Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

 শ্রীশ্রীমা

ঠাকুর হচ্ছেন জীবন্ত, জ্বলন্ত উপনিষৎ, জীবন্ত গীতা। তিনি চরাচর সর্বত্র পরিব্যপ্ত।
শ্রীশ্রীমা ও ঠাকুর অভেদ। শ্রীশ্রীমাকে দেখাও যা, ঠাকুরকে দেখাও তাই। তাঁর অসীম কৃপা জীবের ওপর। আমরা এক কণা পেলেই পূর্ণ হয়ে যাব। শ্রীশ্রীমার অপ্রাকৃত ভাগবতী তনু, যদিও তিনি মনুষ্যদেহ-ধারিণী। কোটি কোটি জন্মের ফলে শ্রীশ্রীমার দর্শন হয়। লৌহ একবার পরশপাথর ছুঁলেই সোনা হয়। তুমি জান আর নাই জান, পরশপাথররূপ পরমারাধ্যা মা’র শ্রীপাদস্পর্শে তোমার দেহমনরূপ লৌহ, সোনা-কিনা ভোগাসক্তি ত্যাগ করে যোগভক্তি লাভে অনুরাগী হয়েছে। আমাদের জন্য আমাদের অপেক্ষা তাঁরই অধিক চিন্তা। বুড়ো হলেও মার কাছে আমরা কচি, ছেলেমানুষ।
শ্রীশ্রীমাঠাকুরণকে দেখেছি, ঠাকুরের চেয়ে আধার বড়। তিনি শক্তিরূপিণী কিনা, তাঁর চাপবার শক্তি কত? ঠাকুর চেষ্টা করেও পারতেন না, বাইরে বেরিয়ে পড়ত। মার ভাবসমাধি হচ্ছে, কিন্তু কাউকে জানতে দেন?
ঠাকুর নিজ জীবনে অদ্বৈতভাব চেপে বেশীরভাগ ভক্তিই প্রচার করেছেন। আর স্বামীজী ভক্তিকে চেপে অদ্বৈতভাব প্রচার করেছেন। কিন্তু স্বামীজীর মত ভক্তিমান লোক আর কয়টি আছেন?
স্বামীজীকে না বুঝলে ঠাকুরকে বোঝার সাধ্য নেই। রামচন্দ্রকে বুঝতে হলে আগে তাঁর ভক্ত হনুমানজীকে বুঝতে হয়। আর স্বামীজীকে বুঝলেই ঠাকুরকে বোঝা হল।
ভাব, মহাভাব, সমাধি হওয়াটাই ঠাকুরের স্বাভাবিক। মনকে জোর করে নীচে নামিয়ে রাখতে তিনি চেষ্টা করতেন।
সর্বদা জানবে আমি শ্রীশ্রীপ্রভুর সন্তান। যারা ঠাকুরের ভক্ত, তারা জীবন্মুক্ত। তাঁকে যে আপনার করে নেয়, সেই আপনার লোক।
অশরীরী ভগবান ভক্তের জন্যে দেহধারণ করে অবতীর্ণ হন, অশেষ দুঃখকষ্ট অকাতরে আমাদের জন্যে সহ্য করেন, এসব প্রত্যক্ষ করেছি, অনুভব করেছি।
ঠাকুরকে ধরার নাম ভাবশুদ্ধি। তাঁকে জানবে খুঁটি। খুঁটি ছেড়েছ কি পড়েছ। ভয় নেই, ভয় নেই, ঠাকুর রয়েছেন সামনে, পশ্চাতে। ঠাকুররূপী খুঁটি প্রাণপণে পাকড়ানোর নাম গীতার স্থিতপ্রজ্ঞ, স্থিতধী।
ভালবাসায় জগৎকে জয় কর—ইহাই রামকৃষ্ণমিশন।
ঠাকুরকে পেতে হলে হৃদয়টি সম্পূর্ণ পবিত্র করতে হবে। ভয় কি? ডুব দাও তাঁর নামে। ধ্যান-জপ, নিষ্কাম কর্ম দ্বারা মন ক্রমশ সূক্ষ্ম হয়। সেই সূক্ষ্ম মনের দ্বারা মনের যে বিচার, তাকেই বলে—ঊর্ধ্বরেতাত্মনাত্মানম্‌।
গুরু ইষ্ট একই জেনে ধ্যান করবে। যখন যেটি ভাল লাগে, যেটি খুশী তাতেই ধ্যান করে যাও। পবিত্রতাই শক্তি ও ভগবান। জ্ঞানভক্তি প্রীতি—এসব আমাদেরই ঘরের বস্তু জানবে। কেবল কাজ করলে জীবন শুষ্ক বোধ হয়ে যাবে, তাই ভক্তিযোগ চাই; বিচার চাই, জ্ঞানও চাই।
এই যে কাজকর্ম—সব ছাই ভস্ম। কে কার উপকার করবে? মাঝে পড়ে নিজের কল্যাণ—চিত্তশুদ্ধি হয়ে যায়। জানবে, তোমরা সব ঠাকুরের আর ঠাকুরও তোমাদের। ঠাকুর আমাদের, আমরা ঠাকুরের।
আনন্দ অনৈসর্গিক বস্তু। সকল আনন্দের আকর ঠাকুরের নাম। আপনার দোষ দেখাই সাধুত্ব। বিনয় হচ্ছে সাধুর ভূষণ। পরের স্বার্থ দেখাই সাধুত্ব।
তাঁর স্মরণ, মননই হচ্ছে মনের চাঞ্চল্য দূর করার একমাত্র মহৌষধ। তাঁর কথাগুলি ধ্যান করে নিতে হবে। রোগের সেবা করছি মনে করবে না, জানবে মার সেবা করছি। এইটে পাকা হলেই একে জ্ঞান, ভক্তি বলে। সকলকে, পৃথিবীশুদ্ধ লোককে আপনার করতে হবে।
তেজ না থাকলে কিছুই হবে না। এই তেজরূপ রজঃ হৃদয়ে না এলে সত্ত্বগুণ কখনও মনে প্রতিফলিত হবে না। সময় হলে ভগবান নিজেই এসে আমাদের খেলাঘর ভেঙ্গে দিয়ে নিজের কাছে টেনে নেন।
যতক্ষণ ‘‘নাহং, নাহং—তুঁহু, তুঁহু’’—এই ভাব ঠিক ঠিক না হয়, ততক্ষণ ‘আয় মা সাধন-সমবে; ডঙ্কা মেরে লব মুক্তিধন’—এই ‘বিদ্যার আমি’ আনতে হবে।
স্বামী প্রেমানন্দজীর কথা ‘অমিয়বাণী’ গ্রন্থ থেকে
04th  January, 2019
ত্যাগের আদর্শ 

