রাজ্য
 

কমিউনিটি রেডিও সার্ভিসের মাধ্যমে প্রচার
পাহাড়ে পাথর ছোঁড়ায় প্রশিক্ষণ দিয়েছে কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা

শুভ্র চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: কীভাবে পাথর ছুঁড়ে পুলিশবাহিনীকে বেকায়দায় ফেলতে হবে, তার প্রশিক্ষণ নিয়েছে মোর্চা সমর্থকরা। নেপালের কাঠমাণ্ডুর এক প্রত্যন্ত এলাকায় ওই প্রশিক্ষণ শিবিরে হাজির ছিল কাশ্মীরে পাথর ছোঁড়ার ঘটনায় অভিযুক্তদের কয়েকজন। হাতেকলমে তারা শিখিয়েছে পাহাড়ি এলাকায় কোন কোণ থেকে পাথর ছুঁড়ে পুলিশকে একজায়গায় আটকে রাখতে হবে। যাতে পুলিশ এগতে না পারে। শিবিরে আসা অভিযুক্তরা বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। রাজ্য পুলিশের কর্তাদের কাছে এমনই তথ্য এসেছে বলে খবর। যা থেকে পুলিশকর্তারা নিশ্চিত, বিচ্ছিন্নতাবাদী শক্তির সাহায্য নিয়েই ভিতরে ভিতরে নিজেদের প্রস্তুত করেছে মোর্চার সমর্থকরা।
শুধু পাথর ছোঁড়ার প্রশিক্ষণই নয়, পাহাড়বাসীকে গোর্খাল্যান্ড আন্দোলনের সঙ্গে জুড়তে মোর্চা চালু করেছ কমিউনিটি রেডিও সার্ভিস। যার মাধ্যমে চলছে আন্দোলনের প্রচার। কী জন্য এবং কোন পরিপ্রেক্ষিতে গোর্খাল্যান্ড প্রয়োজন, তা বলা হচ্ছে। এ জন্য বাংলা-নেপাল সীমান্ত লাগোয়া এলাকায় খোলা হয়েছে একটি রেডিও স্টেশন। প্রশাসন সম্পর্কেও সেখানে মিথ্যা প্রচার চালিয়ে পাহাড়বাসীকে সরকার বিরোধী করে তোলা হচ্ছে বলে অভিযোগ। নিজেদের প্রচারের জন্য ব্যবহার করা এই রেডিও স্টেশন কোন ফ্রিকোয়েন্সিতে চলছে এবং প্রযুক্তিগত কী কৌশল ব্যবহার করা হচ্ছে, তা জানার চেষ্টা হচ্ছে। বিমল গুরুংয়ের বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া রেডিও সেটই পুলিশকে গুরুত্বপূর্ণ ক্লু দিয়েছে। যার ভিত্তিতে শুরু হয়েছে আলাদা করে খোঁজখবর।
মোর্চার আন্দোলন থেকে স্পষ্ট হচ্ছে, সরকারের বিরুদ্ধে সংঘাতে যাওয়ার জন্য তারা অনেকদিন আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়েছে। ধাপে ধাপে তারা সেদিকে এগিয়েছে। ইতিমধ্যেই উত্তর-পূর্ব ভারতের একটি জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে মোর্চার যোগের প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে বলে খবর। বিচ্ছিন্নতাবাদী এই সংগঠনটি মোর্চা কর্মী-সমর্থকদের অস্ত্র চালানোর প্রশিক্ষণ দিয়েছে। মোর্চা তাদের কাছ থেকে অত্যাধুনিক অস্ত্র কিনছে বলে গোয়েন্দারা জেনেছেন। তা মজুত করে রাখা রয়েছে পাহাড়ের বিভিন্ন জায়গায়।
গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত অভিযুক্তদের গোর্খাল্যান্ড আন্দোলনের সঙ্গে জড়িয়ে পড়া। সূত্রের খবর, কিছুদিন আগে গুরুং বাহিনী ঠিক করে, ভৌগোলিক অবস্থান যেহেতু তাদের পক্ষে রয়েছে, তাই সেই সুবিধা নিতে হবে। আন্দোলন শুরু হলে পুলিশকে বেশি দূর এগতে দেওয়া যাবে না। পুলিশ যাতে তল্লাশির কোনও সুযোগ না পায়। কীভাবে তা বাস্তবায়িত করা হবে, তার জন্য গুরুং বাহিনীকে অনুপ্রেরণা জোগায় কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের আন্দোলন। মোর্চার কর্মী-সমর্থকরা অনুমান করেছিল, তাদের আন্দোলন চরম পর্যায়ে গেলে সেক্ষেত্রে প্রশাসন সেনা নামাতে পারে। কাশ্মীরে পাথর ছুঁড়ে যেভাবে সেনাবাহিনীকে কোণঠাসা করে রাখা হয়েছে, সেই কৌশলই তখন তাদের ভীষণভাবে কাজে দেবে। এ জন্য প্রশিক্ষিত বাহিনী গড়ে তোলার উপর জোর দেওয়া হয়। পুলিশ আধিকারিকরা জানতে পারছেন, এ জন্য তারা উত্তর-পূর্ব ভারতের জঙ্গি সংগঠনের এক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করে। তার মাধ্যমে কাশ্মীরে পাথর ছোঁড়ায় দক্ষ এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের দু’জনের সঙ্গে মোর্চার কয়েকজনের পরিচয় হয়। ঠিক হয়, নেপালের কাঠমাণ্ডুতে পাথর ছোঁড়ার প্রশিক্ষণ হবে। পুলিশকর্তারা যাতে এই বিষয়ে টের না পান, সেজন্য অত্যন্ত গোপনে এই পরিকল্পনা নেওয়া হয়। ইতিমধ্যে মোর্চা সমর্থকের একটা বড় অংশের প্রশিক্ষণ হয়েছে। কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত থেকে সমস্ত কিছু শেখায় বলে জানা যাচ্ছে। মাস তিনেক আগে এই শিবির করা হয়েছিল বলে তদন্তে জানা গিয়েছে। ছোট ছোট বাচ্চাদের এই কাজে নেওয়ার উপর সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। প্রয়োজনে এদের যাতে টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা চালু করা যায়, তার পরামর্শ দেওয়া হয়। পাথর ছোঁড়ায় পেশাদারদের কীভাবে শায়েস্তা করা যায়, তার পরিকল্পনা তৈরি করছে পুলিশ। পাশাপাশি মজুত করে রাখা বোল্ডারসহ পাথর উদ্ধারের উপর জোর দেওয়া হচ্ছে বলে খবর।
19th  June, 2017
কালিম্পং বিস্ফোরণে নেপালের ভাড়াটে
জঙ্গিরা, মাইন পেতে ফের হামলার ছক

