Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

অধ্যাত্ম-বিজ্ঞানী শ্রীরামকৃষ্ণ

একটা কথা প্রায়ই শোনা যায়—জড় বিজ্ঞানের মতো কোন কিছু প্রমাণিত না হলে গ্রহণ করা চলে না। অর্থাৎ সবকিছু ইন্দ্রিয় প্রত্যক্ষ হওয়া চাই। ধর্ম বা ঈশ্বর ভাবনায় এরূপ প্রমাণের দাবী বেশ জোরদার। এই পরিদৃশ্যমান জগতে খালি চোখে বা যন্ত্রের সাহায্যে স্থূল বা সূক্ষতর বস্তু দেখা যায়। কাজেই এভাবে দেখা না গেলে কোন কিছুর অস্তিত্বে বিশ্বাস রাখা শক্ত হয়ে পড়ে। বিজ্ঞান বাস্তবিকই এ ব্যাপারে বিশেষ তৎপর। একটা প্রশ্ন এ প্রসঙ্গে করা যেতে পারে। সব বস্তু, স্থূল বা সূক্ষ্ম, দৃষ্টিগোচর হয় কি? বিজ্ঞান অর্থে সুসংবদ্ধ বিশ্লেষিত ও বিচারিত জ্ঞান। প্রকৃতি বিধৃত বস্তুকে নানারকম বিচারে এবং বিশ্লেষণে বিজ্ঞান আবিষ্কার করছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে যে, এ আবিষ্কার ইন্দ্রিয় প্রত্যক্ষের মধ্যে সীমাবদ্ধ প্রায় সবটাই। তবে সূক্ষ্মতর বস্তু যেমন, ইলেক্‌ট্রন, প্রোটন ইত্যাদি বিজ্ঞানে সকলের অস্তিত্ব স্বীকার করছে ইন্দ্রিয়গোচর না হলেও। মন, বুদ্ধি, জ্ঞান প্রভৃতি বস্তুগুলি মানুষে বিদ্যমান। এগুলি কিন্তু বাহ্যইন্দ্রিয়-প্রত্যক্ষ নয়। যেমন কতগুলি বস্তু ইন্দ্রিয় প্রত্যক্ষের বাইরে থেকেও বিজ্ঞানের অন্তর্ভুক্ত—তেমন বুদ্ধি, মন, জ্ঞান প্রভৃতি চোখে দেখা যায় না, কানেও শোনা যায় না, অথচ বিশ্বাসযোগ্য। এরূপ জ্ঞানই অতীন্দ্রিয় প্রত্যক্ষ। ইন্দ্রীয়-প্রত্যক্ষ না হলেও এমন বস্তু আছে যাকে বোধি দ্বারা আবিষ্কার করতে হয়। এই অতীন্দ্রিয় প্রক্রিয়াটি প্রজ্ঞান বা ধর্ম। প্রজ্ঞান অতীন্দ্রিয় প্রত্যক্ষ বা আধ্যাত্মিক অনুভূতি। গ্রীক দার্শনিক প্লেটো, এরিস্টট্‌ল এঁরা এই প্রজ্ঞানের কথা বলেছেন। বাহ্যবস্তুর অন্তরালে সর্বব্যাপী সত্তাকে এঁরা উপলব্ধি করেছেন। বিখ্যাত দার্শনিক হেগেল এই অতীন্দ্রিয় তত্ত্বের কথা ব্যক্ত করে বলেছেন—ইন্দ্রিয় প্রত্যক্ষ বা বিচার-বুদ্ধিকে অতিক্রমের মধ্যেই এর