যাই হোক, ‘শান্তিনিকেতন’ পাঠে মনে হয় রবীন্দ্রনাথ সেই ধরনের সন্ন্যাসকে সমালোচনা করেছেন যার পরিণাম তাঁর ভাষায় ‘নিরতিশয় নৈষ্কর্ম্য ও নির্মমতায়’। যে ত্যাগ ‘নিজেকে রিক্ত করার জন্যে নয়, নিজেকে পূর্ণ করবার জন্যেই’, যেখানে ‘আংশিককে ত্যাগ সমগ্রের জন্য, ক্ষণিককে ত্যাগ নিত্যের জন্য, অহঙ্কারকে ত্যাগ প্রেমের জন্য, সুখকে ত্যাগ আনন্দের জন্য’ সে ত্যাগকে তিনি শ্রদ্ধার উচ্চাসন দিয়েছেন।  
বিশদ

 সুখ-দুঃখ

 চণ্ডিদাস কহে “শোন বিনোদিনী, সুখ দুখঃ দুটি ভাই। সুখের লাগিয়া যে করে পীরিতি, দুঃখ যায় তার ঠাঁই।” সুখ ও দুঃখ দুটি যমজ ভাই, একজন আর একজনকে ছাড়িয়া থাকিতে পারে না। সুখ যার বাড়ে দিনে দিনে, দুঃখ তার ফিরে সাথে সাথে।
বিশদ

22nd  May, 2019
 সুখ দুখ

 চণ্ডিদাস কহে “শোন বিনোদিনী, সুখ দুখঃ দুটি ভাই। সুখের লাগিয়া যে করে পীরিতি, দুঃখ যায় তার ঠাঁই।” সুখ ও দুঃখ দুটি যমজ ভাই, একজন আর একজনকে ছাড়িয়া থাকিতে পারে না। সুখ যার বাড়ে দিনে দিনে, দুঃখ তার ফিরে সাথে সাথে।
বিশদ

