Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

হিংসার রাজনীতির অবসান হোক

ভোট শেষ। গণনা শেষ। বৃহস্পতিবার হল শপথগ্রহণ। কিন্তু, কিছুতেই হিংসা-রক্তপাতের শেষ হচ্ছে না। যতটুকু খবর মিলছে তাতে দেখা যাচ্ছে নির্বাচনোত্তর হিংসাত্মক ঘটনায় পশ্চিমবঙ্গই শীর্ষে থেকে যাচ্ছে। এরাজ্যে রাজনৈতিক হিংসা কিছুতেই দমন করা যাচ্ছে না। ভোটে এবার বিজেপি খুবই ভালো ফল করেছে, এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু, তারপর থেকেই গোটা বারাকপুর মহকুমাসহ রাজ্যে তারা হিংসাত্মক কার্যকলাপ চালাচ্ছে বলে অভিযোগ। তবে হিংসাত্মক কার্যকলাপ কোনও মতেই সমর্থনযোগ্য নয়। মনে রাখা দরকার কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসা কিংবা এরাজ্যে ভালো ফল করার অর্থ এই নয় যে, বিরোধী দলগুলিকে পায়ের তলায় পিষে মেরে দিতে হবে। তাদের পার্টি অফিসগুলি দখল করে নিতে হবে। বিরোধী রাজনৈতিক সমর্থকদের মারধর করে, বাড়ি ভাঙচুর করে তাদের ঘরছাড়া করতে হবে। আমাদের প্রশ্ন, এই হিংসার, বদলার রাজনীতির কি কোনও দিনই অবসান হবে না?
বঙ্গভঙ্গ আন্দোলন থেকে দেশভাগ। তেভাগা আন্দোলন থেকে নকশাল আন্দোলন। সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম থেকে মাওবাদী কিংবা গোর্খাল্যান্ড আন্দোলন। এসব ক্ষেত্রেই ঘটেছে রক্তপাত। স্বাধীনতার পর থেকে গ্রামগঞ্জে, কলকারখানায় যখন কৃষক-শ্রমিকরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠে বেঁচে থাকার অধিকার ঘোষণা করল, সেদিনও সরকারের চোখে চোখ রাখা কমিউনিস্টদের উপর দমনপীড়ন শুরু হয়। কিন্তু, সেদিনের নীতি-আদর্শে ভর করে জেগে ওঠা কমিউনিস্টরা তাতে দমে যাননি। সে কারণে তাদের বাগে আনতে লাঠি, গুলি, গ্যাস, চর লাগিয়ে ধরপাকড় কিছুই বাদ দেয়নি সরকার। ইন্দিরা গান্ধীর সময়েও চরম দুর্নীতি, অরাজকতা, একনায়কতন্ত্র, স্বৈরাচারী মনোভাবের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে যে গণআন্দোলন হয়, সেখানেও চুপ করে বসেছিল না বাঙালি। সেসব আজ ইতিহাস বলে মনে হলেও তার মধ্যে ছিল ন্যূনতম আদর্শগত লড়াই। কিন্তু, কমিউনিস্টরাই ক্ষমতায় বসে যেদিন থেকে সিপিএম হয়ে গেল, ক্ষয়িষ্ণু আদর্শগত বোধশক্তি যেদিন থেকে লুপ্ত হয়ে গেল, আলিমুদ্দিন স্ট্রিট ‘সর্বশক্তিমান’ এই ধারণা বশবর্তী হয়ে গুটিকতক মানুষ বিরোধী দলগুলির সঙ্গে কুকুর-বিড়ালের মতো আচরণ শুরু করল। যে শ্রমিক-কৃষকের অনেকের চোখে সমাজতন্ত্রের ঠুলি পরিয়ে তারা ক্ষমতায় এল, তাদেরই পাকা ধানে মই, পুকুরে বিষ ঢেলে দেওয়া, ধানভরা গোলায় রাতের অন্ধকারে আগুন ধরিয়ে দেওয়া, পাটকল মালিকের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে লকআউট করে দেওয়া— কী করেনি তারা? কারণ, যে-ই না কেউ সিপিএমের ফতোয়া মানতে অস্বীকার করেছে, তার উপরই নেমে এসেছে নির্মম অত্যাচার। এইভাবে কেটে গেল, বছরের পর বছর।
৩৪ বছরের সেই অপশাসনের বিরুদ্ধে আবার যখন নিঃশব্দ বিপ্লব ঘটে গেল, তখন ভিত নড়ে উঠল লালপার্টির ঘূণ ধরা সেই দুর্গের। পতন ঘটল সিপিএম সাম্রাজ্যের। এবারেও দেখা গেল সেই উইপোকার দল রাতারাতি ঘাসফুল হয়ে গেল কাস্তে-হাতুড়ি ছেড়ে। ফের শুরু হল বিরোধী উৎপাটন যজ্ঞ। এবার এখনও রাজ্যে ক্ষমতায় আসেনি বিজেপি। কিন্তু, লোকসভা নির্বাচনে ভালো ফল করার জেরে ফের তাদের অনেকে শুরু করেছে সেই অতিদর্পের চোখরাঙানি। ভাটপাড়া, হালিশহর, কাঁচরাপাড়া, নৈহাটিতে বিজেপির একাংশ যে তাণ্ডব শুরু করেছে, তা তীব্র ভাষায় নিন্দার যোগ্য। এমনকী পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, যেদিন নরেন্দ্র মোদি দিল্লির সিংহাসনে বসতে চলেছেন, সেদিনই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে ঘরছাড়াদের পাশে দাঁড়াতে যেতে হচ্ছে। এই রাজনীতির কি অবসান হবে না? অন্য দেশেও ক্ষমতার পরিবর্তন হয়, কোথায় এমন মারদাঙ্গা, রক্তপাত, ঘর জ্বালানোর ঘটনা ঘটে? গণতন্ত্রের দশটা আঙুল হল বিরোধী দল। তাদের নিয়ে মুষ্টিবদ্ধ হাতই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। হিংসার দ্বারা গণতান্ত্রিক শক্তির সফল প্রয়োগ কোনও কালে হয়নি, হবেও না।
31st  May, 2019
গণতন্ত্রের ভিত আরও মজবুত 

