারত সম্পর্কে আগ্রহ প্রকাশ করলে স্বামী বিবেকানন্দ মার্গারেটকে ভারতবর্ষে আহ্বান করেন। বিশদ

17th  August, 2019
 বিশ্বাস

 বিশ্বাস দুই প্রকারের হইয়া থাকে :- যে-বিশ্বাস সমতা নামাইয়া আনে এবং যে-বিশ্বাস সিদ্ধি নামাইয়া আনে। এই দুই বিশ্বাস ভগবানের দুই বিভিন্ন মূলভাবের সহিত সম্বন্ধ। বিশ্বগত ভগবানও আছেন, আবার বিশ্বাতীত ভগবানও আছেন। বিশদ

15th  August, 2019
অমৃতকথা 

মহাপ্রভুর অনবদ্যরূপ, অনুপম গুণ, সুচিশুদ্ধ চরিত্র ও অনির্বচনীয় মাধুর্যে সে যুগের প্রত্যেকটি মানুষ আকৃষ্ট হইয়াছিল। তাঁহার স্পর্শে ক্রূর শ্বাপদও হিংসা ভুলিয়াছিল। দুর্বৃত্ত, পাষণ্ড, দস্যু ও লম্পট বহু ব্যক্তি তাঁহার সংস্পর্শে ধর্মাত্মা হইল।  বিশদ

14th  August, 2019
আকর্ষণ 

“মস্তিষ্ক-মধ্যগত ব্রহ্মরন্ধ্রস্থ অবকাশ বা আকাশে অখণ্ড-সচ্চিদানন্দস্বরূপ পরমাত্মার বা শ্রীভগবানের জ্ঞানস্বরূপে অবস্থান। তাঁহার প্রতি কুণ্ডলীশক্তির বিশেষ অনুরাগ, অথবা শ্রীভগবান তাঁহাকে নিরন্তর আকর্ষণ করিতেছেন।”  
বিশদ

13th  August, 2019
রামকৃষ্ণগতপ্রাণা

যখন ঠাকুর চলে গেলেন, আমারও ইচ্ছা হল, আমিও চলে যাই। তিনি দেখা দিয়ে বললেন, ‘না, তুমি থাক। অনেক কাজ বাকী আছে।’ শেষে দেখলুম, তাইতো, অনেক কাজ বাকী। ঠাকুরের শরীরত্যাগের পর বৃন্দাবনে আছি। সকলেই তাঁর শোকে কাতর। একদিন রাত্রে ঠাকুর বলছেন, ‘তোমরা অত কাঁদছ কেন? আমি আর গেছি কোথা? এঘর আর ওঘর বৈ তো নয়?’
বিশদ

12th  August, 2019
 সদ্‌গুরু

 কেবল সদ্‌গুরুর অপেক্ষায় বসিয়া না থাকিয়া যথাসাধ্য ঈশ্বরচিন্তা, সাধুসঙ্গ ও সদ্‌গ্রন্থাদি পাঠ করিবার চেষ্টা করিও। জমি প্রস্তুত হইলে বীজ বপন করিলে সুফল ফলে ; এবং ইহা একটি প্রকৃতির রহস্য যে জমি প্রস্তুত হইলেই বীজ আপনি আসিয়া উপস্থিত হয়। অভাববোধ হইলেই তাহার পূরণ হয়। বিশদ

11th  August, 2019
দেবীমানবী

তিনি(ঠাকুর) বলতেন, ‘ওরে, ওর নাম সারদা, ও সরস্বতী।’(ঠাকুর গোলাপ-মাকেও বলেছিলেন, ‘ও সারদা, সরস্বতী—জ্ঞান দিতে এসেছে।’) সকলেই কি আর চিনতে পারে, মা? ঘাটে একখানা হীরা পড়ে ছিল। সব্বাই পাথর মনে করে তাতে পা ঘষে স্নান করে উঠে যেত। একদিন এক জহুরি সেই ঘাটে এসে দেখে চিনলে যে, সেখানে এক প্রকাণ্ড মহামূল্য হীরা। ঠাকুর সাক্ষাৎ ভগবান। আমি আর কে, আমিও ভগবতী।
বিশদ

10th  August, 2019
শ্রীগুরু

 প্রশ্ন: গুরুর কাছে কিছু চাওয়া উচিত কি? উত্তর: আমরা গুরুর কাছে সাধারণত বাস্তব অভাব পূরণের দাবী করে থাকি। কিন্তু যিনি প্রকৃত গুরু তিনি জানেন শিষ্যের প্রকৃত অভাব কি? যাতে শিষ্যের কল্যাণ হয়, তা শিষ্য চাইবার আগেই তিনি দিয়ে থাকেন। তাই গুরুর কাছে কিছু চাইতে নেই। বিশদ

09th  August, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ছেলের সামনেই সরকারি বাসের চাকায় পিষ্ট হলেন বাবা। শনিবার রাতে এমনই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল গড়িয়া মোড়ের ৫ নম্বর বাস ডিপো সংলগ্ন রাজা সুবোধচন্দ্র মল্লিক রোডে। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের নাম দেবদাস চট্টোপাধ্যায় (৭৯)। বাড়ি নাকতলার দুর্গাপ্রসন্ন পরমহংস রোডে। ...

