দেশ
 

  ‘সকলের জন্য গৃহ’ প্রকল্প সফল করার দায়িত্ব রাজ্যগুলির উপরই চাপাচ্ছে মোদি সরকার

সন্দীপ স্বর্ণকার • নয়াদিল্লি, ২০ এপ্রিল: মোদি সরকারের প্রকল্প। অথচ রাজ্যগুলির ওপরই তা সফল করার দায়িত্ব চাপাচ্ছে কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় (নগর) আগামী ২০২২ সালের মধ্যে হাউজিং ফর অল অর্থাৎ ‘সকলের জন্য গৃহ’ প্রকল্প প্রসঙ্গে আজ এক সাংবাদিক সম্মেলনে স্পষ্টভাষায় এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় আবাসনমন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু। বললেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যা করার করে দিয়েছেন। এবার রাজ্যগুলির কোর্টে বল। তারা যদি ঠিক মতো প্রস্তাব না পাঠায়, তাহলে তার দায় মোটেই কেন্দ্রের নয়।
বেঙ্কাইয়া বলেন, সকলেরই নিজের বাড়ির স্বপ্ন থাকে। আর সেই স্বপ্ন সার্থক করার জন্যই নরেন্দ্র মোদিজির উদ্যোগ। কিন্তু ‘জমি’ রাজ্যের বিষয়। তাই তারা যদি উদ্যোগ না বাড়ায়, তাহলে এই প্রকল্প নিয়ে কেন্দ্রের দিকে আঙুল তোলা যাবে না। রাজ্যগুলিকেই দোষারোপ করতে হবে। কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসার পর গত তিন বছরে এই ‘সকলের জন্য গৃহ’ প্রকল্পের রিপোর্ট কার্ড প্রকাশ করতেই এদিন সাংবাদিক সম্মেলন ডাকা হয়।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, মাত্র তিন বছরে আমরা ১৭ লক্ষ ৭৩ হাজার ৫৩৩ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন দিয়েছি। ২৭ হাজার ৮৮৩ কোটি টাকা অনুমোদনও হয়েছে। সরকারি রিপোর্ট অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গসহ দেশের ১২টি রাজ্য অ্যাফোডেবল হাউজেস বা স্বল্পমূল্যের বাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে পারফরমেন্স অপেক্ষাকৃত ভালো। যদিও যে হারে হওয়া উচিত ছিল, তা হয়নি বলেই মন্তব্য করে বেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, আরও বেশি করে রাজ্যগুলি যদি উদ্যোগ না নেয়, তাহলে তাদেরই লোকে সমালোচনা করবে।
সরকারি রিপোর্ট বলছে, পশ্চিমবঙ্গ এখনও পর্যন্ত যে ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৩৬৯ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন পেয়েছে, তার মধ্যে ৫ হাজার ৬৬৫ টির কাজ শেষ করেছে। ৪৫ হাজার ২৬৯টির কাজ শুরু হয়েছে। অন্যদিকে, মোদির রাজ্য গুজরাত ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৬৮৭ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন আদায় করে ২৮ হাজার ৭০ টি সম্পূর্ণ করেছে। ৯২ হাজার ৩৬৭ টির কাজ শুরু হয়েছে। অনুমোদন এবং সম্পূর্ণ করার পরিসংখ্যানে সবার আগে রয়েছে গুজরাত।
প্রশ্ন হল, স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি বর্ষের মধ্যে ভারতীয়দের সবার জন্য গৃহ, নরেন্দ্র মোদির স্বপ্ন পূরণের উদ্যোগ কি নতুন? কারাই বা পেতে পারেন এই স্বল্পমূল্যের বাড়ি? উত্তর হল, প্রকল্পটি নতুন নয়। তবে নতুন নামে, মোড়কে এনেছে মোদি সরকার। আগে যা ছিল জওহরলাল নেহরু ন্যাশনাল আরবান রিনিউয়াল মিশন, এখন পিএমএওয়াই বা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা (আরবান)।
অন্যদিকে, হাউজিং ফর অল মানে কি বাস্তবিকই প্রত্যেকের জন্য বাড়ি? উত্তর হল, না। পেতে পারেন পরিবারের যেকোনও একজন। পরিবার মানে এক্ষেত্রে স্বামী, স্ত্রী তাদের সন্তান। শর্ত হল, সারা ভারতে যাদের নামে কোথাও কোনও বাড়ি নেই, একমাত্র সেইসব পরিবারই এই সরকারি সুযোগ পাবেন। বাড়ি যে নেই, তার প্রমাণপত্র লাগবে। চার ধরনের উপার্জনকারীরা এই বাড়ি পেতে পারেন। বছরে যাদের উপার্জন যথাক্রমে ৩ লক্ষ, ৬ লক্ষ, ১২ লক্ষ এবং ১৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, তারা এই সুযোগ পাবেন। এই চার উপার্জনকারী শ্রেণির জন্য ব্যাংক ঋণের ক্ষেত্রে ভরতুকির ব্যবস্থা করে কেন্দ্র বাড়ি তৈরিতে বা বাড়ি কিনতে উৎসাহ দিচ্ছে। বছরে যাদের উপার্জন তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত তারা (ইডব্লুএস) ঋণের ক্ষেত্রে ৬.৫ শতাংশ ছাড় পাবেন। মিলবে ৩০ বর্গ মিটার এলাকার বাড়ি। যাদের উপার্জন ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত তারা (এমআইজি) পাবেন সাড়ে ৬ শতাংশ হারে সুদ ছাড়। মিলবে ৬০ বর্গ মিটার এলাকার বাড়ি। এমআইজি ওয়ানে যাদের উপার্জন বছরে ১২ লক্ষ টাকা তার ঋণের ক্ষেত্রে ভরতুকি পাবেন ৪ শতাংশ। মিলবে ৯০ বর্গমিটার এলাকার বাড়ি। আর যাদের উপার্জন ১৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, তারা ঋণে ছাড় পাবেন ৩ শতাংশ। এমআইজি টুতে মিলবে ১১০ বর্গমিটার এলাকার বাড়ি। স্থানীয় পুরসভার মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।
উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, মোদি সরকারের এই প্রকল্পে দিল্লিতে এ ধরনের বাড়ি তৈরির জন্য কেন্দ্রের কাছে কোনও আবেদনই আসেনি। অথচ দিল্লি যেহেতু কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল, তাই তার জমির অধিকারও কেন্দ্রের। তাহলে সমস্যা কীসের? প্রশ্ন করায় বেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, এটা অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারকে জিজ্ঞেস করুন। জমি কেন্দ্রের হতে পারে। কিন্তু প্রস্তাব রা঩জ্যের মাধ্যমেই আসতে হবে। তার জন্য কেন্দ্রের সঙ্গে যে ‘মউ’ চুক্তি করতে হয়, আপ সরকার তা করেনি। তাই বাড়ি হচ্ছে না। মোদির ঘোষণা, অথচ তা এগচ্ছে শম্বুকগতিতে। দু’বছর পরেই লোকসভা নির্বাচন। সেই কারণেই এখন রাজ্যের ঘাড়ে দায়িত্ব চাপাচ্ছে কেন্দ্র? উঠছে প্রশ্ন।
21st  April, 2017
গুজরাত ভোটে কংগ্রেসকে সমর্থনের ঘোষণা হার্দিকের, ক্ষিপ্ত বিজেপি

