কলকাতা, রবিবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩

গাফিলতি অব্যাহত, লাখ লাখ টাকা বিল মিটিয়েও রোগীমৃত্যু >> মোদির উপর ভরসা রেখেই রামমন্দিরে বিভোর অযোধ্যা >> খড়দহে জ্যোতিষী খুনে ধৃত রহস্যময়ী >> ভাইয়ের ঠিক করা দরে শিশু বেচত চন্দনা >> খোঁজ চলছে চক্রের,  গাড়ি থামিয়ে দুধে মেশাচ্ছে বিষ, দত্তপুকুরে পুলিশের জালে চার >> ভারতীয় অর্থনীতির বিকাশে যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রতিযোগিতাকেই কৃতিত্ব দিলেন জেটলি >> ২ লক্ষ টাকা চেয়ে হুমকি, অভিযোগের তির এমআইসি’র দিকে >> ক্যানসার নয়, কেমোথেরাপি মারছে রোগীদের, মার্কিন অধ্যাপকের দাবিতে শোরগোল >> সারা বিশ্বের মধ্যে ভারতীয়রাই সবচেয়ে বেশি মানসিক অবসাদের শিকার, রিপোর্ট হু’র >> এবার পড়াশুনা ও ফ্ল্যাটের কাঁড়ি খরচেও লাগাম পড়ুক, উঠছে দাবি >> মার্কিন তথ্যকেন্দ্রে হামলার আর এক অভিযুক্ত ধৃত গয়ায়  >> জুহির পাশে দাঁড়ালেন দিলীপ, খুঁজে বের করতে সিআইডিকে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর >> ‘আপনি মুসলিম?’, ফ্লোরিডা বিমানবন্দরে দু’ঘণ্টা আটক বক্সার মহম্মদ আলির ছেলে >>

রবিবার | রেসিপি | আমরা মেয়েরা | দিনপঞ্জিকা | শেয়ার | রঙ্গভূমি | সিনেমা | নানারকম | টিভি | পাত্র-পাত্রী | জমি-বাড়ি | ম্যাগাজিন

 

গাফিলতি অব্যাহত, লাখ লাখ টাকা
বিল মিটিয়েও রোগীমৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ফের চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ। এবারও কাঠগড়ায় ইএম বাইপাস লাগোয়া সেই কর্পোরেট হাসপাতাল। এখানেই সঞ্জয় রায় নামে এক তরতাজা যুবকের ‘অপচিকিৎসা’ নিয়ে বর্তমানে তোলপাড় গোটা রাজ্য। অভিযোগ, এবার ওই হাসপাতালের চিকিৎসা-বিভ্রাটের শিকার এক বৃদ্ধা। নাম রত্না ঘোষ (৬০)। তাঁর আত্মীয় কৌশিক ঘোষ জানান, ১১ ফেব্রুয়ারি শ্বাসকষ্টের সমস্যার জন্য রত্নাদেবীকে ভরতি করা হয়েছিল ওই কর্পোরেট হাসপাতালে। প্রথমে ডাক্তাররা বলেন, হার্টের ভালভের সমস্যার জন্যই এই উপসর্গ দেখা যাচ্ছে। ভালভ পালটাতে হবে। সেজন্য অপারেশন জরুরি। টাকা দিন। দাবিমতো প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা দেওয়া হয়। কিন্তু, তাতেও সমস্যা মেটেনি। এবার বলা হয়, পেসমেকার লাগালে সমস্যা ঩মিটবে। সেজন্য ‘পেসিং’-এর কাজ করতে হবে। টাকা জমা দিন। ফের মোটা অঙ্কের টাকা জমা দেওয়া হয়। কৌশিকবাবু বলেন, শনিবার সকালে রত্নাদেবীকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। হঠাৎ ভোরে আমাদের কাছে ফোন আসে, ওঁর নাকি কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছে। আমরা তো শুনে থ। সুস্থসবল রোগী, ক’দিন আগেও কথাবার্তা, হাঁটাচলা সব ঠিক ছিল। হাসপাতালের কথামতো আমরা টাকাও দিয়েছি। আর এখন বলে কিনা, উনি মারা গিয়েছেন! এ ব্যাপারে জানতে হাসপাতাল-কর্তা জয় বসুকে ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।