21st  May, 2019
জগতের মূলে একটী বস্তু আছে

ঠিক বৈজ্ঞানিক প্রণালীতে বিচার করিতে করিতে সর্বশেষ অবস্থায় জ্ঞানীরা দেখিয়াছেন অর্থাৎ বোধ করিয়াছেন, জগতের মূলে একটী বস্তু আছে, যাহা বোধকরা যায়। কিন্তু জগতে সেইরূপ কোনও বস্তু নাই বলিয়া তাহা যে কি সেইকথা প্রকাশ করা যায় না। শুধু, তাহা অনুভব করিবার উপায় বলা যায়।
বিশদ

20th  May, 2019
সাত্ত্বিক ভাব 

ভক্ত যখন সাক্ষাৎভাবে অথবা একটু ব্যবধানে থেকে কৃষ্ণ-প্রেমের দ্বারা গভীরভাবে অভিভূত হন, তাকে বলা হয় সাত্ত্বিক ভাব। সাত্ত্বিক ভাবের লক্ষণ তিন প্রকার— স্নিগ্ধ, দিগ্ধ ও রুক্ষ। 
বিশদ

19th  May, 2019
 গুরু

গুরু ও সদ্‌গুরু একই বস্তু, কারণ অসদ্‌গুরু বলিয়া কোন বস্তু নাই। তবে বুঝাইবার সুবিধার জন্য গুরু হইতে সদ্‌গুরু শব্দের বৈলক্ষণ্য দেখান হয়। যাঁহার কৃপায় পূর্ণ সত্যের রূপ প্রত্যক্ষ হয়—যে প্রত্যক্ষের পর আর কোন আবরণ থাকে না—তিনিই সদ্‌গুরু। যিনি আবরণের আংশিক নিবৃত্তিতে সহায়ক হন তাঁহাকে গুরু বলা হয়।
বিশদ

18th  May, 2019
 শ্রীমা

 শ্রীমায়ের উপস্থিতিতে দক্ষিণ দেশে কি ঘটেছিল তার কিছুটা আঁচ করা যেতে পারে তামিল মাসিক পত্রিকা ‘শ্রীরামকৃষ্ণবিজয়ম্‌’-এর ১৯২৫ খ্রীস্টাব্দের ডিসেম্বর সংখ্যায় প্রকাশিত ‘সারদা দাসন’ ছদ্মনামে জনৈক ভক্তের স্মৃতিকথা থেকে। ‘হিন্দু’ পত্রিকাতে খবর পড়ে তাঁর বাবা ও মা তাঁকে নিয়ে শ্রীমায়ের দর্শন করতে এসেছিলেন। বিশদ

17th  May, 2019
 গৃহী

গৃহী সন্তানদের প্রতি—বিবাহিত পুরুষদের বলতেন, মানসিক শান্তিই শ্রেষ্ঠ ধর্ম। নিজের সাধনায় তা অর্জন করে নিতে হয়। এক নারী সদাব্রতী, একাহারী সদা যতি। অপর সকল নারী মাতৃবৎ। বিবাহ Royal Road অর্থাৎ সমাজ অনুমোদিত পথ।
বিশদ

16th  May, 2019
স্বপ্নের কথা

প্রশ্ন: কেন আমরা স্বপ্নের কথা ভুলে যাই? 
কেননা তুমি সর্বদা একই জায়গাতে স্বপ্ন দেখ না। আর তোমার সত্তার একই অংশ সর্বদা স্বপ্ন দেখ না ও স্বপ্নে একই স্থানে থাক না। যদি তুমি তোমার সত্তার সকল অংশের সঙ্গে সংযোগ রাখতে পারতে—সচেতনভাবে, সোজাসুজি, অবিরাম তাহলে তোমার স্বপ্নের সব বৃত্তান্ত তোমার মনে থাকত।
বিশদ

15th  May, 2019
মন ও মন্ত্র 

মনকে যা ত্রাণ করে তার নাম মন্ত্র। মনকে ত্রাণ করতে হলে এমন একটা-কিছুর আশ্রয় নিতে হয় যা মন থেকে পৃথক, যা মনের অতীত, যা মন নয়। সাধক ও তাঁর মনের মধ্যে মন্ত্র হ’ল, প্রথম আবির্ভাবে, এক তৃতীয় শক্তি-স্বরূপ। পরিশেষে অবশ্য, মন্ত্রই একমাত্র শক্তি হিসেবে বিরাজ করেন; সাধক ও তাঁর মনের শক্তি— এ দুটি ক্রমশ মন্ত্র-শক্তিতেই বিলীন হয়। 
বিশদ