উপলব্ধি। বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে বিচার চলে পরিদৃশ্যমান জগতে স্থূল ও সূক্ষ্ম বস্তুকে নিয়ে। এ বিচার আবার খণ্ড খণ্ড ক্ষেত্রে। কিন্তু ইন্দ্রিয়গোচরের বাইরে যে সত্তা বা বস্তুটি অনুভূতির বিষয়, তার বিচারে বিজ্ঞান অসমর্থ। অতএব সবকিছু হুবহু বিজ্ঞান প্রক্রিয়ায় আবিষ্কৃত না হলে কোন বস্তুর অস্তিত্ব অস্বীকার করা ঠিক নয়। বিজ্ঞান বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের বাহ্য বস্তুর নিগূঢ় থেকে নিগূঢ়তর অবস্থার সন্ধান দিলেও এটি সর্বাত্মক জ্ঞান নয়। এ ছাড়া বিজ্ঞানের আবিষ্কৃত সত্যের পরিবর্তন ঘটছে। বিজ্ঞানে আজ যা সত্য বলে প্রমাণিত, কাল তা ঠিক নয় বলে প্রচারিত। অতএব প্রকৃষ্টরূপে জ্ঞান আমাদের কাম্য। এরূপ জ্ঞানকে বিলা হয় প্রজ্ঞান বা শুদ্ধবুদ্ধি। এই জ্ঞানে আরূঢ় হলে ভেতর-বাইরে সবকিছু দেখা ও অনুভব করা যায়।
বিজ্ঞান অন্তর্জগৎ বা অতীন্দ্রিয় তত্ত্বের জ্ঞানে পৌঁছাতে পারছে না। এই অতীন্দ্রিয় তত্ত্বটি পারমার্থিক সত্তা বা ঈশ্বর। এ সত্তার আবিষ্কার যে প্রক্রিয়ায় হয় তাকে সাধারণ অর্থে ধর্ম বলা হয়। ধর্ম এবং প্রজ্ঞান প্রায় একই অর্থবোধক। ধর্মের প্রতি অনীহা মানবজাতির বেশ বিরাট অংশে লক্ষণীয়। এর কারণ, মানুষ ইন্দ্রিয় প্রত্যক্ষের অতীত বস্তুটিকে প্রজ্ঞান বিনা আবিষ্কার করতে চাচ্ছে। এজন্য তার ব্যর্থতা এবং পরিণামে অবিশ্বাস। এদিকে বিজ্ঞানের অনেক বস্তুর পরীক্ষা ও আবিষ্কার ইন্দ্রিয় প্রত্যক্ষ না হয়েও যদি মেনে নিতে অসুবিধা না হয়, ধর্মের প্রক্রিয়ায় ঈশ্বর করারও হেতু থাকা উচিত নয়। এ ইন্দ্রিয়াব্যতীত বস্তুটিকে জানতে এক নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার প্রয়োজন—এটি বুদ্ধি নয়, বোধি। বিজ্ঞানের আবিষ্কারগুলো মূলত প্রাতিভাসিক দ্রব্য নিয়ে হলেও পরিদৃশ্যমান জগতের নিত্য নতুন তথ্যের সন্ধান দিচ্ছে।
স্বামী অক্ষরানন্দের ‘মহাশক্তির বিচিত্র প্রকাশ’ থেকে
29th  April, 2019
জগতের মূলে একটী বস্তু আছে