মোদির উপর ভরসা রেখেই রামমন্দিরে
বিভোর অযোধ্যা
সমৃদ্ধ দত্ত, অযোধ্যা, ২৫ ফেব্রুয়ারি: এই দেখুন সীতা রসুই। এখানেই সীতামাইয়া রান্না করতেন। পিছনে মাঠটা কিসের? ওটা তো লবকুশের তীর ধনুক প্র্যাকটিসের জায়গা! ওই যে গলিটা দেখছেন ওখানে একটা কুয়ো পাবেন। ওই জল খেতেন রামজি। হনুমান গঢ়ী঩কে বাঁদিকে রেখে সোজা চলে যান। কিছুটা বালিয়াড়ি, তারপর টলটলে জল ওটাই সরযু নদী। ওই ঘাটেই রামনবমীতে আজও আবির্ভাব হয় তাঁর, জানেন নিশ্চয়ই। ওইখানেই লঙ্কা থেকে ফিরে স্নান করেছিলেন। সীতামা যখন দূরে, তখনও মন খারাপ হলে ওইখানেই বসতেন সেই মহামানব। নিছক ভক্তি উদ্রেক করে আরও বেশি দক্ষিণা আদায় করার ফন্দিতে পুরোহিতরা এসব বলেন তা নয়। সাধারণ দোকানি থেকে সরকারি কর্মী সকলেই এরকম কথা বলেন। অযোধ্যা এভাবেই বাস করে রামায়ণে, রামচরিতমানসে। রামজন্মভূমির প্রধান পুরোহিত মোহন্ত দেবেন্দ্রপ্রসাদ আচার্যের জন্য যেখানে বসে অপেক্ষা করছি সেটি দশরথ মহল। পদাধিকারবলে যিনি মোহন্ত হবেন তিনি এই দশরথ মহলে থাকবেন। বললেন মোহন্ত বাবাজির দক্ষিণহস্ত শিবপাল মহারাজ। চক্রবর্তী মহারাজ দশরথ অধিকূলপতি এখানেই থাকতেন কি না। আর ওই পাশের মহলটি কৌশল্যার। এত ছোট প্রাসাদ? শিবপাল ধমকে বললেন, আরে আপনি তো কিছুই জানেন না দেখি!

খড়দহে জ্যোতিষী খুনে ধৃত রহস্যময়ী
বিএনএ, বারাকপুর: খড়দহে জ্যোতিষী ‌জয়ন্ত ভট্টাচার্য খুনে অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল সেই রহস্যময়ী। জানা গেল, সুরেলা কণ্ঠের জাদুতেই সে জ্যোতিষীকে বিদ্ধ করেছিল। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই রহস্যময়ীর নাম শ্রাবণী বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দী ওরফে রিয়া। এছাড়া এই খুনের মাস্টারমাইন্ড সমর আচার্য এবং শ্রাবণীর স্বামী বিশ্বজিৎ নন্দী ওরফে লাল্টুকে শুক্রবার রাতে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। আর সোমনাথ পাল নামে আরও এক অভিযুক্তকে শনিবার সোদপুর থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি জোন-২ ধ্রুবজ্যোতি দে বলেন, স্ত্রীর সঙ্গে জ্যোতিষীর নিবিড় সম্পর্ক সমর ভালোভাবে নেয়নি। এছাড়া টাকাপয়সা নিয়ে দু’জনের মধ্যে একটি সমস্যা চলছিল। জ্যোতিষীকে খতম করতেই টাকার টোপ দিয়ে রিয়া ও তার স্বামীকে সে কাজে লাগিয়েছিল। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সমরের সঙ্গে জ্যোতিষী জয়ন্ত ভট্টাচার্যের অনেকদিন আগে থেকে সম্পর্ক ছিল। এক সময় তারা চিটফান্ডের কারবার করত। পরবর্তীকালে চিটফান্ড নিয়ে কড়াকড়ি হওয়ায় জয়ন্তবাবু জ্যোতিষ চর্চা শুরু করেন। সমরের স্ত্রী মিতা আচার্য পুরানো আলাপের সূত্র ধরে প্রায়ই ‌জ্যোতিষীর বাড়িতে আসত।