14th  May, 2019
‘বাউল’

 ‘বাউল’ শব্দটি ‘বাতুল’ শব্দের অপভ্রংশ। ‘বাতুল’ শব্দ ত্রূমশঃ রূপান্তরিত হয়ে ‘বাউল’শব্দে পরিণতি প্রাপ্ত হয়েছে। ‘বাউল’ শব্দের প্রকৃত মর্মার্থ হল-বাহ্যজ্ঞান রহিত উন্মাদ। অর্থাৎ যিনি বাহ্য ইন্দ্রিয়ের চেতনাশূন্য, বিষয়বুদ্ধি রহিত ভগবৎ প্রেমে পাগল। আর এই ভাবমুখী প্রেমোন্মাদ মানুষকেই ‘বাউল’ বলা হয়।
বিশদ

13th  May, 2019
সমস্ত জীবনই এক শিক্ষা

সমস্ত জীবনই এক শিক্ষা—কম-বেশি সজ্ঞানভাবে, কম-বেশি স্বেচ্ছায় অনুসৃত। তবে কারও কারও ক্ষেত্রে এই শিক্ষা আলোর দিকটি প্রকাশ করবার সহায় হয়, কারও ক্ষেত্রে বিপরীত, অর্থাৎ অন্ধকারের দিক। অবস্থা ও পারিপার্শ্বিকী যদি অনুকূল হয় তাহলে অন্ধকার সরে যায়, হয় আলোরই বৃদ্ধি। অন্য পক্ষে ঘটে বিপরীত।
বিশদ

12th  May, 2019
অমৃতকথা 

দেহ ও মন এই দুইটী যন্ত্র-সহায়ে তোমার আভ্যন্তরীণ শক্তিপুঞ্জ প্রয়োজিত এবং অভিব্যঞ্জিত হইতেছে। দেহ যদি একটী দশ-মর্দ্দা হইয়া থাকে, মন তাহা হইলে একটি বিশ-মর্দ্দা। “মারো ধাক্কা হেইয়োঁ”—বলিয়া দশ-মর্দ্দা দিয়া ধাক্কা দাও, গায়ে তৎক্ষণাৎ জোর আসিবে, কার্য্য-সিদ্ধি ত’ হইবেই।   বিশদ

11th  May, 2019
কার্য

জানার বিষয় হল তিনটি: গ্রহীতা, গ্রহণ ও গ্রাহ্য, অন্য পরিভাষায় পুরুষ, ইন্দ্রিয় এবং ভূত। অর্থাৎ যে গ্রহণ করছে অর্থাৎ জানছে বা দেখছে সেই হল কর্তা বা গ্রহীতা, যা দিয়ে দেখছে তাকেই বলে করণ বা ইন্দ্রিয় এবং যা দেখছে অর্থাৎ বিষয় বা ভূতবর্গ তাকে বলে কার্য। বিশদ

10th  May, 2019
ধর্ম

 বিশ্বের সকল ধর্মবেত্তারা নিজ নিজ ধর্মানুশাসনে নিবিষ্ট ও বোধিদীপ্ত হয়ে জগতের অনেক কল্যাণ সাধন করেছেন।আজ জগতে যা কিছু শুভকর, তা এঁদেরই অনুপ্রেরণা ও সাধনার ফল। জগৎ একই স্রষ্টার করুণাধারায় প্রবাহিত। এই প্রবহমান জগতে বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীর আনুগত্য সেই একই স্রষ্টার প্রতি বিভিন্ন নামে ও ধ্যানে। বিশদ

09th  May, 2019
  গুরু

ধর্মরাজ্যে এগোতে হলে পথটাকে ভালবাসার চেষ্টা কর। ভালবাসা না এলে এগোনা যাবে না। পথটা ভালো না লাগলে সবই বৃথা। কারণ, একটা পথ ধরে তো এগোতে হবে। যে রূপ ভাল লাগে, যাঁর প্রতি একটা আকর্ষণ বোধ ক’রছো, তাঁকেই ভালবাসতে চেষ্টা কর। গুরুকে ধর। বিশদ