আপনি আচরি ধর্ম পরেরে শিখাও। কথাটা আমাদের বহু রাজনৈতিক ব্যক্তির ক্ষেত্রে কি খাটে? মনে হয়, অনেক সময়ই খাটে না। সংসদের ভিতরেই হোক বা বাইরে তাঁদের কেউ কেউ মাঝেমধ্যেই এমন আচরণ করে বসেন, যা আর যা-ই হোক, সৌজন্যের পরিচয় দেয় না।  বিশদ

বহু প্রতীক্ষার স্বস্তি 

জট কাটল। আন্দোলন প্রত্যাহার করলেন জুনিয়র ডাক্তাররা। আশা করা যায়, এবার চিকিৎসা পরিষেবা স্বাভাবিক হবে। দুশ্চিন্তা অনেকটাই কাটল রোগী ও তাঁদের আত্মীয়-পরিজনদের। সপ্তাহব্যাপী আন্দোলন চলার পর মুখ্যমন্ত্রী ও জুনিয়র ডাক্তারদের আলোচনা ফলপ্রসূ হওয়ায় বহু প্রতীক্ষিত স্বস্তি মিলল।  
বিশদ

18th  June, 2019
সন্ত্রাসমুক্তিই লক্ষ্য মোদির

 পাকিস্তান এবং সন্ত্রাস। আন্তর্জাতিক মঞ্চে এটাই যে নরেন্দ্র মোদির অন্যতম লক্ষ্য হতে চলেছে, তা স্পষ্ট বুঝিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী। কিরঘিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে অনুষ্ঠিত সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন সম্মেলনে মোদি বললেন, যে দেশ সন্ত্রাসে অর্থ জোগাচ্ছে, সমর্থন দিচ্ছে... জবাবদিহি করতে হবে সেই দেশকে।
বিশদ