ঠিক বৈজ্ঞানিক প্রণালীতে বিচার করিতে করিতে সর্বশেষ অবস্থায় জ্ঞানীরা দেখিয়াছেন অর্থাৎ বোধ করিয়াছেন, জগতের মূলে একটী বস্তু আছে, যাহা বোধকরা যায়। কিন্তু জগতে সেইরূপ কোনও বস্তু নাই বলিয়া তাহা যে কি সেইকথা প্রকাশ করা যায় না। শুধু, তাহা অনুভব করিবার উপায় বলা যায়।
বিশদ

সাত্ত্বিক ভাব 

ভক্ত যখন সাক্ষাৎভাবে অথবা একটু ব্যবধানে থেকে কৃষ্ণ-প্রেমের দ্বারা গভীরভাবে অভিভূত হন, তাকে বলা হয় সাত্ত্বিক ভাব। সাত্ত্বিক ভাবের লক্ষণ তিন প্রকার— স্নিগ্ধ, দিগ্ধ ও রুক্ষ। 
বিশদ

19th  May, 2019
 গুরু

গুরু ও সদ্‌গুরু একই বস্তু, কারণ অসদ্‌গুরু বলিয়া কোন বস্তু নাই। তবে বুঝাইবার সুবিধার জন্য গুরু হইতে সদ্‌গুরু শব্দের বৈলক্ষণ্য দেখান হয়। যাঁহার কৃপায় পূর্ণ সত্যের রূপ প্রত্যক্ষ হয়—যে প্রত্যক্ষের পর আর কোন আবরণ থাকে না—তিনিই সদ্‌গুরু। যিনি আবরণের আংশিক নিবৃত্তিতে সহায়ক হন তাঁহাকে গুরু বলা হয়।
বিশদ

18th  May, 2019
 শ্রীমা

 শ্রীমায়ের উপস্থিতিতে দক্ষিণ দেশে কি ঘটেছিল তার কিছুটা আঁচ করা যেতে পারে তামিল মাসিক পত্রিকা ‘শ্রীরামকৃষ্ণবিজয়ম্‌’-এর ১৯২৫ খ্রীস্টাব্দের ডিসেম্বর সংখ্যায় প্রকাশিত ‘সারদা দাসন’ ছদ্মনামে জনৈক ভক্তের স্মৃতিকথা থেকে। ‘হিন্দু’ পত্রিকাতে খবর পড়ে তাঁর বাবা ও মা তাঁকে নিয়ে শ্রীমায়ের দর্শন করতে এসেছিলেন। বিশদ

17th  May, 2019
 গৃহী

গৃহী সন্তানদের প্রতি—বিবাহিত পুরুষদের বলতেন, মানসিক শান্তিই শ্রেষ্ঠ ধর্ম। নিজের সাধনায় তা অর্জন করে নিতে হয়। এক নারী সদাব্রতী, একাহারী সদা যতি। অপর সকল নারী মাতৃবৎ। বিবাহ Royal Road অর্থাৎ সমাজ অনুমোদিত পথ।
বিশদ

16th  May, 2019
স্বপ্নের কথা

প্রশ্ন: কেন আমরা স্বপ্নের কথা ভুলে যাই? 
কেননা তুমি সর্বদা একই জায়গাতে স্বপ্ন দেখ না। আর তোমার সত্তার একই অংশ সর্বদা স্বপ্ন দেখ না ও স্বপ্নে একই স্থানে থাক না। যদি তুমি তোমার সত্তার সকল অংশের সঙ্গে সংযোগ রাখতে পারতে—সচেতনভাবে, সোজাসুজি, অবিরাম তাহলে তোমার স্বপ্নের সব বৃত্তান্ত তোমার মনে থাকত।
বিশদ

15th  May, 2019
মন ও মন্ত্র 

মনকে যা ত্রাণ করে তার নাম মন্ত্র। মনকে ত্রাণ করতে হলে এমন একটা-কিছুর আশ্রয় নিতে হয় যা মন থেকে পৃথক, যা মনের অতীত, যা মন নয়। সাধক ও তাঁর মনের মধ্যে মন্ত্র হ’ল, প্রথম আবির্ভাবে, এক তৃতীয় শক্তি-স্বরূপ। পরিশেষে অবশ্য, মন্ত্রই একমাত্র শক্তি হিসেবে বিরাজ করেন; সাধক ও তাঁর মনের শক্তি— এ দুটি ক্রমশ মন্ত্র-শক্তিতেই বিলীন হয়। 
বিশদ

14th  May, 2019
‘বাউল’