 একনজরে পিভি সিন্ধু ...

সিওল, ২৫ আগস্ট (এপি): আকারে ‘দানবীয়’। পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হয়েছে বহুমুখী রকেট লঞ্চারের। আর তাতে তদারকি করেছেন কিম জং উন নিজে। রবিবার উত্তর কোরিয়ার তরফে একথা বলা হল। ঘটনাচক্রে, পরমাণু অস্ত্র ইস্যুতে আমেরিকার সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার ফের আলোচনার প্রক্রিয়া শুরুর ...

সংবাদদাতা, কালনা: কালনার কৃষ্ণদেবপুর পঞ্চায়েত এলাকায় শনিবার দিদিকে বলো কর্মসূচিতে এসে বাসিন্দাদের ক্ষোভের মুখে পড়লেন কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু। টাকা জমা দিয়েও শৌচাগার না পাওয়া, ঘরের চাল দিয়ে জল পড়া, আবেদন করেও সরকারি ঘর না পাওয়া, পানীয় জলের সমস্যা, বিধবা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে ভাবনাচিন্তা করে বিষয় নির্বাচন করলে ভালো হবে। প্রেম-প্রণয়ে বাধাবিঘ্ন থাকবে। কারও সঙ্গে মতবিরোধ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯১০: নোবেল জয়ী সমাজসেবী মাদার টেরিজার জন্ম
১৯৩৪: কবি ও গীতিকার অতুলপ্রসাদ সেনের মৃত্যু
১৯৫৬: রাজনীতিক মানেকা গান্ধীর জন্ম
১৯৬৮: চিত্র পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকরের জন্ম

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৭৯ টাকা ৭২.৪৯ টাকা
পাউন্ড ৮৫.৩৪ টাকা ৮৮.৫১ টাকা
ইউরো ৭৭.৯৮ টাকা ৮০.৯৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
23rd  August, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৯, ০২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৭, ০২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭, ৫৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪, ৮৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪. ৯৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
25th  August, 2019

দিন পঞ্জিকা

৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, দশমী ৪/১৬ দিবা ৭/৩ পরে একাদশী ৫৯/৩৪ শেষরাত্রি ৫/১০। আর্দ্রা ৪৯/০ রাত্রি ২/৫৬। সূ উ ৫/২০/৩০, অ ৫/৫৬/৩৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে পুনঃ ১০/২৩ গতে ১২/৫৪ মধ্যে। রাত্রি ৬/৪২ গতে ৯/০ মধ্যে পুনঃ ১১/১৫ গতে ২/১৮ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৫ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/৪৭ গতে ৪/২২ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১৩ গতে ১১/৩৮ মধ্যে। 
৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, একাদশী ৪৮/৪০/৩৭ রাত্রি ১২/৪৭/৪২। আর্দ্রানক্ষত্র ৪৬/২৩/৪৪ রাত্রি ১১/৫২/৫৭, সূ উ ৫/১৯/২৭, অ ৫/৫৯/২৭, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩ মধ্যে ও ১০/১৯ গতে ১১/৪৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৯ গতে ৮/৪৯ মধ্যে ও ১১/১০ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ২/৪৯/২৭ গতে ৪/২৪/২৭ মধ্যে, কালবেলা ৬/৫৪/২৭ গতে ৮/২৯/২৭ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১৪/২৭ গতে ১১/৩৯/২৭ মধ্যে। 
২৪ জেলহজ্জ 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আজ বর্ধমানে মুখ্যমন্ত্রী 
প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দিতে আজ, সোমবার পূর্ব বর্ধমানে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী ...বিশদ

08:30:00 AM

ইতিহাসে আজকের দিনে 
১৯১০: নোবেল জয়ী সমাজসেবী মাদার টেরিজার জন্ম১৯৩৪: কবি ও গীতিকার ...বিশদ

08:26:50 AM

আজকের রাশিফল 
মেষ: সৎ পরামর্শমতো চললে ভালো হবে। বৃষ: বুঝেশুনে বিনিয়োগ করলে শুভ ...বিশদ

08:08:00 AM

পিস হাভেনের সামনে ভেঙে পড়ল পোর্টিকো 
পিস হাভেনের সামনে ভেঙে পড়ল পোর্টিকো। এদিন সন্ধ্যার সময় পিস ...বিশদ

25-08-2019 - 09:22:00 PM

ব্যাডমিন্টন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন পি ভি সিন্ধু 

25-08-2019 - 06:22:00 PM

জল জমার প্রতিবাদে সোদপুরের এইচবি টাউনে স্থানীয়দের অবরোধ

25-08-2019 - 03:56:55 PM