ভাইয়ের ঠিক করা দরে শিশু বেচত চন্দনা
অনুপ দত্ত, শিলিগুড়ি, বিএনএ: ভাইয়ের ঠিক করা দরে শিশু বেচত দিদি। কোন নিঃসন্তান দম্পতির কাছ থেকে শিশু বিক্রি বাবদ কত টাকা নেওয়া যেতে পারে তা ভাই ‘স্টাডি’ করে ঠিক করতেন। তারপর দিদি সেই টাকা দাবি করতেন। জলপাইগুড়িতে শিশু পাচারকাণ্ডে অভিযুক্ত হোমকর্ত্রী চন্দনা চক্রবর্তীর ভাই মানস ভৌমিককে জেরা করে এই ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে সিআইডি। পাচারকাণ্ডের আগাগোড়া খুঁটিনাটি বিষয় প্রথম থেকে মানস জানতেন বলে সিআইডি তদন্তে জানতে পেরেছে। মানসের হেপাজত থেকে গুরুত্বপূর্ণ যে ফাইলপত্র সিআইডি বাজেয়াপ্ত করেছে তার মধ্যে একাধিক শিশু কেনাবেচার তথ্য ওই সংস্থার হাতে এসেছে। সিআইডি সূত্রে খবর, ভূমি সংস্কার দপ্তরের কর্মী মানস নিজেকে সমাজকর্মী পরিচয় দিয়ে শিশু দত্তক নিতে ইচ্ছুক নিঃসন্তান দম্পতিদের বাড়িতে যোগাযোগ করতেন। সেখানে কথাবার্তা বলে সেই পরিবারের আর্থিক স্বচ্ছলতা, আগ্রহ দেখে তিনি দরদাম ঠিক করতেন। তারপর সেই মতো শিশুর দাম দেড় লক্ষ টাকা থেকে শুরু হতো। এর জন্য‌ প্রয়োজনীয় নথিপত্রও তৈরি করতেন মানস।

খোঁজ চলছে চক্রের
গাড়ি থামিয়ে দুধে মেশাচ্ছে বিষ, দত্তপুকুরে
পুলিশের জালে চার

বিএনএ, বারাসত: শুধু অভিযোগেই সীমাবদ্ধ নয়। এবার কন্টেনার থামিয়ে দুধে ভেজাল মেশানোর প্রমাণ হাতেনাতে পেল উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পুলিশ। ভেজালের উপকরণ হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছিল—জল, ডিটারজেন্ট বা গুঁড়ো সাবান এবং ব্লিচিং পাউডার! শুক্রবার রাতে দত্তপুকুর থানার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে ময়নাহাট এলাকায় এমনই চাঞ্চল্যকর দুর্নীতি চক্রের হদিশ মিলেছে। আচমকা অভিযান চালিয়ে ওইরাতে হাতেনাতে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, এই চক্রের সঙ্গে আরও অনেকে জড়িত। তাদের গ্রেপ্তার করার জন্য ধৃতদের চারদিনের পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, দুধ বোঝাই একটি নামী সংস্থার কন্টেনার গাইঘাটার কুলপুকুর এলাকা থেকে দুধ নিয়ে আসছিল। তাতে ১২ হাজার লিটার দুধ ছিল। বারাকপুরের নীলগঞ্জ এলাকায় সংস্থার প্ল্যান্টে তা যাওয়ার কথা ছিল।