 ‘বাউল’ শব্দটি ‘বাতুল’ শব্দের অপভ্রংশ। ‘বাতুল’ শব্দ ত্রূমশঃ রূপান্তরিত হয়ে ‘বাউল’শব্দে পরিণতি প্রাপ্ত হয়েছে। ‘বাউল’ শব্দের প্রকৃত মর্মার্থ হল-বাহ্যজ্ঞান রহিত উন্মাদ। অর্থাৎ যিনি বাহ্য ইন্দ্রিয়ের চেতনাশূন্য, বিষয়বুদ্ধি রহিত ভগবৎ প্রেমে পাগল। আর এই ভাবমুখী প্রেমোন্মাদ মানুষকেই ‘বাউল’ বলা হয়।
বিশদ

13th  May, 2019
সমস্ত জীবনই এক শিক্ষা

সমস্ত জীবনই এক শিক্ষা—কম-বেশি সজ্ঞানভাবে, কম-বেশি স্বেচ্ছায় অনুসৃত। তবে কারও কারও ক্ষেত্রে এই শিক্ষা আলোর দিকটি প্রকাশ করবার সহায় হয়, কারও ক্ষেত্রে বিপরীত, অর্থাৎ অন্ধকারের দিক। অবস্থা ও পারিপার্শ্বিকী যদি অনুকূল হয় তাহলে অন্ধকার সরে যায়, হয় আলোরই বৃদ্ধি। অন্য পক্ষে ঘটে বিপরীত।
বিশদ

12th  May, 2019
অমৃতকথা 

দেহ ও মন এই দুইটী যন্ত্র-সহায়ে তোমার আভ্যন্তরীণ শক্তিপুঞ্জ প্রয়োজিত এবং অভিব্যঞ্জিত হইতেছে। দেহ যদি একটী দশ-মর্দ্দা হইয়া থাকে, মন তাহা হইলে একটি বিশ-মর্দ্দা। “মারো ধাক্কা হেইয়োঁ”—বলিয়া দশ-মর্দ্দা দিয়া ধাক্কা দাও, গায়ে তৎক্ষণাৎ জোর আসিবে, কার্য্য-সিদ্ধি ত’ হইবেই।   বিশদ

11th  May, 2019
কার্য

জানার বিষয় হল তিনটি: গ্রহীতা, গ্রহণ ও গ্রাহ্য, অন্য পরিভাষায় পুরুষ, ইন্দ্রিয় এবং ভূত। অর্থাৎ যে গ্রহণ করছে অর্থাৎ জানছে বা দেখছে সেই হল কর্তা বা গ্রহীতা, যা দিয়ে দেখছে তাকেই বলে করণ বা ইন্দ্রিয় এবং যা দেখছে অর্থাৎ বিষয় বা ভূতবর্গ তাকে বলে কার্য। বিশদ

10th  May, 2019
ধর্ম

 বিশ্বের সকল ধর্মবেত্তারা নিজ নিজ ধর্মানুশাসনে নিবিষ্ট ও বোধিদীপ্ত হয়ে জগতের অনেক কল্যাণ সাধন করেছেন।আজ জগতে যা কিছু শুভকর, তা এঁদেরই অনুপ্রেরণা ও সাধনার ফল। জগৎ একই স্রষ্টার করুণাধারায় প্রবাহিত। এই প্রবহমান জগতে বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীর আনুগত্য সেই একই স্রষ্টার প্রতি বিভিন্ন নামে ও ধ্যানে। বিশদ

09th  May, 2019
  গুরু

ধর্মরাজ্যে এগোতে হলে পথটাকে ভালবাসার চেষ্টা কর। ভালবাসা না এলে এগোনা যাবে না। পথটা ভালো না লাগলে সবই বৃথা। কারণ, একটা পথ ধরে তো এগোতে হবে। যে রূপ ভাল লাগে, যাঁর প্রতি একটা আকর্ষণ বোধ ক’রছো, তাঁকেই ভালবাসতে চেষ্টা কর। গুরুকে ধর। বিশদ