16th  June, 2019
পে কমিশন ও রাজ্য
কর্মীদের আশা-আকাঙ্ক্ষা

লোকসভা ভোটের পর থেকে বিজেপির নেতৃত্বে গোটা রাজ্যে যে ডামাডোল শুরু হয়েছে, তাতে চাকরিজীবী মধ্যবিত্তের পকেটে গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো হুল ফোটাচ্ছে কাঁচা আনাজ ও মাছ বাজারের অগ্নিমূল্য।
বিশদ

15th  June, 2019
ব্যাঙ্ক প্রতারণা অর্থনীতির বিপদ

আধুনিক অর্থনীতির বুনিয়াদ বহুলাংশে ব্যাঙ্কনির্ভর। মানুষের কষ্টার্জিত অর্থের সঞ্চয় থেকে ঋণগ্রহণ—কোনোটাই আজ ব্যাঙ্কের বাইরে ভাবা যায় না। ব্যবসায়িক লেনদেন এবং দেশে বিদেশে টাকা প্রেরণ কিংবা গ্রহণ প্রভৃতির জন্যও ব্যাঙ্ক একটি অপরিহার্য প্রতিষ্ঠান।
বিশদ

14th  June, 2019
চিকিৎসা থামিয়ে প্রতিবাদ নয়

 মরণাপন্ন রোগীদের হাসপাতালের ভিতরে আনা ঠেকাতে দু’টি গুরুত্বপূর্ণ গেট আটকে পাহারা দিচ্ছেন জুনিয়র ডাক্তাররা! ভিতরে বন্ধ আউটডোর, ইমার্জেন্সিসহ চিকিৎসার সব ধরনের পরিষেবা! এমনই এক ভয়ঙ্কর ছবি দেখল কলকাতা। ঘটনাটি মঙ্গলবারের। ঘটনাস্থল নীলরতন সরকার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল—উন্নত চিকিৎসা পরিষেবার জন্য সারা রাজ্যের অন্যতম সেরা ভরসা।
বিশদ

13th  June, 2019
মানুষের সঙ্গে, মানুষের পাশে 

হাতে আর খুব বেশি সময় নেই। ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে জিতে ফিরতে হলে যেখানে যা ঘাটতি আছে তা পূরণ করার কাজ এখনই শুরু করা দরকার। এবারের লোকসভা নির্বাচনে শতকরা হিসেবে ভোটের হার তৃণমূলের না কমলেও এই রাজ্যে বহু মানুষের মধ্যে বিজেপিকে সমর্থনের প্রবণতা যে দেখা দিয়েছে তা অস্বীকার করার নয়।  বিশদ

12th  June, 2019
বন্ধ হোক খুনোখুনি, রক্তপাত

রাজনীতি মানে তো নীতির রাজা। অর্থাৎ যে নীতি শুধুই মানুষের কল্যাণ করবে। যে নীতির মধ্যে থাকবে না আগ্রাসী ও দখলদারী মনোভাব। সেই নীতিতে হিংসার কোনও স্থান নেই। কিন্তু সময় বদলে গিয়েছে। এখন রাজনীতি মানে রাজার নীতি। রাজাই হলেন সর্বোচ্চ ক্ষমতাবান ব্যক্তি। তিনি যা মনে করবেন, সেটাই হবে।
বিশদ

11th  June, 2019
ব্যাঙ্ক জালিয়াতিতেও রেকর্ড!

 টাকা অরক্ষিত রাখলে লুট হতে পারে—একথা কে না জানেন। তাই ক্রমাগত কমতে থাকা সুদের হার সত্ত্বেও আমাদের গচ্ছিত টাকা রাষ্ট্রের নির্ধারিত সিন্দুকেই রাখি, শুধুমাত্র নিরাপত্তার সুবন্দোবস্তের কথা মাথায় রেখে। সেই রাজকোষই যদি চুরি হয়ে যায়, তার দায় নেবে কে?
বিশদ

10th  June, 2019
মোদির বিদেশ কূটনীতি

একটা দেশ প্রভাকরণ জমানার পর চলতি বছর ইস্টারে সন্ত্রাসের পুনর্জন্মের সাক্ষী হয়েছে। জঙ্গি হামলায় প্রায় আড়াইশো নিরপরাধ মানুষের মৃত্যুর পর তার রেশ কাটিয়ে এখনও বেরতে পারেনি তারা। শ্রীলঙ্কা। আর একটা দেশ কয়েক বছরের রাজনৈতিক টানাপোড়েন কাটিয়ে ফের অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক স্তরে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে। মালদ্বীপ।
বিশদ