 আমেদাবাদ, ২২ নভেম্বর (পিটিআই): টালবাহনার অবসান। আসন্ন গুজরাত নির্বাচনে কংগ্রেসকেই সমর্থনের কথা ঘোষণা করলেন পটীদার আন্দোলনের নেতা হার্দিক প্যাটেল। পটীদার অনামত আন্দোলন সমিতির এই সমর্থনকে স্বাগত জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা কপিল সিবাল। প্রত্যাশিত পথেই হার্দিকের মুণ্ডপাত করেছে বিজেপি।
বিশদ

সুখোই যুদ্ধবিমান থেকে ব্রহ্মসের সফল পরীক্ষামূলক নিক্ষেপ, শক্তি বাড়ল বায়ুসেনার

 নয়াদিল্লি, ২২ নভেম্বর (পিটিআই): ভারতীয় বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান সুখোই-৩০এমকেআই থেকে প্রথমবার পরীক্ষামূলকভাবে ছোঁড়া হল সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইল ব্রহ্মস। প্রথমবারেই এই পরীক্ষা সফল হয়েছে বলে বায়ুসেনার তরফে জানানো হয়েছে।
বিশদ

মধ্যপ্রদেশের পর গুজরাতেও নিষিদ্ধ হল ‘পদ্মাবতী’

 আমেদাবাদ, ২২ নভেম্বর (পিটিআই): মধ্যপ্রদেশের পর এবার গুজরাত। বিজেপি শাসিত আরও একটি রাজ্যে মুক্তির আগেই নিষিদ্ধ হল ‘পদ্মাবতী’। সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে রাজপুত সম্প্রদায়ের আবেগের কথা মাথায় রেখে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি গুজরাতে নিষিদ্ধ করলেন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি।
বিশদ

