Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

বৃদ্ধিযোগের ভালো-মন্দ

পশ্চিমবঙ্গে হঠাৎ বৃদ্ধিযোগ। সরকারের রাজকোষের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও নানা ভাবে যুক্ত মানুষের পাওনাগণ্ডা অনেকখানি বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য। যেমন গত ২৫ জুলাই প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন একলাফে অনেকটাই বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। ২৯ জুলাই শিশু শিক্ষা কেন্দ্র (এসএসকে) এবং মাধ্যমিক শিক্ষা কেন্দ্রের (এমএসকে) শিক্ষকদেরও প্রাপ্য বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। সম্প্রতি বাড়ানো হয়েছে ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের সদস্য এবং ভোটে নির্বাচিত নানা ধরনের পদাধিকারীদেরও। তার আগে বেড়েছে বিধায়ক এবং রাজ্যের মন্ত্রীদের ভাতাও। ৩০ জুলাই ঘোষিত হল পুর কাউন্সিলারসহ সংশ্লিষ্ট সমস্ত পদাধিকারীর ভাতাবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত। বেতন এবং ভাতাবৃদ্ধির প্রতিটি সিদ্ধান্তই স্বাগত। কারণ, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি অর্থনীতির ধর্ম। সরকারি কর্মী থেকে জনপ্রতিনিধি সকলেই এই অর্থনীতির অংশ। একই বাজারে সকলকেই বাজার করতে হয়। অতএব দ্রব্যমূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে সংগতিপূর্ণ বর্ধিত বেতন এবং ভাতাই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রাপ্য। সরকার স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এই পাওনাগণ্ডা বাড়িয়েছে এমন নয়। প্রতিটি ক্ষেত্র নিজ নিজ দাবিতে সরব ছিল। স্কুলশিক্ষক এবং এসএসকে, এমএসকের শিক্ষকরা বেতনবৃদ্ধির দাবিতে একাধিকবার আন্দোলনও করেছেন। জনপ্রতিনিধিরা আন্দোলনের পথে যাননি ঠিকই কিন্তু ‘সামান্য’ মাসিক ভাতা নিয়ে তাঁদের একাংশের মনে ক্ষোভ অবশ্যই ছিল। অতএব প্রতিটি ক্ষেত্রে পাওনাগণ্ডা বাড়িয়ে দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত সুবিবেচনাপ্রসূত বলেই প্রশংসিত হবে, ধরে নেওয়া যায়।
তবে, এর দুটি প্রভাব সম্পর্কেও হুঁশিয়ার থাকতে হবে। সমাজের একটি অংশের আয়বৃদ্ধির প্রভাব বা‌জারে পড়বে। তার দরুণ জিনিসপত্রের দাম কিছুটা বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকবে। আর একটি সম্ভাবনা হল সরকারের বাকি সমস্ত ক্ষেত্রও একইসঙ্গে বেতনসহ অন্যান্য প্রাপ্য বৃদ্ধির ব্যাপারে প্রত্যাশী হয়ে উঠবে। যেমন হাইস্কুল, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি এবং সরকার অধিগৃহীত সংস্থাগুলির কর্মীরা। আমরা জানি, সরকারি কর্মীরা মহার্ঘভাতা বৃদ্ধির দাবিতে দীর্ঘদিন যাবৎ সোচ্চার। ইতিমধ্যেই ডিএ মামলায় স্যাটের রায় কর্মীদের পক্ষে গিয়েছে। তাঁদের কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্যাট। নবান্নের উপর আরও রয়েছে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার চাপ। দাবিপূরণের দরজা একবার খুলে গেলে তা বন্ধ করে দেওয়া কঠিন। আশঙ্কা হয়, এরপর প্রত্যাশা বাড়বে সামাজিক কল্যাণ ক্ষেত্রে সরকার যত রকম ভাতা দিয়ে থাকে (যেমন বিধবাভাতা, বার্ধক্যভাতা, ছাত্রবৃত্তি প্রভৃতি) সেগুলিও বৃদ্ধির জন্য।
সম্প্রতি যতটা বর্ধিত আর্থিক দায় সরকার স্বীকার করে নিয়েছে তার পরিমাণ বিপুল। এরপর ডিএ, ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ গ্রহণ মিলিয়ে আরও এক বিশাল ব্যয়ভার অপেক্ষা করছে। সরকার এই পুরোটাই মেটাতে পারলে তার চেয়ে সুখের কিছু হয় না। কারণ, তাতে নাগরিকদের একটি বৃহৎ অংশের জীবনযাত্রার মানে ইতিবাচক পরিবর্তন সূচিত হবে। যার সুফল বাজারেও পড়বে। কিন্তু প্রশ্ন হল, যে সরকারের কাঁধে ঋণের সুদ বাবদ অবিলম্বে ৫৬ হাজার কোটি টাকা মেটানোর দায় রয়েছে, সেই সরকার এটা কতটা পেরে উঠবে? রাজ্য সরকারের আয়ের ক্ষেত্র সীমিত। কেন্দ্রীয় রাজস্বের প্রাপ্য অংশও রাজ্য কখনও পুরো পায় না। যেমন চতুর্দশ অর্থ কমিশনের নিয়মানুসারে মোট কেন্দ্রীয় রাজস্বের (জিটিআর) ৪২ শতাংশ রাজ্যগুলির প্রাপ্য। এটি রাজ্যগুলির সাংবিধানিক অধিকারও বটে। তারপরেও গত পাঁচ বছরে রাজ্যগুলির প্রাপ্য ৩৬ শতাংশও স্পর্শ করেনি। তাই রাজ্যের দায়ভারকে অংশত কেন্দ্রেরও স্বীকার করে নেওয়া উচিত। তা না-হলে রাজ্যের উপর চাপবৃদ্ধিতে অশান্তিই বাড়বে, বাস্তবে কিছুই করার থাকবে না রাজ্যের। অন্যদিকে, রাজ্যকেও চেষ্টা করতে হবে সংকীর্ণ রাজনীতির ঊর্ধ্বে ওঠার এবং অনাবশ্যক কিছু খরচে লাগাম টানার। আয়বৃদ্ধির নতুন নতুন ক্ষেত্র খুঁজে বের করাও জরুরি। বেতন ভাতা বাবদ যাঁরা বাড়তি অর্থ পেতে চলেছেন, তাঁদেরকেও মনে রাখতে হবে, বাংলার কর্মসংস্কৃতির বিন্দুমাত্র সুনাম নেই। জনপ্রতিনিধিদের একাংশ সম্পর্কেও মানুষের শ্রদ্ধা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। অতএব সরকার যখন সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সংগৃহীত অর্থে তাঁদের জন্য বাড়তি বিপুল ব্যয়ভার স্বীকার করছে, তখন কর্মসংস্কৃতি এবং স্বচ্ছতা ফেরানোর বিষয়ে তাঁরা যেন আন্তরিকতার পরিচয়টি রাখেন।
01st  August, 2019
বন্ধুত্বপূর্ণ লড়াই চলুক সারা দেশে 