09th  June, 2019
সম্মান ফিরে পেলেও দেওয়ালের লিখন পড়তে পারছেন রাজনাথ

 ব্যাপক শোরগোল ও বিতর্কের পর আপাতত নিজের গুরুত্ব কিছুটা হলেও ফিরে পেলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। বৃহস্পতিবার বেলা গড়াতেই রটে যায় অমিত শাহের গুরুত্ব বাড়াতে এবং নরেন্দ্র মোদির যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে মন্ত্রিসভার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত আটটি কমিটিতেই তাঁকে স্থান দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

08th  June, 2019
ফকির পাকিস্তানের ছদ্মবেশ

ভারতের বিরুদ্ধে একনাগাড়ে মহড়া যুদ্ধ, জঙ্গি তালিম, তাদের আশ্রয়দান ও আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠীগুলিকে আর্থিক ও সামরিক সাহায্যদানের খয়রাতি চালাতে গিয়ে খেয়ালই নেই যে জাতীয় অর্থনীতির জাহাজ পাহাড়ে ধাক্কা খেয়ে ফুটো হয়ে গিয়েছে।
বিশদ

07th  June, 2019
প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ জরুরি

শিল্প-বাণিজ্য ক্ষেত্রে ক্রেডিট রেটিং একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা। ঋণগ্রহণ এবং ঋণদান বা অর্থলগ্নি বাণিজ্যের একটি বড় দিক। সব ধরনের বাণিজ্যিক সংস্থাকেই ঋণ ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে এগতে হয়। বিশদ

06th  June, 2019
রোজ হোক পরিবেশ দিবস 

আজ বিশ্ব পরিবেশ দিবস। আন্তর্জাতিক ক্যালেন্ডার মেনে বিশ্বের সমস্ত দেশ এই দিনটি পালন করছে। এদিন ঈদের ছুটি থাকায় মঙ্গলবারই রাজ্যে সরকারিভাবে নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দিনটি পালন করা হল। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি, পরিবেশ রক্ষার্থে স্লোগান লেখার প্রতিযোগিতা, সচেতনতামূলক পথনাটিকা প্রভৃতি অনেক কিছুই হল।
বিশদ

05th  June, 2019
হিংসা-হানাহানি বন্ধ হোক 

বউমা তৃণমূলের সমর্থক। ভাশুর বিজেপি নেতা। পারিবারিক শান্তি বিঘ্নিত করে দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক পরিচয়ই হয়ে উঠেছিল বিবাদের কেন্দ্রবিন্দু। কিন্তু তার যে পরিণতি এমন মর্মান্তিক হবে, তা কে জানত! শনিবার রাত ৮টা নাগাদ সন্তানকে দুধ খাওয়াচ্ছিলেন বউমা শিপ্রাদেবী।  
বিশদ

04th  June, 2019
সামনে অসংখ্য চ্যালেঞ্জ, এখন কিন্তু কাজের সময়

 দীর্ঘ ভোট প্রক্রিয়ার পর কেন্দ্রে নতুন সরকার গঠিত হয়েছে। মন্ত্রিসভার শপথও সমাপন। এখন উচ্ছ্বাসকে কমিয়ে এনে কাজ করার সময়। প্রতিটি দপ্তরের মন্ত্রী তাঁদের দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। কিন্তু মনে রাখা দরকার, দ্বিতীয় নরেন্দ্র মোদি সরকারের সামনে এখন অনেক চ্যালেঞ্জ। বিশদ

03rd  June, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতি উঠতেই স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে কলকাতার হাসপাতালগুলি। এনআরএস এবং এসএসকেএমে ওপিডিতে রোগী দেখা এবং ইমার্জেন্সিতে রোগীদের চিকিৎসা শুরু হল। ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বিজেপি ‘জয় শ্রীরাম’ লেখা কয়েক লক্ষ পোস্টকার্ড মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে পাঠাবে। পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে তৃণমূল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে লক্ষাধিক ‘জয় হিন্দ, জয় বাংলা’ লেখা পোস্টকার্ড পাঠানোর কথা ঘোষণা করেছে। ...