যাওয়ার কথা ছিল মহারাষ্ট্র, ভুল সিগন্যালে ট্রেন গেল মধ্যপ্রদেশ

নয়াদিল্লি, ২২ নভেম্বর: রেলকর্মীদের ভুল নির্দেশের জেরে ১৭৫ কিলোমিটার অন্য পথে ছুটল মহারাষ্ট্রগামী একটি এক্সপ্রেস ট্রেন। কৃষকদের নিয়ে স্পেশাল ট্রেন স্বাভিমানী এক্সপ্রেসটি রাজস্থান হয়ে মহারাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু উত্তরপ্রদেশের মথুরা স্টেশনে ভুল সিগন্যালের জেরে ট্রেনটি চলে আসে মধ্যপ্রদেশে। ওই ট্রেনটিতে দিল্লিতে কিষাণ যাত্রায় যোগ দিয়ে মহারাষ্ট্রে ফিরছিলেন দেড় হাজার কৃষক। সোমবার রাতে দিল্লি থেকে ট্রেনটি মহারাষ্ট্রের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে।
বিশদ

৬ ডিসেম্বর কালাদিবস পালনের ডাক বামপন্থীদের

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২২ নভেম্বর: উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই ধ্বংস করা হয়েছিল উত্তরপ্রদেশের বাবরি সৌধ। এই অভিযোগ তুলে আগামী ৬ ডিসেম্বর দেশজুড়ে কালা দিবস পালনের ডাক দিল সিপিএম সহ ছ’টি বাম দল। বাবরি সৌধ ধ্বংসের ২৫ বছর পূর্তিতে বিজেপি-বিরোধী কর্মসূচি গ্রহণে বৃহত্তর বাম ঐক্যের উপরই ভরসা রাখছে সিপিএম।
বিশদ

জয়েশের নিশানায় একঝাঁক
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও এক মুখ্যমন্ত্রী
হাফিজ সইদ ছাড়া পেতেই সক্রিয় লস্করও

নয়াদিল্লি, ২২ নভেম্বর: কাশ্মীরের মাটিতে ভাইপো হত্যার বদলা নিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের নিশানা করছে জয়েশ-ই-মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহার। শুধু কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরাই নন, হিট লিস্টে নাম রয়েছে কয়েকজন বিজেপি নেতা ও এক মুখ্যমন্ত্রীরও। আর এই অপারেশন নিখুঁতভাবে সম্পন্ন করতে তারা হাত মিলিয়েছে আরও জঙ্গি সংগঠন হাফিজ সইদের লস্কর-ই-তোইবার সঙ্গে।
বিশদ

ভদ্রেশ্বরে পুরপ্রধান খুনে চাপানউতোর তৃণমূল-বিজেপির

বিএনএ, ভদ্রেশ্বর ও নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভদ্রেশ্বর পুরসভার চেয়ারম্যান মনোজ উপাধ্যায়কে (৩৯) খুনের ঘটনায় রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। খুনের পিছনে বিজেপির দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে, শাসক দলের অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। দু’পক্ষের চাপানউতোরের মধ্যে পুলিস মুন্না রাম নামে একজনকে গ্রেপ্তার করলেও খুনের প্রকৃত কারণ সম্পর্কে এখনও ধন্দ কাটিয়ে উঠতে পারেনি।
বিশদ

সুপ্রিম কোর্ট এবং হাইকোর্টের বিচারপতিদের বেতন বেড়ে হচ্ছে প্রায় তিনগুণ

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২২ নভেম্বর: সংসদের এমপি, রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতিদের বিষয়টি এখনও ঝুলে থাকলেও অবশেষে সুপ্রিম কোর্ট এবং হাইকোর্টের বিচারপতিদের বেতন বেড়ে হচ্ছে প্রায় তিনগুণ। প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি টি এস ঠাকুর বিচারপতিদের বেতন বাড়ানোর জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করে পাঠালেও দীর্ঘদিন তা পড়েছিল।
বিশদ