08th  May, 2019
মোড় ঘুরিয়ে দাও

 ‘মোড় ঘুরান’—দু’টি শব্দ, একটি অর্থবহ কথা। অর্থের বৈচিত্র্যে কথাটি অনুধাবনযোগ্য। রাস্তায় চলতে চলতে মোড় ঘুরি। জীবনযুদ্ধে জয়ী হ’তে জীবনের কত মোড় ঘুরাই। কখনো মোড় ঘুরতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পড়ি। কত অনিশ্চয়তা, কত ব্যর্থতা এই জীবনকে ঘিরে।
বিশদ

07th  May, 2019
  ভাব

যে মহানাম লাভ করিয়াছ, তাহাকেই ভেলাস্বরূপ জ্ঞান। তাহা অবলম্বনেই সংশয়-সাগরের পরপারে পৌঁছিবে। দৃঢ় চিত্তে ভেলাবলম্বন কর। তরঙ্গ-বিক্ষোভে টলিয়া পড়িও না। নামের বলে তোমাদের মধ্যে মহাশক্তি ও মহাভাব জাগিয়া উঠিবে।
বিশদ

06th  May, 2019
ক্ষুধা 

ক্ষুধিত আতুর যেমন করিয়া ধনীর দুয়ারে তাকাইয়া থাকে, আমি তোমাদের মুখপানে তেমনি সতৃষ্ণ নয়নে চাহিয়া আছি, তোমাদের জীবন পরার্থে উৎসর্গীকৃত হইয়া যেদিন তপঃশুদ্ধ হইবে, হে সন্তান, সেইদিনই তোমরা আমার ক্ষুধা তৃষ্ণা যথার্থ মিটাইতে পারিবে। স্বার্থের প্রতি দৃষ্টিহীন, সুখের প্রতি লক্ষ্যহীন, বিঘ্নের প্রতি ভ্রূক্ষেপহীন জীবন লইয়া যে দিন তোমরা মায়ের ক্রোড় জুড়িয়া বসিবে, প্রকৃতই সেদিন আমার সর্ব্বাঙ্গ শীতল হইবে।  
বিশদ

05th  May, 2019
একনজরে
শুভ্র চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ছাড়পত্র রয়েছে। এমনকী সরঞ্জাম কেনার জন্য বরাদ্দ টাকা এসে পড়ে রয়েছে। তবুও নিষিদ্ধ মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে অভিযান ও বেআইনি মাদক চাষের বিরুদ্ধে নজরদারি চালাতে অত্যাধুনিক সরঞ্জাম কেনার কোনও উদ্যোগই নেই রাজ্যের। ...

 মনসুর হাবিবুল্লাহ, দিনহাটা, সংবাদদাতা: বন্যায় দিনহাটার দরিবশ জারিধরলায় বন্যার্তদের বাংলাদেশে যাওয়া আটকাতে এবার হেলিকপ্টারে উদ্ধার কার্য চালাবে প্রশাসন। বিএসএফ কর্তাদের সঙ্গে নিয়ে আগামী ৩০ মে হেলিপ্যাড বানানোর জন্য জায়গা পরিদর্শন করা হবে। ...

নয়াদিল্লি, ১৯ মে (পিটিআই): অরবিন্দ কেজরিওয়ালের নিরাপত্তা খতিয়ে দেখতে রবিবার দিল্লির পুলিস কমিশনারের কাছে আর্জি জানাল রাজ্য বিজেপি। এ বিষয়ে পুলিস কমিশনার অমূল্য পট্টনায়েককে চিঠি দিয়েছে তারা। বিজেপি মুখপাত্র প্রবীণ শঙ্কর কাপুর একথা জানিয়েছেন। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: জেলা নির্বাচনী আধিকারিক এবং জেলা প্রশাসনের প্রস্তাব মতো ভোটকর্মীদের সুবিধার্থে তিনটি বিশেষ ট্রেন চালাল পূর্ব রেল। পূর্ব রেল সূত্রের খবর, এই বিশেষ ট্রেনগুলি চালিয়েছে শিয়ালদহ বিভাগ।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চতর বিদ্যায় বাধা কাটবে। বড়দের কথার মান্যতা দেওয়া দরকার। ব্যবসা সূত্রে উপার্জন বৃদ্ধি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৫০৬- ক্রিস্টোফার কলম্বাসের মৃত্যু
১৯০২- প্রজাতন্ত্র দেশ হিসেবে ঘোষণা কিউবার
১৯৩২- স্বাধীনতা সংগ্রামী বিপিনচন্দ্র পালের মৃত্যু
১৯৭৭- ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটার অঞ্জুম চোপড়ার জন্ম