প্রথম বার কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ঘোষণা করেন যে ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষের ভিতর ভারতকে ৫ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থনীতির (জিডিপি) দেশে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছে সরকার। তার ফলে ভারত পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি হিসেবে গুরুত্বলাভ করবে।   বিশদ

পুজো আসছে, বাজার চড়ছে:
এই ট্রাডিশন কি চলতেই থাকবে!
শুভা দত্ত

 চারটে হাইব্রিড আধ-কাটা রজনীগন্ধার ছোট মালা, বেল কুঁড়ির ছ’ইঞ্চি সাইজের দশটা মালা আর চার-পাঁচটা জবা কুঁড়ি সঙ্গে একটু বেলপাতা তুলসীপাতা কুচো ফুল—দাম তিনশো কুড়ি টাকা! হ্যাঁ, এই দামেই গত বৃহস্পতিবার আমার এক বন্ধুকে শ্যামবাজারের ফুল দোকানে এই দাম চোকাতে হয়েছে! যুক্তি কী?
বিশদ

25th  August, 2019
অর্থনীতির সঙ্কট

 স্বাধীনতার পর দেশের অর্থনীতির হাল এতটা খারাপ হয়নি। বিস্ফোরক এই স্বীকারোক্তি শোনা গিয়েছে নীতি আয়োগের ভাইস চেয়ারম্যান রাজীব কুমারের মন্তব্যে। বাজারে নগদের জোগান কমে যাওয়ায় কী কী সমস্যা হচ্ছে এবং তার সমাধান স্বরূপ কেন্দ্রীয় সরকার কী কী করছে, তার বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিয়েছেন নীতি আয়োগ কর্তা।
বিশদ

