Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

মন ও মন্ত্র 

মনকে যা ত্রাণ করে তার নাম মন্ত্র। মনকে ত্রাণ করতে হলে এমন একটা-কিছুর আশ্রয় নিতে হয় যা মন থেকে পৃথক, যা মনের অতীত, যা মন নয়। সাধক ও তাঁর মনের মধ্যে মন্ত্র হ’ল, প্রথম আবির্ভাবে, এক তৃতীয় শক্তি-স্বরূপ। পরিশেষে অবশ্য, মন্ত্রই একমাত্র শক্তি হিসেবে বিরাজ করেন; সাধক ও তাঁর মনের শক্তি— এ দুটি ক্রমশ মন্ত্র-শক্তিতেই বিলীন হয়।
মন হ’ল জড়, মন্ত্র চেতন। বলা হয়ে থাকে, মন্ত্রে অক্ষরবুদ্ধি করতে নেই। আপাতভাবে মন্ত্র একটি অক্ষর, শব্দ বা শব্দসমষ্টি। কিন্তু সেটি হ’ল তাঁর নেহাৎই মৃন্ময়মূর্ত্তি। তাঁর মধ্য দিয়ে যে দ্যোতনা ও ব্যঞ্জনার উদ্ভব ঘটে, তাঁর যে উদ্ধারণের সার্মথ্য, তাই হ’ল মন্ত্রের আসল মূর্ত্তি— যা পুরোপুরি চিন্ময়, চেতনাশ্রয়, চৈতন্যময়। সেই শক্তিই আমাদের উপর অতি ধীরে ধীরে জপের মধ্য দিয়ে মনপ্রাণকে উত্তরণে সাহায্য করে। অতি সুদীর্ঘ অপসংস্কারের প্রকোপে আমাদের মন-প্রাণ মলিন ও ক্লিন্ন। শিশিরের বিন্দু বিন্দু ফোঁটার মতন জপ ব্যক্তির দেহ, মন, প্রাণের উপর ক্রিয়া করে।
মনের গতিপ্রকৃতি অতি বিচিত্র। চিদাকাশের বুকে মন যেন থরে থরে সাজানো মেঘের সারি। এই সে উৎফুল্ল এই যে বিমর্ষ, এই সে তুষ্ট, এই সে রুষ্ট, এই উজ্জীবিত এই ক্লান্ত, এই অনুকূল পরমুহূর্ত্তে প্রতিকূল। নিরন্তর নানাবিধ টানাপোড়েন সংঘর্ষ ও দ্বিধাদ্বন্দ্বের মধ্যেই এর বিচরণ—অতি ক্ষিপ্র গতিতে। মুহূর্ত্তে মুহূর্ত্তে সে রং পাল্টায়, ভোল বদলায়—অস্থিরচিত্ত চপলমতি বালকের মতন। শিশু না-হয় বড় হয়ে ঠিক হয়, কিন্তু মন শতবর্ষেও বৃদ্ধ হয় না। আমাদের ভিতরে থেকে সে নেহাৎই ছেলেমানুষি ক’রে চলে, তা আমরা যত দায়িত্বশীল পদে অধিষ্ঠিত অথবা যত বয়োবৃদ্ধ হই না কেন। এই মনকে ত্রাণ না করলে এ আমাদের ভুগিয়ে ও জ্বালিয়ে মারবেই মারবে।
মন যতক্ষণ সুনিয়ন্ত্রিত না হচ্ছে ততক্ষণ কর্ম্মশক্তি, সাধনশক্তি, ইচ্ছাশক্তির স্ফুরণ ঘটে না। মনের আধারেই এদের বাস। তাই মনকে সুনিয়ন্ত্রিত করা এত জরুরী। মূল প্রশ্ন হল, আমার অধীন, না আমি মনের অধীন? দেহ এবং পরিবেশ আবার মূলত সেই মনের অধীন। সুতরাং সেই মনকে যদি আমার অধীন না রাখতে পারি, তবে দেহ পরিবেশ ইত্যাদি কিছুই আমার অধীনে থাকে না; ঝড়ের মুখে শালপাতার মতন আমাকে ব্রহ্মাণ্ডময় আছাড় খেয়ে মরতে হয়। জপ সুরু করা মানে, এই সমুদ্র-ঝঞ্ঝার মধ্যে নোঙ্গর করার প্রয়াস, মহাসমুদ্রে খাবি খাওয়া থেকে পরিত্রাণের প্রথম পদক্ষেপ। জপ সুরু করার প্রথম পর্য্যায়ে মন বানরের মতন ঠেলে ঠেলে আমাদের আসন থেকে উঠিয়ে দিতে চেষ্টা করে। সে সময় ঘাপ্‌টি মেরে বসে থাকতে হয়। কিছুক্ষণ চেষ্টা করার পর বেটা সাময়িকভাবে রণে ভঙ্গ দেয়। জপসাধনের প্রথম অবস্থায় এরকম কতকিছু ঘটে।
পাগলের একটি বড় লক্ষণ হল, যে ওষুধে আরোগ্য হয়, পাগল সেটি সযত্নে পরিহার করতে সবিশেষ উদ্যোগী। অন্য সব ব্যাপারে সে পাগল, কিন্তু এই ব্যাপারে তার টনটনে জ্ঞান। আত্মীয়স্বজনদের তাই তাকে ওষুধ খাওয়াতে কত ঝামেলা, কত কৌশল, কত যন্ত্রণা! আমরা যে জপ সুরু করি না, জপে বসি না বা জপে লেগে থাকি না—তা মূলত এই কারণেই। মন্ত্রজপে মনের তাই প্রাথমিক পর্য্যায়ে বিষম বিতৃষ্ণা ও বিরোধীতা।
নিজের মনের সঙ্গে নিজের লড়াই বস্তুত সবচেয়ে কঠিন, কষ্টসাধ্য এবং সুদীর্ঘ সংগ্রাম। জপসাধনাকে তাই সুদীর্ঘ এবং আয়াসসাধ্য হতেই হয়। সহস্র সহস্র বৎসরের অপসংস্কৃত মন দু’এক বছরের ক্ষীণ প্রয়াসে সম্পূর্ণ নিরাময় হয়ে যাবে—প্রায়ই তা হয় না, যদি-না মহতের বিশেষ কৃপা বা শক্তিপাত ঘটে। আর সে দুর্লভ সুযোগ ঘটলেও মুস্কিল এই—আমার মন যে তার মূল্য দিতে পারে না, জানে না। সে নিজে যতক্ষণ-না প্রয়াস পাচ্ছে, ততক্ষণ সে মুক্ত হতে পারে না। বস্তুত তাকে নিজেকেই নিজে উদ্ধার করতে হয়— ‘উদ্ধরেদাত্মনাত্মানম্‌’। মন্ত্র-জপ মানে মনের নিজ উদ্ধার-প্রয়াসে মনকে সাহায্য করা। অপসংস্কারের অতি পুরু আস্তরণ আমাদের মনের চারপাশে জমে উঠেছে। সেটিকে দূর করতে হলে জপরুপী সদভ্যাস নিয়মিতভাবে সুদীর্ঘকাল চালানো প্রয়োজন।