ভারতীয় অর্থনীতির বিকাশে যুক্তরাষ্ট্রীয়
প্রতিযোগিতাকেই কৃতিত্ব দিলেন জেটলি

রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন, ২৫ ফেব্রুয়ারি: ভারতীয় অর্থনীতির বিকাশের হার বিশ্ব অর্থনীতির বিকাশের হারের চেয়েও বেশি। আর এর জন্য সব কৃতিত্ব পাবে দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় রাজ্যগুলির পারস্পরিক প্রতিযোগিতার মনোভাব। ব্রিটেন সফরে লন্ডন স্কুল অব ইকনমিক্সের ঐতিহাসিক জর্জ বার্নার্ড শ রুমে এক ভাষণে একথা জানালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। তিনি বলেন, এখন রাজ্যগুলির পারস্পরিক দৃষ্টিভঙ্গিতে বদল এসেছে। রাজ্যগুলি সংস্কারমুখী হয়ে নিজেদের জন্য বাজার তৈরি করতে চাইছে। তারা বিদেশ থেকে বিনিয়োগ টানতেও উৎসাহী হচ্ছে। এই প্রতিযোগিতামূলক যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো দেশের পক্ষে অত্যন্ত মঙ্গলজনক হয়েছে। জেটলি বলেন, এমনকী দেশের জাতীয় বৃদ্ধির হারের চেয়ে ৩-৫ শতাংশ বেশি বৃদ্ধির হার চাইছে বেশ কয়েকটি রাজ্য। এতে আখেরে লাভ হচ্ছে দেশেরই। কারণ এর ফলে সামগ্রিকভাবে দেশের বিকাশের হারই বেড়ে যাচ্ছে। আলোচনাসভায় সাম্প্রতিক নোট বাতিলের প্রসঙ্গও উত্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী। বলেন, এই সিদ্ধান্তের ফলে দেশের মোট জাতীয় উৎপাদন আখেরে বৃদ্ধি পাবে। জেটলি বলেন, ডিমানিটাইজেশনের ফলে গ্রামীণ ভারতের উন্নয়ন হচ্ছে।

২ লক্ষ টাকা চেয়ে হুমকি, অভিযোগের তির
এমআইসি’র দিকে

সুজিত ভৌমিক, কলকাতা: তোলাবাজদের দাপটে কলকাতা ক্রমেই অসহনীয় হয়ে উঠছে ব্যবসায়ী থেকে শিল্পপতিদের কাছে। গত তিন মাসে শহরের আলিপুর, শেক্সপিয়র সরণি, কড়েয়া থানায় ইতিমধ্যেই তোলাবাজির অভিযোগ জমা পড়েছে। এবার এই তালিকায় নবতম সংযোজন ওয়েস্ট পোর্ট থানা। লালবাজারের এক বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে, গার্ডেনরিচ শিপ বিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-এ নথিভুক্ত ঠিকাদার সৈয়দ কামাল মেহেদিকে ২ লক্ষ টাকা তোলা চেয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠছে বন্দর এলাকার তৃণমূল নেতা শামিম আনসারি ও কলকাতার মেয়র পরিষদ সদস্য সামসুজ্জামান আনসারির দিকে। চলতি মাসের ২৪ ফেব্রুয়ারি কলকাতার ওয়েস্ট পোর্ট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই ঠিকাদার। যার ভিত্তিতে কলকাতা পুলিশ তোলাবাজি (৩৮৫) এবং সম্মিলিত অপরাধ (৩৪) ধারায় মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত বহাল তবিয়তেই রয়েছেন শাসক দলের ওই দুই নেতা।

রাজ্যের ডাক্তাররা বলছেন ‘ভিত্তিহীন’
ক্যানসার নয়, কেমোথেরাপি মারছে রোগীদের,
মার্কিন অধ্যাপকের দাবিতে শোরগোল

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: ক্যানসারের অন্যতম স্বীকৃত চিকিৎসা পদ্ধতি কেমোথেরাপি নিয়ে জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে। এর মূলে রয়েছে কেমো নিয়ে বরাবরের সেই ‘পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া’ বিতর্ক। এবার কয়েক কাঠি উপরে গিয়ে আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল ফিজিক্স এবং ফিজিওলজির এক প্রাক্তন নামজাদা অধ্যাপক দাবি করেছেন, ক্যানসার নয়, ক্যানসার আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যুর কারণ আসলে কেমোথেরাপি। ডাঃ হার্ডিন বি জোনস নামে এই মার্কিন ক্যানসার পরিসংখ্যানবিদ বলেন, যেসব ক্যানসার বিশেষজ্ঞ কেমোথেরাপি নেননি, তাঁরা বরং কেমোথেরাপি চিকিৎসা চলা রোগীদের তুলনায় গড়পড়তা সাড়ে ১২ বছর বেশি বেঁচেছেন। প্রায় ২৫ বছর ধরে আমেরিকার ক্যানসার আক্রান্ত রোগীদের আয়ু নিয়ে এক সমীক্ষার পর ডাঃ জোনস এই সিদ্ধান্তে এসেছেন বলে জানিয়েছেন। তাঁর আরও বিস্ফোরক অভিযোগ, আসলে ওষুধ কোম্পানিগুলির বেশি লাভের উদ্দেশ্যে এই ব্যয়বহুল চিকিৎসার এত রমরমা। ডাঃ জোনসের এই গবেষণা নিউইয়র্ক আকাদেমি অব সায়েন্স পত্রিকায় প্রকাশিতও হয়েছে। তারপর থেকেই তোলপাড় পড়েছে বিশ্বজুড়ে।