শুভ্র চট্টোপাধ্যায়  কলকাতা: কালিম্পং থানা লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলায় যৌথভাবে অপারেশন চালিয়েছে নাগাল্যান্ডের জঙ্গি সংগঠন এনএসসিএন এবং গোর্খা লিবারেশন আর্মি (জিএলএ)। এদের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে মোর্চার শীর্ষ নেতৃত্বের। এমনই তথ্য হাতে এসেছে গোয়েন্দাদের। তাঁরা জানতে পেরেছেন, মূল কাজটি করেছে নেপাল থেকে আসা ভাড়াটে জঙ্গিরা। তারা নেপালের মাওবাদীদের সঙ্গে জড়িত বলেই প্রাথমিকভাবে সন্দেহ তদম্তকারী অফিসারদের। দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি এই হ্যান্ড গ্রেনেড নিয়ে আসা হয়েছে উত্তর-পূর্ব ভারত ও নেপাল থেকে। তবে গোয়েন্দাদের কাছে আসা আরও উদ্বেগজনক খবর হল, গ্রেনেডের পাশাপাশি পাহাড়ের বিভিন্ন জায়গায় ল্যান্ডমাইন পাতার কাজ শুরু করেছে জঙ্গিরা। থানায় হামলার পর মোর্চার লক্ষ্য, টহলরত পুলিশ ভ্যান।
বিশদ