25th  August, 2019
সড়ক-সেতুর স্বাস্থ্যরক্ষা কর্তব্য

 লাগাতার নিম্নচাপের বৃষ্টি কিংবা ঘনঘোর বর্ষার মুষলধারে বৃষ্টির চাপ এখনও সেভাবে শুরুই হয়নি। বর্ষার প্রথম ইনিংসের ঝোড়ো ব্যাটিংয়েই কলকাতা, বিধাননগর সহ শহরতলি ও মফস্‌সলের রাস্তাঘাটের খোলনলচে বেরিয়ে গিয়েছে। গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো শহরের একাধিক সেতুরও স্বাস্থ্য দুর্বল হয়ে পড়েছে।
বিশদ

24th  August, 2019
কাশ্মীর নয়, পাক নাগরিকদের দুর্দশামোচনের কথা ভাবুন ইমরান  

চলতি মাসের ৫ তারিখ জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা খারিজ করে দিয়ে আন্তর্জাতিক দুনিয়ার কাছে ভারত স্পষ্ট করে দিয়েছে—ভূস্বর্গ শুধু খাতাকলমে নয় বাস্তবিকই ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। স্বাধীন সার্বভৌম ভারত রাষ্ট্রই একমাত্র জানে—কীভাবে জম্মু ও কাশ্মীরে সুস্থিতি শান্তি ফেরাতে হবে, জম্মু ও কাশ্মীরের উন্নতি করতে হবে, সেখানকার মানুষকে সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে হবে।  বিশদ

23rd  August, 2019
বেকাররাই সহজ টার্গেট

চাকরির ভুয়ো বিজ্ঞাপন দিয়ে কোটি টাকার প্রতারণা। প্রতারিত ৮২-৮৩ হাজার বেকার যুবক-যুবতী। ধৃত এক শিক্ষিত যুবক। বুধবারের কাগজে একটি গুরুত্বপূর্ণ খবর। তবে, খবরটি অভিনব কিছু নয়। কারণ, শিক্ষিত বেকাররা এমন প্রতারণার শিকার এই প্রথম হলেন এমনটা নয়।
বিশদ

22nd  August, 2019
শিশুর খাবার যে শিক্ষকরা চুরি করেন, তাঁদের কঠিন শাস্তি হোক

খুব মহৎ উদ্দেশ্য নিয়েই বহুদিন আগে স্কুলে স্কুলে মিড ডে মিল চালু করা হয়েছিল। দেশের দরিদ্র, অভুক্ত শিশুদের স্কুলমুখী করতে এবং তাদের মধ্যে শিক্ষার প্রসার ঘটাতে এই ব্যবস্থা চালু হয়েছিল। এমন বহু বাবা-মা আছেন যাঁরা সন্তানদের স্কুলে পাঠান যাতে ছেলেমেয়েরা একটু খেতে পায় এবং পড়াশুনা শেখে।
বিশদ

21st  August, 2019
মধ্যবিত্তের পকেটে কোপ 

মধ্যবিত্ত স্বস্তিতে নেই। প্রকৃতির খামখেয়ালিপনা আর ফড়েদের দাপটে এমনিতেই বেশকিছু সব্জির দাম ঊর্ধ্বমুখী। মাছে-ভাতে বাঙালির পাতে এক টুকরো মাছ কীভাবে দেওয়া যাবে তা নিয়েও গৃহকর্তার কপালে চিন্তার ভাঁজ।  
বিশদ

20th  August, 2019
উপযুক্ত নিকাশিব্যবস্থা জরুরি 

গত বৃহস্পতিবার পর্যন্তও কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের মানুষ ‘আল্লা মেঘ দে পানি দে’ করেছে। কারণ, অনাবৃষ্টির দুঃসহ যন্ত্রণা সইতে হচ্ছিল এই এলাকার কয়েক কোটি মানুষকে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল স্বাভাবিকের প্রায় অর্ধেক। 
বিশদ

19th  August, 2019
ভদ্রতার মুখোশ নয়

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি হামেশাই বলে থাকেন, এ এক নতুন ভারত। অর্থাৎ এই ভারত মার খেয়ে বসে থাকবে না। পাল্টা ঘরে ঢুকে মারবেও। আর এই নীতি যে শুধু বালাকোটের মতো অভিযানে সীমাবদ্ধ থাকবে না, তার আভাস দিয়ে দিলেন তাঁরই প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।
বিশদ