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৪৩ টাকা ৭১.১২ টাকা
পাউন্ড ৮৮.২৮ টাকা ৯১.৫৩ টাকা
ইউরো ৭১.১০ টাকা ৮০.০৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
18th  May, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,৪২০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০,৭৬০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১,২২০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৬,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৬,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
19th  May, 2019

দিন পঞ্জিকা

৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ মে ২০১৯, সোমবার, দ্বিতীয়া ৫০/৫৮ রাত্রি ১/২২। জ্যেষ্ঠা ৫৩/৪৭ রাত্রি ২/২৯। সূ উ ৪/৫৮/৩৩, অ ৬/৭/৩৬, অমৃতযোগ দিবা ৮/২৯ গতে ১০/১৪ মধ্যে। রাত্রি ৯/১ গতে ১১/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১/২১ গতে ২/৪৯ মধ্যে, বারবেলা ৬/৩৮ গতে ৮/১৬ মধ্যে পুনঃ ২/৫০ গতে ৪/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১২ গতে ১১/৩৩ মধ্যে।
৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ মে ২০১৯, সোমবার, দ্বিতীয়া ৫১/৫৭/৫৯ রাত্রি ১/৪৫/৩০। জ্যেষ্ঠানক্ষত্র ৫৫/৩৮/০ রাত্রি ৩/১৩/৩০, সূ উ ৪/৫৮/১৮, অ ৬/৯/৩০, অমৃতযোগ দিবা ৮/২৮ গতে ১০/১৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৬ গতে ১১/৫৬ মধ্যে ও ১/২২ গতে ২/৪৮ মধ্যে, বারবেলা ২/৫১/৪২ গতে ৪/৩০/৩৬ মধ্যে, কালবেলা ৬/৩৭/১২ গতে ৮/১৬/৬ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১২/৪৮ গতে ১১/৩৩/৫৪ মধ্যে। 
১৪ রমজান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বিধানসভা উপনির্বাচন: সকাল ১১টা পর্যন্ত কান্দিতে ৪২ শতাংশ ভোট পড়ল 

12:01:25 PM

হাওড়া স্টেশনে পাইপ ভেঙে জখম মহিলা 
হাওড়া স্টেশনের এক নম্বর প্ল্যাটফর্মে ভেঙে পড়া পাইপের ঘায়ে জখম ...বিশদ

11:32:33 AM

কাঁকিনাড়ায় অবরোধ উঠল 
২ ঘণ্টারও বেশি সময় পর কাঁকিনাড়ায় রেল অবরোধ উঠল। এদিন ...বিশদ

10:15:45 AM

বিধানসভা উপনির্বাচন: সকাল ৮টা পর্যন্ত কান্দিতে ৯.২৫ ও ন‌ওদায় ১০.৩৫ শতাংশ ভোট পড়ল

09:31:17 AM

 ভোট শেষে চপ-মিষ্টিতে মজে রইল জয়নগর
প্রতিদিনই দোকানে চপ, অমৃতি ভাজা হয়। কিন্তু, প্রতিদিন যা বিক্রি ...বিশদ

09:20:00 AM

  জয়নগরে জওয়ানদের মানবিক মুখ
একদিকে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে যখন একাধিক অভিযোগ উঠছে, তখন ...বিশদ

09:15:00 AM