অযাচকের ‘জপ’ থেকে  
14th  May, 2019
 কুণ্ডলীশক্তি

 “মস্তিষ্ক-মধ্যগত ব্রহ্মরন্ধ্রস্থ অবকাশ বা আকাশে অখণ্ড-সচ্চিদানন্দস্বরূপ পরমাত্মার বা শ্রীভগবানের জ্ঞানস্বরূপে অবস্থান। তাঁহার প্রতি কুণ্ডলীশক্তির বিশেষ অনুরাগ, অথবা শ্রীভগবান তাঁহাকে নিরন্তর আকর্ষণ করিতেছেন।” এই আকর্ষণ কিরূপে বুঝিতে বা অনুভব করিতে পারা যায়? বিশদ

সাহিত্য ও চিত্রকলা

আমি কী বোঝাব তোমাদের কাকে বলে সাহিত্য, কাকে বলে চিত্রকলা। বিশ্লেষণ ক’রে কি এর মর্মে গিয়ে পৌঁছতে পারি। কোন্‌ আদি উৎস থেকে এর স্রোতের ধারা বাহির হয়েছে এক মুহূর্তে তা বোঝা যায়, যখন সেই স্রোতে মন আপনার গা ভাসিয়ে দেয়। 
বিশদ

21st  August, 2019
ভক্তের শ্রেষ্ঠত্ব 

আমার মনে হয়, প্রপত্তি সম্পর্কে আমার কিছু বলা দরকার। বোধ হয়, সেটা আমার সামাজিক ও আধ্যাত্মিক দায়িত্ব ও কর্ত্তব্যও। সংস্কৃতে প্র—পত+঩ক্তিন প্রত্যয় করে ‘প্রপত্তি’ শব্দটি নিষ্পন্ন।
বিশদ