18th  August, 2019
সত্যের দরজা খুলুক

 দুধে জল মেশানো অথবা জলে দুধ মেশানোর প্রকৃষ্ট উদাহরণ কমলাকান্ত ও প্রসন্ন গোয়ালিনীর কথোপকথনে আছে, সেটা আর এখানে উল্লেখ না করাই শ্রেয়। কিন্তু এই জলে দুধ মিশিয়ে তা বিক্রিযোগ্য করা বা খরিদ করতে বাধ্য করাটা ভিন্ন। আমাদের দেশে শিশুখাদ্য দুধেও জল মেশানোটা অনেকের রক্তে মিশে আছে। বিশদ

17th  August, 2019
গাড়িশিল্পে বিপর্যয় উদ্বেগের

 নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে কেন্দ্রের সরকারে ফের এনডিএ। জোটধর্মের নিয়মরক্ষাটি সরিয়ে রাখলে এটাকে বিজেপি সরকারও বলা যায়। কারণ, নরেন্দ্র মোদির দল সংসদে একাই সংখ্যাগরিষ্ঠ। আরও একটি সত্য হল, কংগ্রেসসহ বিরোধীদের তীব্র আক্রমণ নস্যাৎ করে দিয়ে মানুষ এবার বিজেপিকে ২০১৪ সালের বেশিই ভোট দিয়েছে।
বিশদ

15th  August, 2019
কড়া হাতে দমন 

স্মৃতি সতত সুখের হয় না। কিছু কিছু পুরনো স্মৃতি পীড়াদায়ক, উদ্বেগও বাড়ায়। সোমবারের ঘটনা সেরকমই একটা পুরনো স্মৃতিকে উস্কে দিল। মনে পড়ে যায় সেই দৃশ্যটি যেখানে প্রাণ বাঁচাতে পুলিসকে আশ্রয় নিতে হয়েছে টেবিলের নীচে।  বিশদ

14th  August, 2019
জালনোট: মূল উপড়ানো দরকার 

সম্প্রতি লোকসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী যে পরিসংখ্যান দিয়েছেন, তাতে নোটবাতিলের পর থেকে চলতি বছরের জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সীমান্তে ভারতীয় জালনোট উদ্ধারের পরিমাণ ২ কোটি ৫৫ লক্ষ টাকা। 
বিশদ

13th  August, 2019
খট্টর-মন্তব্য এবং নারীসমাজ

 হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর একটি মন্তব্য করেছেন এবং তার সাফাইও দিয়েছেন। বিষয়বস্তু, ‘কাশ্মীরি বধূ’। ভাবটা খুব পরিষ্কার, সংবিধানের ৩৭০ ধারা কাশ্মীরের উপর আর কার্যকর না থাকায় এবার কাশ্মীর থেকেও ভারতের অন্য রাজ্য বা প্রদেশের পুরুষরা সুন্দরী বধূ নিয়ে আসতে পারবেন। মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর কাছে খুব মজাদার বিষয় বটে।
বিশদ

12th  August, 2019
ব্যালট বনাম প্রযুক্তি

ভারতের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, ব্যালটে ফিরে যাওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই। কলকাতায় একটি অনুষ্ঠানে এসে তিনি এই কথা জানিয়েছেন। এই প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের রায় উল্লেখ করার পাশাপাশি মুখ্য নির্বাচন কমিশনার বুঝিয়ে দিয়েছেন, ভারত আর অতীতের দিকে ফিরে তাকাতে চায় না।
বিশদ

11th  August, 2019
একনজরে
সৌম্যজিৎ সাহা  কলকাতা: খাতা দেখার ক্ষেত্রে কড়া নিয়ম চালু করছে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। কাগজ-কলম ছেড়ে কম্পিউটারে খাতা দেখার ব্যবস্থা চালু করছে তারা। তার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ঠিক করেছে, উত্তরপত্রের প্রতি পাতার জন্য অন্তত চার মিনিট সময় ব্যয় করতেই হবে পরীক্ষকদের। ...