সংখ্যাটা ৫ কোটি ছাড়িয়েছে
সারা বিশ্বের মধ্যে ভারতীয়রাই সবচেয়ে বেশি
মানসিক অবসাদের শিকার, রিপোর্ট হু’র

সন্দীপ স্বর্ণকার, নয়াদিল্লি, ২৫ ফেব্রুয়ারি: সারা বিশ্বের মধ্যে ভারতীয়রাই সবচেয়ে বেশি মানসিক অবসাদ আর উদ্বেগের শিকার। এদেশে প্রতি ২০ জনের মধ্যে একজন অবসাদে আক্রান্ত। প্রতি ২৫ জনে একজন অ্যাংজাইটি অর্থাৎ মানসিক উদ্বেগের শিকার। সমীক্ষা চালিয়ে রীতিমতো চিন্তিত হওয়ার মতো এমনই রিপোর্ট প্রকাশ করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ‘হু’। কেবল ভারতই নয়। গোটা বিশ্বে গত এক দশকে মানসিক অবসাদ আর উদ্বেগাক্রান্তের হার ১৮ শতাংশ বেড়েছে। গোটা বিশ্বে ৩২ কোটির কিছু বেশি মানুষ মানসিক অবসাদের শিকার। যার মধ্যে স্রেফ ভারতেই রয়েছে সাড়ে ৫ কোটিরও বেশি নাগরিক। মূলত গরিবি, বেকারত্ব, প্রেমে প্রত্যাখান, দীর্ঘ শারীরিক অসুস্থতা, লাগাতার মদ্যপান এবং মাদক সেবনই মানসিক অবসাদ আর উদ্বেগের অন্যতম প্রধান কারণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। ভারতের জনসংখ্যার সাড়ে ৪ শতাংশ মানুষ অবসাদে ভোগেন বলে রিপোর্টে প্রকাশ পেয়েছে।

শিকাগোয় ভাষণ: স্বামীজির পাগড়ি আজও সংরক্ষিত রয়েছে হাওড়ার ঘোষবাড়িতে
বিভাস মজুমদার: অভিনব অনেকরকম উপহারের কথা আমরা নানা সময় শুনে থাকি। কিন্তু মুরগির মাংস খেয়ে ভালো লাগায় সৌজন্যবশত নিজের পাগড়িটিই উপহার দেওয়ার ঘটনা অন্যরকম বইকি। সেটি আবার কোনও সাধারণ পাগড়ি নয়, সেটির একটা ঐতিহাসিক গুরুত্ব রয়েছে। আসলে সেই পাগড়িটি ছিল স্বামী বিবেকানন্দের। আর তিনি তা উপহার দিয়েছিলেন এক গৃহকর্ত্রীকে। কে এই গৃহকর্ত্রী, তাঁকে দেওয়া উপহারটির কেনই বা ঐতিহাসিক গুরুত্ব রয়েছে তা জানার আগে ফিরে যাওয়া যাক আজ থেকে ১১৯ বছর আগের কথায়।  সময়টা ছিল ১৮৯৮ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি। সেদিন ছিল মাঘী পূর্ণিমা তিথি। আলমবাজার থেকে একটি নৌকাতে আরও কয়েকজন সন্ন্যাসীকে সঙ্গে নিয়ে হাওড়ার রামকৃষ্ণপুর ঘাটে এসে পৌঁছলেন স্বামী বিবেকানন্দ। এর আগে শিকাগো ধর্ম মহাসমাবেশে ভাষণ দিয়ে সেদেশের মানুষের মন জয় করে ভারতে ফিরেছেন যুবক সন্ন্যাসী বিবেকানন্দ। স্বভাবতই তরুণ এই সন্ন্যাসীকে দেখতে হাওড়ার রামকৃষ্ণপুর ঘাটে সেদিন বহু মানুষ ভিড় জমিয়েছিলেন। তবে তাতে ভ্রুক্ষেপ ছিল না স্বামীজির।