বানভাসি মানুষের পাশে মমতা,
রাতেই পৌঁছে গেলেন মালদহে

দেবাঞ্জন দাস, মালদহ: বানভাসি দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়াতে উত্তরবঙ্গে পৌঁছালেন মুখ্যমন্ত্রী। রবিবার বিকালে কলকাতা স্টেশন থেকে ধনধান্যে এক্সপ্রেসে বহরমপুর ছুঁয়ে রাতেই পৌঁছালেন মালদহে। রাত ৮টা ১০ মিনিটে তিনি পৌঁছান বহরমপুর কোর্ট স্টেশনে। সেখান থেকে সড়কপথে প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা সফর করে মালদহে পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী। বানভাসি মানুষের দুর্ভোগের কথা শুনতে আজ সোমবার সকালে মুখ্যমন্ত্রী যাবেন মালদহ হয়ে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায়।
বিশদ

ভরা বর্ষায় উদ্বেগ বাড়ল গ্রামবাংলায়
চন্দ্রবোড়ার কামড়ে কাজ করছে না সরকারি অ্যান্টিভেনাম, অভিযোগ

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: চন্দ্রবোড়া! দরজার-জানালার কাঠের মতোই গায়ের রং, সঙ্গে চাকা চাকা দাগ—এ সাপের নাম শুনলেই আচ্ছা, আচ্ছা সাহসী মানুষের রক্ত হিম হয়ে যায়। সর্প বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকদের মতে, দক্ষিণবঙ্গে বিশেষ করে দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, বর্ধমান, মুর্শিদাবাদ—এমন কোনও জেলা নেই, যেখানকার মানুষ এই সাপ নিয়ে আতঙ্কে ভোগেন না।
বিশদ

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ রাস্তা
মেরামতে ৫০০ কোটি বরাদ্দ

সঞ্জয় গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: বন্যায় দক্ষিণবঙ্গ ও উত্তরবঙ্গের বহু রাস্তা জলের তোড়ে ভেসে গিয়েছে। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গ্রামীণ রাস্তা। এমনকী প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনায় তৈরি হওয়া রাস্তাও ভেঙে চুরমার। এমন একটা পরিস্থিতিতে রাস্তার প্রকৃত অবস্থা জানতে প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসাবে জেলায় জেলায় সমীক্ষক দল গিয়ে সরজমিনে পর্যবেক্ষণ করবে বলে ঠিক হয়েছে। একইসঙ্গে ভেঙেচুরে যাওয়া রাস্তার হাল ফেরাতে উদ্যোগী হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁরই নির্দেশে অর্থ দপ্তরের বিশেষ তহবিল থেকে ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। ওই টাকা দিয়ে মূলত গ্রামীণ এলাকারই রাস্তা মেরামত করা হবে। 
বিশদ

রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় নিজেকে নির্দোষ
দাবি করে গুরুংয়ের চিঠি রাজনাথকে

দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি, ২০ আগস্ট: দার্জিলিংয়ে বিস্ফোরণের ঘটনায় ইতিমধ্যেই মোর্চা সুপ্রিমো বিমল গুরুং এবং তাঁর দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা শুরু করেছে রাজ্য সরকার। আর রাষ্ট্রদ্রোহের মতো এরকম একটি গুরুতর অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে ওঠায় প্রবল আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে মোর্চা নেতৃত্ব। আতঙ্কের প্রাবল্য এতটাই বেশি যে, উল্লিখিত বিস্ফোরণের ঘটনায় নিজেদের নির্দোষ বলে দাবি করে খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকেই চিঠি পাঠালেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভাপতি বিমল গুরুং।
বিশদ