দলে কোনও বিরোধ নেই, জন্মদিনে বার্তা মুলায়মের

লখনউ, ২২ নভেম্বর (পিটিআই): ১৯৯০ সালে অযোধ্যামুখী কর সেবকদের উপর গুলি চালানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন সমাজবাদী পার্টির প্রতিষ্ঠাতা মুলায়ম সিং যাদব। তাঁর দেওয়া সেই নির্দেশের স্বপক্ষে এদিন সওয়াল করলেন মুলায়ম নিজেই। সাফ জানিয়ে দিলেন, দেশের একতার জন্য যদি আরও মানুষকে হত্যা করার প্রয়োজন হত, তবে নিরাপত্তাবাহিনী তাই করত। বিশদ

কংগ্রেসের তোপের জবাবে
১৫ ডিসেম্বর থেকে সংসদের অধিবেশন ডাকল কেন্দ্র, চলবে ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত

সন্দীপ স্বর্ণকার, নয়াদিল্লি: ২২ নভেম্বর: কংগ্রেসের দাবিই কি তবে পরোক্ষে মেনে নিচ্ছে বিজেপি এবং নরেন্দ্র মোদি? বিশেষত হার্দিক প্যাটেলের কংগ্রেসকে সমর্থনের ঘোষণার পর? কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী তথা গুজরাতের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপি নেতা অরুণ জেটলির মন্তব্যেই রাজনৈতিক মহলে এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।
বিশদ

হরিয়ানায় তিন সন্তানকে খুন করার অভিযোগে গ্রেপ্তার বাবা ও কাকা

 নয়াদিল্লি, ২২ নভেম্বর: হরিয়ানার কুরুক্ষেত্রে একটি জঙ্গলে উদ্ধার হয়েছে তিনটি শিশুর গুলিবিদ্ধ দেহ। ওই তিনটি শিশুকে খুন করার অভিযোগে বাবা এবং কাকাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। সোমবার সকালে বাড়ি থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে জঙ্গলের ভিতর থেকে তিনটি শিশুর দেহ উদ্ধার হয়।
বিশদ

তালিকায় নাম নেই, ভোট দেওয়া হল না বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজের
রাজ্যজুড়ে বিজেপি’র জয় নিয়ে আশাবাদী যোগী

 গোরক্ষপুর (উত্তরপ্রদেশ), ২২ নভেম্বর (পিটিআই): মোটের উপর নির্বিঘ্নেই মিটল উত্তরপ্রদেশের প্রথম দফার ভোটগ্রহণ। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ গোরক্ষপুরে ভোট দেন। এই নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে বিজেপিই জিততে চলেছে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। তবে নিজের কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন বিজেপি’র সাংসদ সাক্ষী মহারাজ।
বিশদ

আমেদাবাদের দুর্গে মোদির লড়াই মোদির সঙ্গেই

রাজু চক্রবর্তী, আমেদাবাদ, ২২ নভেম্বর: মন্তব্য ১:- ‘নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত এবং পণ্য পরিষেবা কর (জিএসটি) চালু করে মোদি নিজে আমাদের মতো ব্যবসায়ীদের গালে থাপ্পড় মেরেছেন। তাই এবারের ভোটে ওঁকে জবাব দিতে সেই হাত চিহ্নেই ভোট দেব আমরা’। মন্তব্য ২:-‘বর্তমান গুজরাতের যাবতীয় উন্নয়ন হয়েছে মোদির হাত ধরে। হার্দিক প্যাটেল-রাহুল গান্ধী কোনও ফ্যাক্টর নন, ভোট চাইতে যখনই মোদি রাস্তায় নামবেন, সাধারণ মানুষ সব অভিমান ভুলে ওঁকেই দু’হাত তুলে আশীর্বাদ দেবে’।
বিশদ

যোগীর সভায় মুসলিম মহিলাকে বোরখা খোলানোর অভিযোগ, তদন্তের নির্দেশ জেলা প্রশাসনের

 বালিয়া (উত্তরপ্রদেশ), ২২ নভেম্বর (পিটিআই): উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সভায় এক মহিলাকে জনসমক্ষে জোর করে বোরখা খোলানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিল জেলা প্রশাসন। বুধবার সরকারি তরফে একথা জানানো হয়েছে।
বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
 সংবাদদাতা, কান্দি: কান্দি মহকুমা এলাকায় পাঁচটি কো-এড কলেজ রয়েছে। কিন্তু এলাকায় নেই কোনও গার্লস কলেজ। অথচ বহুবছর ধরে কান্দিতে একটি গার্লস কলেজের দাবি করে আসছেন এলাকার ছাত্রীরা। কলেজ ছাত্রীদের দাবি, এই মহকুমা এলাকার বহু ছাত্রী বহরমপুর গার্লস কলেজে পড়াশুনা করে। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা ও বিএনএ, বারাসত: সরকারি চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে প্রতারণার ঘটনায় সোনারপুর থানার হরিনাভি ও উত্তর ২৪ পরগনার দত্তপুকুর থানা এলাকা থেকে মোট দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। মোটা অঙ্কের প্রতারণার ঘটনাটি ঘটেছে দত্তপুকুরে। ...