বিএনএ, পুন্ডিবাড়ি, কোচবিহার: মঙ্গলবার কোচবিহারে উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের অডিটোরিয়ামে ‘জয় শ্রীরাম ধ্বনি’ দিয়ে তৃণমূল প্রভাবিত কর্মচারী সমিতির সভা ভণ্ডুল করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। বিজেপির ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের কোনও চুক্তিবদ্ধ কাজে যুক্ত হওয়ার যোগ আছে। ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। বিবাহের যোগাযোগ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৪৭- লেখক সলমন রুশদির জন্ম,
১৯৭০- রাজনীতিক রাহুল গান্ধীর জন্ম,
১৯৮১- ভারতে টেস্ট টিউব বেবির জনক সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু,
২০০৮- বর্তমানের প্রতিষ্ঠাতা-সম্পাদক বরুণ সেনগুপ্তের মৃত্যু 

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.০৩ টাকা ৭০.৭২ টাকা
পাউন্ড ৮৫.৯৪ টাকা ৮৯.১১ টাকা
ইউরো ৭৭.০০ টাকা ৭৯.৯৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৩,৪৬৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩১,৭৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩২,২২৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৭,১৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৭,২৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ আষা‌ঢ় ১৪২৬, ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার, দ্বিতীয়া ২৬/৩৫ দিবা ৩/৩৪। পূর্বাষাঢ়া ২১/২৩ দিবা ১/৩০। সূ উ ৪/৫৯/৯, অ ৬/১৯/১২, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৭ গতে ১১/১১ মধ্যে পুনঃ ১/৫১ গতে ৫/২৫ মধ্যে। রাত্রি ৯/৫২ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৯ গতে ১/২৪ মধ্যে, বারবেলা ৮/১৭ গতে ৯/৫৭ মধ্যে পুনঃ ১১/৩৮ গতে ১/১৮ মধ্যে, কালরাত্রি ২/১৭ গতে ৩/৩৭ মধ্যে। 
৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার, দ্বিতীয়া ২৪/১৯/০ দিবা ২/৩৯/৬। পূর্বাষাঢ়ানক্ষত্র ২০/৫৮/৩৭ দিবা ১/১৮/৫৭, সূ উ ৪/৫৫/৩০, অ ৬/২১/৫৪, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪০ গতে ১১/১৪ মধ্যে ও ১/৫৫ গতে ৫/২৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৫৫ মধ্যে ও ১২/২ গতে ১/২৭ মধ্যে, বারবেলা ১১/৩৮/৪৩ গতে ১/১৯/২১ মধ্যে, কালবেলা ৮/১৭/৭ গতে ৯/৫৭/৫৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/১৭/৩ গতে ৩/৩৬/১৯ মধ্যে। 
১৫ শওয়াল 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বিশ্বকাপ: আফগানিস্তানকে ১৫০ রানে হারাল ইংল্যান্ড

18-06-2019 - 10:48:34 PM

স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে নিরাপত্তা, চালু কলকাতা পুলিসের হেল্প লাইন 
গতকাল মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার পর স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে নিরাপত্তা জনিত সমস্যার ...বিশদ

18-06-2019 - 09:48:24 PM

বিশ্বকাপ: আফগানিস্তান ৮৬/২ (২০ ওভার) 

18-06-2019 - 08:17:00 PM

দার্জিলিং পুরসভায় প্রশাসক নিয়োগ করল রাজ্য সরকার 

18-06-2019 - 08:08:39 PM

জাপানে বড়সড় ভূমিকম্প, মাত্রা ৬.৫, জারি সুনামি সতর্কতা 

18-06-2019 - 07:34:58 PM

বিশ্বকাপ: আফগানিস্তান ৪৮/১ (১০ ওভার) 

18-06-2019 - 07:05:00 PM