মমতার হাত ধরে উদ্বোধন ২৫শে
পুজোর নতুন বাংলা গানকে জনপ্রিয় করতে আসরে নামছে রাজ্য সরকার

বাপ্পাদিত্য রায়চৌধুরী  কলকাতা: ‘অনুরোধের আসর’। রেডিওর এই অনুষ্ঠানের মধ্যেই লুকিয়ে আছে বাঙালির মন কেমন করা নস্টালজিয়া। একটা সময় ছিল, যখন রেডিওতে নিয়ম করে বাজত শিল্পীদের নতুন গান। আশা-লতা-কিশোর-মুকেশ-রফির মতো ‘বম্বে’র শিল্পীরা তো বটেই, সেই আসর মাতাতেন হেমন্ত-মান্না-সন্ধ্যা-শ্যামল-আরতিদের সঙ্গে অখিলবন্ধু ঘোষ বা মাধুরী চট্টোপাধ্যায়ের মতো শিল্পীরাও।
বিশদ

রাজ্যে আপাতত হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্য থেকে আপাতত মৌসুমি অক্ষরেখা সরে গিয়েছে। কোনও ঘূর্ণাবর্ত বা নিম্নচাপ অক্ষরেখা কাছাকাছি নেই। তাই আপাতত গোটা রা঩জ্যে হালকা থেকে মাঝারি মাত্রায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে বলে আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। দু’-একদিন আগেও মৌসুমি অক্ষরেখা গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল।
বিশদ

তাল কাটল বামেদের সঙ্গে যুগলবন্দিরও
সোনিয়া-মমতা সখ্য ছাপ ফেলেছে বিধানসভায়, ধার কমেছে কংগ্রেসের

জয়ন্ত চৌধুরি, কলকাতা: বিজেপি’কে রুখতে জাতীয়স্তরে জোট গঠনের তৎপরতা শুরু হওয়ায় কংগ্রেস ভাঙানোর কর্মসূচি আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তৃণমূল। দলীয় সূত্রে এমনই ইঙ্গিত মিলেছে। তবে ভাঙন আপাতত রুখে গেলেও বিরোধী হিসাবে কংগ্রেসের ধার-ভার দুটোই এখন কমতির দিকে। রাজ্য বিধানসভার চলতি অধিবেশনেও তার ছাপ স্পষ্ট।
বিশদ

 রাজ্যের সর্বত্র এখনই ডিজিটাল রেশন কার্ডে চাল-গম দেওয়া বাধ্যতামূলক হচ্ছে না

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আপাতত গোটা রাজ্যে ডিজিটাল রেশন কার্ডের মাধ্যমে চাল-গম দেওয়ার প্রক্রিয়া চালু হচ্ছে না। খাদ্য দপ্তর বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিয়েছে, মালদহ, আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিং, কালিম্পং, পুরুলিয়া জেলা এবং কলকাতা ও হাওড়া কর্পোরেশন এলাকায় ডিজিটাল ও পুরানো রেশন কার্ড উভয়ই আপাতত কার্যকর থাকবে।
বিশদ

হেঁসেলে হাপিত্যেশ, বিপাকে গ্রাহকরা
২০ দিন পেরিয়ে গেলেও মিলছে না সিলিন্ডার, বিপাকে গৃহস্থ

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বুকিং করা হলেও সময়ে রান্নার গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে না। আগে যেখানে বুকিংয়ের পর চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে বাড়িতে সিলিন্ডার পৌঁছে যেত, এখন সেখানে অনেক জায়গাতেই ১০ থেকে ১২ দিন লেগে যাচ্ছে। সিলিন্ডার বুক করার পর ১৫ থেকে ২০ দিন কেটে গেলেও সিলিন্ডার হেঁসেলে ঢোকেনি, এমন অভিজ্ঞতা হচ্ছে বহু গ্রাহকেরই।
বিশদ