20th  August, 2019
অমৃতকথা 

কামারপুকুরে একদিন ঠাকুর এসে বললেন, ‘খিচুড়ি খাওয়াও।’ খিচুড়ি রেঁধে রঘুবীরকে ভোগ দিলুম। মাড়োয়ারী (অর্থাৎ হিন্দুস্থানী) কিনা, তাই খিচুড়ি। তারপর বসে ভাবে ঠাকুরকে খাওয়াতে লাগলুম।  বিশদ

19th  August, 2019
সাধনা

যেমন সাধনা তেমন সিদ্ধি। মনকে ইষ্টমুখী করাই সাধনা। সংসারের দিকে মন ছুটছে, চাহিদা জাগছে নানান্‌ রকমের। কিন্তু কেন? সব চাহিদা সব আকুলতা সংসারকে দেবে কেন? এটা তো ঠিক যে, আমরা কিছুটা অংশ অন্ততঃ ভগবানের দিকে দিতে পারি। কাজেই সেটা দিয়েই শুরু করতে হবে।
বিশদ

18th  August, 2019
নারীপ্রগতি

 পাশ্চাত্যের নারীপ্রগতি বিবেকানন্দকে মুগ্ধ করেছিল। অন্যদিকে, স্বদেশের কন্যাদের তত্কালীন সামাজিক পরিস্থিতি স্মরণ করে তিনি ব্যথিত হতেন। বেদান্ত-ভিত্তিক ধর্মের ওপর আইরিশ কন্যা মার্গারেটের শ্রদ্ধা ও আস্থা তাঁকে আশান্বিত করে। স্বামীজীর আদর্শে অনুপ্রাণিত, আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত মার্গারেটকে ভারত সম্পর্কে আগ্রহ প্রকাশ করলে স্বামী বিবেকানন্দ মার্গারেটকে ভারতবর্ষে আহ্বান করেন। বিশদ

17th  August, 2019
 বিশ্বাস

 বিশ্বাস দুই প্রকারের হইয়া থাকে :- যে-বিশ্বাস সমতা নামাইয়া আনে এবং যে-বিশ্বাস সিদ্ধি নামাইয়া আনে। এই দুই বিশ্বাস ভগবানের দুই বিভিন্ন মূলভাবের সহিত সম্বন্ধ। বিশ্বগত ভগবানও আছেন, আবার বিশ্বাতীত ভগবানও আছেন। বিশদ

15th  August, 2019
অমৃতকথা 

মহাপ্রভুর অনবদ্যরূপ, অনুপম গুণ, সুচিশুদ্ধ চরিত্র ও অনির্বচনীয় মাধুর্যে সে যুগের প্রত্যেকটি মানুষ আকৃষ্ট হইয়াছিল। তাঁহার স্পর্শে ক্রূর শ্বাপদও হিংসা ভুলিয়াছিল। দুর্বৃত্ত, পাষণ্ড, দস্যু ও লম্পট বহু ব্যক্তি তাঁহার সংস্পর্শে ধর্মাত্মা হইল।  বিশদ

14th  August, 2019
আকর্ষণ 

“মস্তিষ্ক-মধ্যগত ব্রহ্মরন্ধ্রস্থ অবকাশ বা আকাশে অখণ্ড-সচ্চিদানন্দস্বরূপ পরমাত্মার বা শ্রীভগবানের জ্ঞানস্বরূপে অবস্থান। তাঁহার প্রতি কুণ্ডলীশক্তির বিশেষ অনুরাগ, অথবা শ্রীভগবান তাঁহাকে নিরন্তর আকর্ষণ করিতেছেন।”  
বিশদ

13th  August, 2019
রামকৃষ্ণগতপ্রাণা

যখন ঠাকুর চলে গেলেন, আমারও ইচ্ছা হল, আমিও চলে যাই। তিনি দেখা দিয়ে বললেন, ‘না, তুমি থাক। অনেক কাজ বাকী আছে।’ শেষে দেখলুম, তাইতো, অনেক কাজ বাকী। ঠাকুরের শরীরত্যাগের পর বৃন্দাবনে আছি। সকলেই তাঁর শোকে কাতর। একদিন রাত্রে ঠাকুর বলছেন, ‘তোমরা অত কাঁদছ কেন? আমি আর গেছি কোথা? এঘর আর ওঘর বৈ তো নয়?’
বিশদ