রাত পোহালেই অস্কারের লড়াই। ক্যালিফোর্নিয়ার ডলবি থিয়েটারে দেওয়া হবে ৮৯তম আকাদেমি অ্যাওয়ার্ড। ভারতীয় সময় ভোর সাড়ে ৫টা থেকে টেলিভিশনের পরদায় দেখা যাবে রেড কার্পেটে হেঁটে কে ছিনিয়ে নিল এবারের সেরার শিরোপা। মনোনীত ছবিগুলির ঝলকের পরই সেই চেনা কয়েকটি শব্দ ‘অ্যান্ড দ্য অস্কার গোজ টু...’ দুরু দুরু বুকে অপেক্ষমান বিশ্বের তাবড় অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। এবারের অস্কারের দৌড়ে নেই ভারতের কোনও ছবি। তবে, গার্থ ডেবিস পরিচালিত ‘লায়ন’ নিয়ে আশায় বুক বাঁধছেন এ দেশের চলচ্চিত্রপ্রেমীরা। আশায় রয়েছে তিলোত্তমাও। একদিকে যেমন, এই ছবিতে বহু ভারতীয় এমনকী বাঙালি অভিনেতা-অভিনেত্রীরা কাজ করেছেন। তেমনই অন্যদিকে, ‘লায়ন’-এর কিছুটা শ্যুটিং হয়েছে এই মহানগরীতেই। কলকাতার রাস্তায় হারিয়ে যাওয়া পাঁচ বছরের এক শিশু এবং পরবর্তীকালে তার অতীতকে খোঁজার চেষ্টা নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘লায়ন’। এই ছবিতে কাজ করেছেন এখানকার কৌশিক সেন, ঋদ্ধি সেন, নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি, দীপ্তি নাভাল, প্রিয়াঙ্কা বসুরা। তাঁরা সকলেই ‘লায়ন’-এর সাফল্য কামনা করছেন মনেপ্রাণে। ছ’টি বিভাগে অস্কার নমিনেশন পেয়েছে ‘লায়ন’।


এক নজরে

মাধ্যমিকের হালচাল জানতে
দুই স্কুলের সামনে মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: গত শুক্রবার সিইএসসি এলাকায় বিদ্যুৎ বিভ্রাটের জেরে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের অসুবিধার বিষয়টি নিয়ে তিনি নিজে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। এবার সেই পরীক্ষার্থী এবং তাদের অভিভাবকদের সঙ্গে দেখা করে সরাসরি তাদের সুবিধা-অসুবিধার খোঁজ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার দুপুরে নিজের কালীঘাটের বাড়ি থেকে নবান্নের উদ্দেশে বের হন মমতা। হঠাৎই গাড়ি ঘুরিয়ে দক্ষিণ কলকাতার দুই নামী স্কুল বেলতলা গার্লস এবং ইউনাইটেড মিশনারি স্কুলে যান রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান। মুখ্যমন্ত্রীকে নাগালে পেয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত পড়ুয়াদের অভিভাবকরা। তাঁদের বসার জায়গা, পানীয় জলসহ আনুসঙ্গিক বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজ নেন মমতা। পরীক্ষা ব্যবস্থা ঠিক পরিচালনার হাল হাকিকত জানতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর এই ভাবে স্কুল পরিদর্শন কার্যত বেনজির। যদিও পরীক্ষার্থী কিংবা স্কুল কর্তৃপক্ষের যাতে কোনও সমস্যা না হয়, তা নিশ্চিত করতে কোনও স্কুলের ভিতরে প্রবেশ করেননি তিনি। বেশ কিছুক্ষণ দু’টি স্কুলে কাটিয়ে তারপর নবান্নের উদ্দেশে রওনা হন তিনি।