বৃষ্টিতে গতি হারাচ্ছে মণ্ডপের কাজ, চিন্তায় পুজো কমিটিগুলি

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ছিঁচকাঁদুনে বৃষ্টি এভাবে ভোগাতে থাকলে কীভাবে শেষ হবে মণ্ডপ তৈরির কাজ? থিমপুজোর এই বাজারে কোনও পুজো কমিটি দু’মাস, কেউ আবার তিন মাস আগে থেকেই মণ্ডপ তৈরির কাজে নেমে পড়েছে। কিন্তু এত আগে থেকে কোমর বাঁধলেও কাজ তেমন এগচ্ছে না। বৃষ্টির জন্য প্রতি মুহূর্তে বাধা পাচ্ছে কাজের গতি। মণ্ডপ নির্মাতা, থিম মেকার আর পুজো কমিটির কর্তাদের কপালে তাই চিন্তার ভাঁজও চওড়া হচ্ছে।
বিশদ

Pages: 12345




একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ইতিমধ্যেই দক্ষিণ দমদম পুরসভা এলাকায় ডেঙ্গুতে আটজনের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়েছে। অবশেষে নড়েচড়ে বসল দক্ষিণ দমদম পুরসভা। পুরসভার যে সমস্ত ওয়ার্ডে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেশি, সেখানে গাপ্পি মাছ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আজ, সোমবার বাতিল করা হচ্ছে আপ কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী এক্সপ্রেস। পূর্ব রেল জানিয়েছে, বাংলাদেশ রেলের ডাউন লাইনের লিংক ট্রেনটি বাতিল থাকায় আপ লাইনের ট্রেনটিও বাতিল করা হয়েছে। ...

সংবাদদাতা, খড়্গপুর: দাঁতন বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির দুই নিখোঁজ ছাত্রীর খোঁজ মিলল মুম্বইয়ে। তাদের খোঁজে রবিবারই পুলিশের একটি দল মুম্বই ঩গিয়েছে। দাঁতন থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নিখোঁজ দুই ছাত্রীর মোবাইলের সূত্র ধরে তাদের খোঁজ পাওয়া যায়। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মিষ্টির উপর পাঁচ শতাংশ হারে জিএসটি চালু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এর প্রতিবাদে আজ সোমবার রাজ্যজুড়ে মিষ্টির দোকানগুলিতে ধর্মঘট ডাকল পশ্চিমবঙ্গ মিষ্টান্ন ব্যবসায়ী সমিতি। ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে ভাবনা-চিন্তা করে বিষয় নির্বাচন করলে ভালো হবে। প্রেম-প্রণয়ে বাধাবিঘ্ন থাকবে। কারও সঙ্গে মতবিরোধ ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৭৮- ভিনু মানকড়ের মৃত্যু
১৯৮৬- উসেইন বোল্টের জন্ম
১৯৯৫- সুব্রহ্মণ্যম চন্দ্রশেখরের মৃত্যু
২০০৬- ওস্তাদ বিসমিল্লা খানের মৃত্যু
১৯৭২- বন সংরক্ষণ আইন চালু


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৩৫ টাকা ৬৫.০৩ টাকা
পাউন্ড ৮১.২৫ টাকা ৮৪.২১ টাকা
ইউরো ৭৩.৯৬ টাকা ৭৬.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
19th  August, 2017
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) 29465
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) 27955
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) 28375
রূপার বাট (প্রতি কেজি) 39100
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) 39200
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
20th  August, 2017