12th  August, 2019
 সদ্‌গুরু

 কেবল সদ্‌গুরুর অপেক্ষায় বসিয়া না থাকিয়া যথাসাধ্য ঈশ্বরচিন্তা, সাধুসঙ্গ ও সদ্‌গ্রন্থাদি পাঠ করিবার চেষ্টা করিও। জমি প্রস্তুত হইলে বীজ বপন করিলে সুফল ফলে ; এবং ইহা একটি প্রকৃতির রহস্য যে জমি প্রস্তুত হইলেই বীজ আপনি আসিয়া উপস্থিত হয়। অভাববোধ হইলেই তাহার পূরণ হয়। বিশদ

11th  August, 2019
দেবীমানবী

তিনি(ঠাকুর) বলতেন, ‘ওরে, ওর নাম সারদা, ও সরস্বতী।’(ঠাকুর গোলাপ-মাকেও বলেছিলেন, ‘ও সারদা, সরস্বতী—জ্ঞান দিতে এসেছে।’) সকলেই কি আর চিনতে পারে, মা? ঘাটে একখানা হীরা পড়ে ছিল। সব্বাই পাথর মনে করে তাতে পা ঘষে স্নান করে উঠে যেত। একদিন এক জহুরি সেই ঘাটে এসে দেখে চিনলে যে, সেখানে এক প্রকাণ্ড মহামূল্য হীরা। ঠাকুর সাক্ষাৎ ভগবান। আমি আর কে, আমিও ভগবতী।
বিশদ

10th  August, 2019
শ্রীগুরু

 প্রশ্ন: গুরুর কাছে কিছু চাওয়া উচিত কি? উত্তর: আমরা গুরুর কাছে সাধারণত বাস্তব অভাব পূরণের দাবী করে থাকি। কিন্তু যিনি প্রকৃত গুরু তিনি জানেন শিষ্যের প্রকৃত অভাব কি? যাতে শিষ্যের কল্যাণ হয়, তা শিষ্য চাইবার আগেই তিনি দিয়ে থাকেন। তাই গুরুর কাছে কিছু চাইতে নেই। বিশদ

09th  August, 2019
জ্ঞান

যথার্থ জ্ঞানের দ্বারা জীবের অবিদ্যারূপ উপাধির বিনাশ হয়, অন্য কোন উপায়ে ইহার নাশ হয় না। ব্রহ্মের সহিত আত্মার একাত্বানুভবই জ্ঞান, শ্রুতি ইহা বলেন। আত্মা কি, অনাত্মাই বা কি, এই বিচার যথাযথ ভাবে করিতে পারিলে আত্মজ্ঞানের উৎপত্তি হয়। অতএব জীব ও ব্রহ্মের স্বরূপ বিচারের দ্বারা নির্ণয় করা কর্তব্য। বিশদ

08th  August, 2019
ঈশ্বর

বিশ্বাস মানে এটি যে ঈশ্বরের নাম, এই প্রক্রিয়ায় আমি ঈশ্বরকে লাভ করব এবং এটি আমার একান্তই করণীয়—এই আস্থা ও দৃঢ়তা। বিশ্বাস ও আস্থা না থাকলে জপ শুধু যে হয় না তাই নয়, জপ-সাধনা বেশীদিন চালানো যায় না।  বিশদ

07th  August, 2019
গুরু মাহাত্ম্য

গুরু কে শিষ্য কে?—এই নিয়ে আজকের সমাজে নানা মতভেদ আছে। অনেকে আবার গুরুর সন্ধানে যত্রতত্র ঘুরে বেড়ান, মনোমত গুরুকরণ করবেন এ আশায়। এ ধরণের শিষ্যলাভ একদিকে খুবই ভাল। কারণ এর ফলে শিষ্যের প্রতি গুরুর দায়িত্ব কমে যায়। স্বভাবতই এই শিষ্যরাই গুরুদেবকে পরিচালনা করে থাকেন।
বিশদ

06th  August, 2019
একনজরে
 দেরাদুন, ২১ আগস্ট (পিটিআই): উত্তরাখণ্ডের উত্তরকাশী জেলায় উদ্ধারকাজে নেমে ভেঙে পড়ল একটি হেলিকপ্টার। ঘটনায় তিনজন প্রাণ হারিয়েছেন। গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছে ...