08th  May, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, ময়নাগুড়ি: বৃহস্পতিবার নির্বাচনের ফলাফলের দিনে শুনশান রইল ময়নাগুড়ি বাজার। ময়নাগুড়ি নতুন ও পুরাতন বাজারে এদিন সকালের দিকে হাতেগোনা কয়েকটি দোকান ও লোকজনের দেখা মিললেও বেলা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কার্যত ফাঁকা হয়ে যায় বাজার। সকলের চোখ কার্যত তখন টিভির পর্দায়। ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভিআইপি রোডে হলদিরাম মোড়ের কাছ থেকে এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ স্থানীয় লোকজন ওই মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিসকে খবর দেয়। পুলিস দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য আর জি কর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভোটের ফল বেরনোর সঙ্গে সঙ্গেই শাসক ও বিরোধী দলের মধ্যে হাঙ্গামা ঠেকাতে বাড়তি সতর্ক রাজ্য পুলিস। জেলাজুড়ে গোলমালের সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত। ইতিমধ্যে পুলিসের শীর্ষস্তর থেকে সমস্ত থানার কাছে নির্দেশ গিয়েছে, উত্তেজনাপ্রবণ ও স্পর্শকাতর এলাকায় ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

শত্রুরা পরাভূত হবে। কর্মে পরিবর্তনের সম্ভাবনা। স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের জন্য ব্যয়-বৃদ্ধির যোগ আছে। কোন ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯০৬-নাট্যকার হেনরিক ইবসেনের মৃত্যু
১৯১৮: ইংরেজ ক্রিকেটার ডেনিস কম্পটনের জন্ম
১৯১৯-জয়পুরের রাজমাতা গায়ত্রী দেবীর জন্ম
১৯৫১-বিশিষ্ট দাবাড়ু আনাতোলি কারাপোভের জন্ম

23rd  May, 2019
ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.৬৫ টাকা ৭০.৩৪ টাকা
পাউন্ড ৮৬.২৯ টাকা ৮৯.৫১ টাকা
ইউরো ৭৬.০৩ টাকা ৭৮.৯৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,২৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০, ৫৯৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৩, ০৫৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৬, ৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৬, ৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার, ষষ্ঠী অহোরাত্র। উত্তরাষাঢ়া ৬/২৩ দিবা ৭/৩০। সূ উ ৪/৫৭/১৬, অ ৬/৯/২৪, অমৃতযোগ দিবা ১২/০ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ৮/১৯ মধ্যে পুনঃ ১২/৩৮ গতে ২/৪৭ মধ্যে পুনঃ ৩/৩১ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/১৫ গতে ১১/৩৩ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৫১ গতে ১০/১২ মধ্যে।
 প্রাচীন পঞ্জিকা: ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার, ষষ্ঠী ৬০/০/০ অহোরাত্র। উত্তরাষা‌ঢ়ানক্ষত্র ৬/৫২/২৯ দিবা ৭/৪১/৪৪, সূ উ ৪/৫৬/৪৪, অ ৬/১১/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ১২/৩ গতে ২/৪৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/২৬ মধ্যে ও ১২/৪০ গতে ২/৪৮ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৪/৫৭ মধ্যে, বারবেলা ৮/১৫/২৭ গতে ৯/৫৪/৪৮ মধ্যে, কালবেলা ৯/৫৪/৪৮ গতে ১১/৩৪/৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৫২/৫২ গতে ১২/১৩/৩১ মধ্যে।
১৮ রমজান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
সুরাতে আগুন: মৃতদের পরিবার পিছু ৪ লক্ষ টাকা সাহায্য ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর
গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি মৃতদের ...বিশদ

06:19:00 PM

সুরাতে আগুন: কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু
সুরাত পুলিস কমিশনার সতীশকুমার মিশ্র জানিয়েছেন, কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু ...বিশদ

06:16:00 PM

সুরাতে আগুন: সমবেদনা জানালেন মোদি 
অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। সুরাতে আগুন লাগার ঘটনা প্রসঙ্গে জানালেন নরেন্দ্র মোদি। ...বিশদ

06:07:00 PM

ভয়াবহ অগ্নিকান্ড সুরাতে
ভয়াবহ আগুন সুরাতের সার্থনার একটি বাড়িতে। ঘটনাস্থলে দমকলের ১৮টি ইঞ্জিন। ...বিশদ

06:01:00 PM

শুভ্রাংশু রায়কে সাসপেন্ড করল তৃণমূল
দলে থেকে দল বিরোধী মন্তব্য করার অপরাধে এবং অন্য ...বিশদ

05:26:55 PM

আউশগ্রামের দিগনগরে তৃণমূল কার্যালয়ে ভাঙচুর করে আগুন লাগানোর অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে 

04:26:22 PM