‘আপনি মুসলিম?’, ফ্লোরিডা বিমানবন্দরে
দু’ঘণ্টা আটক বক্সার মহম্মদ আলির ছেলে

ট্রাম্পের মুসলিম বিরোধী নীতির শিকার হলেন প্রয়াত বক্সিং আইকন মহম্মদ আলির এক ছেলে। মার্কিন মুলুকের এক বিমানবন্দরে নিরাপত্তারক্ষীদের থেকে তাঁকে শুনতে হয়, ‘এই নাম কোথা থেকে পেলেন? আপনি কি মুসলিম?’ এখানেই শেষ নয়, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য টানা দু’ঘণ্টা আটক করে রাখা হয় তাঁকে। তাঁর আইনজীবী প্রশ্ন তুলেছেন, আর কতদিন এভাবে ট্রাম্পের নীতির জন্য সাধারণ মানুষকে ভুগতে হবে! ঘটনাটি ঘটেছে গত ৭ ফেব্রুয়ারি। মহম্মদ আলির দ্বিতীয় স্ত্রী তথা মাকে নিয়ে জামাইকা থেকে ফ্লোরিডা ফিরছিলেন মহম্মদ আলি জুনিয়র। ফিলাডেলফিয়াতে জন্ম তাঁর এবং মার্কিন পাসপোর্টও রয়েছে। কিন্তু ফ্লোরিডায় নামার পরই তাঁর নাম শুনে এগিয়ে আসেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

... বিস্তারিত বিদেশের পাতায়

জুহির পাশে দাঁড়ালেন দিলীপ, খুঁজে বের
করতে সিআইডিকে নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

দলের মধ্যে দ্বন্দ্ব যা-ই থাকুক না কেন, এতদিনে একেবারে দ্ব্যর্থহীনভাবে জুহি চৌধুরির পাশে দাঁড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শিশুপাচার-কাণ্ডে নাম জড়িয়ে যাওয়া উত্তরবঙ্গের এই বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রীর পাশে দল থাকবে, নাকি আগে তিনি তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ থেকে মুক্ত হবেন, তারপর ফের দল তাঁর পাশে দাঁড়াবে— এই প্রশ্নে বিস্তর বিতর্ক এখনও জারি রয়েছে রাজ্য বিজেপির অন্দরে। এই পরিস্থিতিতেই শনিবার দলের রাজ্য দপ্তরের বাইরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রাজ্য সভাপতি সাফ জানিয়ে দিলেন, দল সবসময়ই জুহির পাশে থাকছে এবং থাকবে। তাঁকে মিথ্যা মামলাতে ফাঁসানোর চেষ্টা হচ্ছে। পুলিশের চোখে ‘পলাতক’ জুহিকে প্রয়োজনে তাঁরাই আইনের সামনে আনবেন বলেও জানিয়ে দিয়েছেন দিলীপবাবু। তবে তার আগে তদন্ত করে ন্যায়, অন্যায়, সত্যমিথ্যা প্রমাণ করতে হবে। এদিকে, এদিনই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জুহিকে খুঁজে বার করার জন্য সিআইডিকে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন।

... বিস্তারিত রাজ্যের পাতায়


মার্কিন তথ্যকেন্দ্রে হামলার
আর এক অভিযুক্ত ধৃত গয়ায়

গুজরাত পুলিশের অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াড শুক্রবার রাতে বিহারের গয়ার নিমচাঁদ বাথানি থানা এলাকা থেকে সন্দেহভাজন এক জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতের নাম মহম্মদ সরোবর। বিহার পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, ধৃত সরোবর ২০০২ সালে কলকাতার আমেরিকান সেন্টার হামলাকাণ্ডের একজন অন্যতম পলাতক অভিযুক্ত। যদিও কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই মামলায় চার্জশিটে মহম্মদ সরোবরের নাম নেই। ফলে শনিবার দুপুর থেকেই বিহার পুলিশের দাবি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়। এদিকে, তৎকালীন আমেরিকান সেন্টার হামলা মামলার তদন্তকারী অফিসার তথা কলকাতা পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত ডিসি অনিল করকে ফোন করা হলে তিনি বলেন, মহম্মহ সরোবরের সঙ্গে কলকাতায় আমেরিকান সেন্টারের হামলার সরাসরি কোনও যোগ নেই।