  সংবাদদাতা, তেহট্ট: বুধবার সকালে তেহট্ট থানার বেতাই বাজারে কৃষ্ণনগর-করিমপুর রাজ্য সড়কে যন্ত্রচালিত মোটরভ্যানের ধাক্কায় জখম হলেন এক বৃদ্ধা। তেহট্ট থানার বেতাই পোস্টঅফিস পাড়ার বাসিন্দা সুনীতা দত্ত নামে ওই বৃদ্ধাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তেহট্ট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেছে। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ম্যাচের নায়ক গোকুলাম গোলরক্ষক উবেইদকে এবার ছেড়ে দেওয়াটা একেবারেই মানতে পারছেন না ইস্ট বেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রো। বুধবার ডুরান্ড কাপের সেমি-ফাইনালে ইস্ট বেঙ্গলের ...

 সঞ্জয় গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: উইপ্রো নিউটাউনে তথ্যপ্রযুক্তির দ্বিতীয় ক্যাম্পাস করতে চায় বলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন। তাদের ৫০ একর জমি দেওয়া হবে বলে নবান্ন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে ইনফোসিস যে ধরনের সুবিধা পেয়েছে, তা দেওয়ার জন্য আবেদন করেছে উইপ্রো। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সঠিক বন্ধু নির্বাচন আবশ্যক। কর্মরতদের ক্ষেত্রে শুভ। বদলির কোনও সম্ভাবনা এই মুহূর্তে নেই। শেয়ার বা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৬৩৯: মাদ্রাজ (বর্তমান চেন্নাই) শহরের প্রতিষ্ঠা করে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি
১৮১৮: ভারতে ব্রিটিশ গভর্নর জেনারেল ওয়ারেন হেস্টিংস-এর মৃত্যু
১৯১১: গায়ক দেবব্রত বিশ্বাসের জন্ম
১৯১৫: অভিনেতা শম্ভু মিত্রের জন্ম
১৯৫৫: রাজনীতিক ও প্রখ্যাত চিত্রতারকা চিরঞ্জীবীর জন্ম
১৯৮৯: নেপচুন গ্রহে প্রথম বলয় দেখা গেল

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৬৯ টাকা ৭২.৩৯ টাকা
পাউন্ড ৮৫.৪৬ টাকা ৮৮.৬১ টাকা
ইউরো ৭৭.৯০ টাকা ৮০.৯০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,১৩৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,১৮০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৭২৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৫ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ষষ্ঠী ৪/২৮ দিবা ৭/৬। ভরণী ৫৩/১১ রাত্রি ২/৩৬। সূ উ ৫/১৯/২১, অ ৬/০/৩, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৭ গতে ৩/৩ মধ্যে, বারবেলা ২/৪৯ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/৩৯ গতে ১/৪ মধ্যে।
৪ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, সপ্তমী ৫৫/২৪/৯ রাত্রি ৩/২৮/৭। ভরণীনক্ষত্র ৪৫/২৬/১৪ রাত্রি ১১/২৮/৫৭, সূ উ ৫/১৮/২৭, অ ৬/২/৫৯, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৪ গতে ৩/৪ মধ্যে, বারবেলা ৪/২৭/২৫ গতে ৬/২/৫৯ মধ্যে, কালবেলা ২/৫১/৫১ গতে ৪/২৭/২৫ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/৪০/৪৩ গতে ১/৫/৯ মধ্যে।
২০ জেলহজ্জ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
২৬ আগস্ট পর্যন্ত চিদাম্বরমের সিবিআই হেফাজত 
পি চিদাম্বরমের ৫ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিল আজ সিবিআই঩য়ের ...বিশদ

06:50:10 PM

ফের আক্রান্ত পুলিস, এবার আমতায়
ফের একবার পুলিসকে মারধর করে উদি ছিঁড়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল। ...বিশদ

04:49:07 PM

রায়গঞ্জে বিজেপি সমর্থকের কান কাটার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে 
রায়গঞ্জের পূর্বপাড়া এলাকায় হাঁসুয়া দিয়ে এক মহিলার কান কেটে নেওয়ার ...বিশদ

04:21:05 PM

তারকেশ্বর ডিগ্রি কলেজে গোলমাল, জখম ১ 
তারকেশ্বর ডিগ্রি কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্য এবং অখিল ভারতীয় ...বিশদ

04:03:52 PM

চিদম্বরমকে ৫ দিনের হেফাজতে চাইল সিবিআই
সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে পি চিদম্বরমকে ৫ দিনের হেফাজতে চাইল সিবিআই। ...বিশদ

04:03:00 PM

বাঁকুড়ার স্কুলে মিডডে মিলের মান পরীক্ষা করতে এলেন মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা 
খাবারের মান যাচাইয়ের জন্য বাঁকুড়ার জয়পুরের একটি স্কুলে ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে ...বিশদ

04:01:00 PM