সংবাদদাতা, ইসলামপুর: ইসলামপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের করিম-কানাইয়ার দ্বন্দ্ব চলছেই। এবার উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়ালের অনুগামী হিসেবে পরিচিত তৃণমূলের ইসলামপুর ব্লক সভাপতি জাকির হুসেনের নিযুক্ত অঞ্চল সভাপতিরা অবৈধ বলে দাবি করলেন দলের বিধায়ক আবদুল করিম চৌধুরী।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ছেলের সামনেই সরকারি বাসের চাকায় পিষ্ট হলেন বাবা। শনিবার রাতে এমনই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল গড়িয়া মোড়ের ৫ নম্বর বাস ডিপো সংলগ্ন রাজা সুবোধচন্দ্র মল্লিক রোডে। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের নাম দেবদাস চট্টোপাধ্যায় (৭৯)। বাড়ি নাকতলার দুর্গাপ্রসন্ন পরমহংস রোডে। ...

 একনজরে পিভি সিন্ধু ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে ভাবনাচিন্তা করে বিষয় নির্বাচন করলে ভালো হবে। প্রেম-প্রণয়ে বাধাবিঘ্ন থাকবে। কারও সঙ্গে মতবিরোধ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯১০: নোবেল জয়ী সমাজসেবী মাদার টেরিজার জন্ম
১৯৩৪: কবি ও গীতিকার অতুলপ্রসাদ সেনের মৃত্যু
১৯৫৬: রাজনীতিক মানেকা গান্ধীর জন্ম
১৯৬৮: চিত্র পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকরের জন্ম

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৭৯ টাকা ৭২.৪৯ টাকা
পাউন্ড ৮৫.৩৪ টাকা ৮৮.৫১ টাকা
ইউরো ৭৭.৯৮ টাকা ৮০.৯৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
23rd  August, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৯, ০২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৭, ০২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭, ৫৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪, ৮৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪. ৯৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
25th  August, 2019

দিন পঞ্জিকা

৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, দশমী ৪/১৬ দিবা ৭/৩ পরে একাদশী ৫৯/৩৪ শেষরাত্রি ৫/১০। আর্দ্রা ৪৯/০ রাত্রি ২/৫৬। সূ উ ৫/২০/৩০, অ ৫/৫৬/৩৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে পুনঃ ১০/২৩ গতে ১২/৫৪ মধ্যে। রাত্রি ৬/৪২ গতে ৯/০ মধ্যে পুনঃ ১১/১৫ গতে ২/১৮ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৫ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/৪৭ গতে ৪/২২ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১৩ গতে ১১/৩৮ মধ্যে। 
৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার, একাদশী ৪৮/৪০/৩৭ রাত্রি ১২/৪৭/৪২। আর্দ্রানক্ষত্র ৪৬/২৩/৪৪ রাত্রি ১১/৫২/৫৭, সূ উ ৫/১৯/২৭, অ ৫/৫৯/২৭, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩ মধ্যে ও ১০/১৯ গতে ১১/৪৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৯ গতে ৮/৪৯ মধ্যে ও ১১/১০ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ২/৪৯/২৭ গতে ৪/২৪/২৭ মধ্যে, কালবেলা ৬/৫৪/২৭ গতে ৮/২৯/২৭ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১৪/২৭ গতে ১১/৩৯/২৭ মধ্যে। 
২৪ জেলহজ্জ 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আজ বর্ধমানে মুখ্যমন্ত্রী 
প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দিতে আজ, সোমবার পূর্ব বর্ধমানে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী ...বিশদ

08:41:21 AM

ইতিহাসে আজকের দিনে 
১৯১০: নোবেল জয়ী সমাজসেবী মাদার টেরিজার জন্ম১৯৩৪: কবি ও গীতিকার ...বিশদ

08:26:50 AM

আজকের রাশিফল 
মেষ: সৎ পরামর্শমতো চললে ভালো হবে। বৃষ: বুঝেশুনে বিনিয়োগ করলে শুভ ...বিশদ

08:08:00 AM

পিস হাভেনের সামনে ভেঙে পড়ল পোর্টিকো 
পিস হাভেনের সামনে ভেঙে পড়ল পোর্টিকো। এদিন সন্ধ্যার সময় পিস ...বিশদ

25-08-2019 - 09:22:00 PM

ব্যাডমিন্টন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন পি ভি সিন্ধু 

25-08-2019 - 06:22:00 PM

জল জমার প্রতিবাদে সোদপুরের এইচবি টাউনে স্থানীয়দের অবরোধ

25-08-2019 - 03:56:55 PM