দিন পঞ্জিকা

৪ ভাদ্র, ২১ আগস্ট, সোমবার, অমাবস্যা রাত্রি ১২/০, অশ্লেষানক্ষত্র দিবা ৩/৫১, সূ উ ৫/১৯/১৪, অ ৬/০/২৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ পুনঃ ১০/২৩-১২/৫৬ রাত্রি ৬/৪৫-৯/১ পুনঃ ১১/১৭-২/১৮, বারবেলা ৬/৫৪-৮/২৯ পুনঃ ২/৫১-৪/২৬, কালরাত্রি ১০/১৫-১১/৪০। পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ (ভারতে অদৃশ্য)
৪ ভাদ্র, ২১ আগস্ট, সোমবার, অমাবস্যা রাত্রি ১২/৮/৯, অশ্লেষানক্ষত্র অপরাহ্ণ ৪/৫৪/৪০, সূ উ ৫/১৬/৪৮, অ ৬/২/২৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৮/৫৩, ১০/২৩/২-১২/৫৬/১০ রাত্রি ৬/৪৭/২২-৯/২/২০, ১১/১৭/১৭-২/১৭/১২, বারবেলা ২/৫১/০-৪/২৬/৪২, কালবেলা ৬/৫২/৩০-৮/২৮/১২, কালরাত্রি ১০/১৫/১৮-১১/৩৯/৩৬। পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ (ভারতে অদৃশ্য)
২৮ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বন্যায় ৭ লক্ষ হেষ্টর চাষের জমি ক্ষতিগ্রস্থ: কৃষিমন্ত্রী

 বন্যায়য় উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গ মিলিয়ে ৭ লক্ষ হেক্টর চাষের জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যার মধ্যেো ৪ লক্ষ জমি উত্তরের। কৃষিতে প্রাথমিক হিসেবে মোট ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৮০০ কোটি টাকা। যার মধ্যে উত্তরে ৫৩৪ কোটি ৫১ লক্ষ টাকাো জানালেন কৃষি মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসু।

05:24:00 PM

 তামিলনাড়ুর উপ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ পনিরসেলভামের

 এআএিডিএমকে-র দুই শিবিরের সংযুক্তিকরণের পর তামিলনাড়ুর উপ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন পনিরসেলভাম

04:49:00 PM

বন্যার জন্য কেন্দ্রে কাছে উপযুক্ত প্যাকেজ চাইব: মমতা

কেন্দ্রের কাছে উপযুক্ত প্যাকেজের দাবি করতে চলেছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান গোটা রাজ্যে এবছর বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ১৪ হাজার কোটি টাকা। কেবলমাত্র উত্তরবঙ্গেই মৃত্যু হয়েছে ৪৫ জনের। আর গোটা রাজ্যে ১৫২জনের। রাজ্যে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়িয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন, ত্রাণ নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। তাই যতটা প্রয়োজন ততটাই ত্রাণ মিলবে। মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, অনেক সড়ক থেকেই জল নামতে শুরু করেছে, তাই যে সমস্ত সড়ক থেকে জল নেমে যাবে, সেখান দিয়েই ধীরে ধীরে ট্রাক পাঠানো হবে। কারণ অনেক ট্রাক পচনশীল দ্রব্য নিয়ে আটকে রয়েছে। পাশাপাশি এই বন্যার নামে যে সমস্ত অসাধু ব্যবসায়ী দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করতে চেষ্টা করছেন তাদের বিরুদ্ধেও নজরদারি চালানো হবে বলে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, জল নামলেই  বন্যা সংক্রান্ত রোগব্যাধির প্রতিষেধক এবং পানীয় জলের পথগুলিকে পরিশ্রুত করার ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে।

04:47:00 PM

সিলেবাস কমিটির প্রস্তাবে সিলমোহর রাজ্য সরকারের, সব ক্লাসে পড়তে হবে কন্যাশ্রী স্বীকৃতি, আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পাঠ্যক্রমে কন্যাশ্রী

04:12:00 PM

বন্যায় দেড় কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত: মুখ্যমন্ত্রী

04:10:07 PM

রাজ্যে যথেষ্ট পরিমানে ত্রান সামগ্রী মজুত রয়েছে: মুখ্যমন্ত্রী

04:10:06 PM