 সংবাদদাতা, বালুরঘাট: দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সমস্ত প্রাথমিক, মাদ্রাসা এবং শিশু শিক্ষা কেন্দ্রের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার চাঁদা নিয়ে শিক্ষকমহলে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। আগামী ২৮-৩০ নভেম্বর গঙ্গারামপুর স্টেডিয়ামে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। ...

 হারারে, ২২ নভেম্বর: অবশেষে ক্ষমতা হারালেন জিম্বাবোয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। ৩৭ বছর ধরে দেশ শাসন করেছেন। তার নাম যেন হয়ে উঠেছিল জিম্বাবোয়ের প্রতিশব্দ। একসময় শ্বেতাঙ্গ ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পঠনপাঠনে আগ্রহ বাড়লেও মন চঞ্চল থাকবে। কোনও হিতৈষী দ্বারা উপকৃত হবার সম্ভাবনা। ব্যবসায় যুক্ত হলে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৮৩: লেখক প্যারীচাঁদ মিত্রের মৃত্যু
১৮৯৭: লেখক নীরদচন্দ্র চৌধুরির জন্ম
১৯৩৭: বিজ্ঞানী আচার্য জগদীশচন্দ্র বসুর মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৯৮ টাকা ৬৫.৬৬ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৪৫ টাকা ৮৭.৩৩ টাকা
ইউরো ৭৪.৭০ টাকা ৭৭.৩১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,৯১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৮,৩৭৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,৮০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৯,৬০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৯,৭০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ অগ্রহায়ণ, ২৩ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার, পঞ্চমী শেষ রাত্রি ঘ ৫/৩৫, নক্ষত্র-পূর্বাষাঢ়া দিবা ঘ ৬/৫৯, সূ উ ৫/৫৮/২৫, অ ৪/৪৭/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৭/২৪ মধ্যে পুনঃ ১/১১ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ঘ ৫/৪০ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৯ গতে ৩/২০ মধ্যে পুনঃ ৪/১৪ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ২/৫ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/২৩ গতে ১/১ মধ্যে।
৬ অগ্রহায়ণ, ২৩ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার, পঞ্চমী রাত্রি ঘ ১/৫৮/১১, উত্তরষাঢ়ানক্ষত্র অহোরাত্র, সূ উ ৫/৫৯/২৩, অ ৪/৪৬/৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৩/৪৫, ৭/২৬/৪৬-৯/৩৫/৩৮, ১১/৪৪/৪৯-২/৩৬/৫১, ৩/১৯/৫২-৪/৪৬/৫, রাত্রি ১২/৪২/৪৯-২/২৮/৪৭, বারবেলা ৩/২৫/১৫-৪/৪৬/৫, কালবেলা ২/৪/২৫-৩/২৫/১৫, কালরাত্রি ১১/২২/৪৪-১/১/৫৪।
৩ রবিঃআউঃ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
চেয়ারম্যান খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত গ্রেপ্তার না হওয়ায় জিটি রোড অবরোধ এলাকাবাসীদের

চেয়ারম্যান খুনের ঘটনায় এখনও মূল অভিযুক্ত গ্রেপ্তার না ...বিশদ

10:54:00 AM

শিলিগুড়ির সুভাষপল্লিতে এটিএম ভেঙে চুরি, ঘটনাস্থলে পুলিস

10:18:00 AM

শহরে ট্রাফিকের হাল tap here
আজ, বৃহস্পতিবার সকালে শহরের রাস্তাঘাটে যান চলাচল মোটের ...বিশদ

10:11:56 AM

এবার সপ্তাহে চারদিন দর্শনার্থীরা রাষ্ট্রপতি ভবনে প্রবেশ করতে পারবেন
এবার থেকে সপ্তাহে চারদিন সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকবে রাষ্ট্রপতি ...বিশদ

10:07:37 AM

‘জগন্নাথ রসগোল্লা’ হিসাবে জিআই ট্যাগের আবেদনের সিদ্ধান্ত ওড়িশার
রসগোল্লা নিয়ে লড়াইয়ের ময়দান এখনই ছাড়তে প্রস্তুত নয় ...বিশদ

10:03:16 AM