... বিস্তারিত দেশের পাতায়

এবার পড়াশুনা ও ফ্ল্যাটের কাঁড়ি
খরচেও লাগাম পড়ুক, উঠছে দাবি

চিকিৎসায় গাফিলতির পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালগুলির বিরুদ্ধে অকারণে এক কাঁড়ি টাকা বিল করার অভিযোগ নতুন ঘটনা নয়। এই নিয়ে ভূরি ভূরি অভিযোগ ওঠে রোগীর পরিবার-পরিজনের কাছ থেকেই। এতদিন পর্যন্ত সেই সংক্রান্ত অভিযোগের সুরাহা পাওয়ার একমাত্র ঠিকানা ছিল ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তর বা ক্রেতা আদালত। এই চেনা ছকের বাইরে রাজ্য সরকারও যে নিজে থেকে তৎপর হতে পারে, এমন কোনও নিদর্শন রাজ্যবাসীর কাছে নেই বললেই চলে। সম্প্রতি চড়া বিলের কৈফিয়ত নিতে বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমগুলিকে তলব করে হইচই ফেলে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর তৎপরতায় আশার আলো দেখছেন অন্যান্য ক্ষেত্রের গ্রাহকরাও।

... বিস্তারিত ব্যাবসার পাতায়

পরমাণু অস্ত্র মজুতের ক্ষেত্রে
আমেরিকা হবে বিশ্বের এক নম্বর: ট্রাম্প

হোয়াইট হাউজে ঢোকার আগেই বলেছিলেন, তিনি বিশ্বে পারমাণবিক অস্ত্রের প্রতিযোগিতা চান। আর গদিতে বসার চার সপ্তাহের মধ্যে জানিয়ে দিলেন, আমেরিকার পারমাণবিক অস্ত্রের সক্ষমতা বাড়ানোর দিকে অবিলম্বে মন দেবেন। একইসঙ্গে ইঙ্গিত দিলেন, এবারের মার্কিন বাজেট হবে সামরিকবান্ধব। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেন, পারমাণবিক অস্ত্রের সম্ভারে আমেরিকা পিছিয়ে পড়েছে। এই অস্ত্রের মজুতের ক্ষেত্রে আমেরিকাকে বিশ্বের এক নম্বরে থাকতে হবে। ডোনাল্ড ট্রাম্প সাক্ষাৎকারে উত্তর কোরিয়া, ন্যাটো, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আরব দুনিয়ার সংকট নিয়েও কথা বলেন।

... বিস্তারিত বিদেশের পাতায়

নাম জড়াল কোহলি, কৈলাস খেরের
ত্রাণের অর্থ নয়-ছয়ের অভিযোগ
উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে

বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের আগে উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হরিশ রাওয়াতের বিরুদ্ধে ত্রাণ তহবিলের অর্থ নয়-ছয়ের অভিযোগ আনল বিজেপি। এবং সেখানে নাম জড়াল গায়ক কৈলাস খের ও ভারতের ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলির। বিজেপি নেতা অজেন্দ্র অজয়ের অভিযোগ, কোহলিকে দিয়ে বানানো রাজ্য পর্যটনের একটি বিজ্ঞাপনের খরচ ত্রাণ তহবিলের ৪৭ লক্ষ ১৯ হাজার টাকা দিয়ে মেটানো হয়েছে। সেই টাকা কৈলাস খেরের সংস্থার মাধ্যমে ক্রিকেটারকে দেওয়া হয়েছে।

... বিস্তারিত দেশের পাতায়

মাধ্যমিকের ইতিহাস পরীক্ষাতেও
দেদার নকল মালদহে, রায়গঞ্জে
দুর্ঘটনায় জখম ১৫ পরীক্ষার্থী

মাধ্যমিক পরীক্ষায় মালদহে নকলে রাশ টানা যাচ্ছে না। শনিবার ইতিহাস পরীক্ষার দিনও জেলার বিভিন্ন স্কুলে দেদার নকলের ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। এদিন চাঁচল মহকুমার সামসির বৈদ্যনাথপুর হাই স্কুলে তিনতলার ঘর পর্যন্ত দেওয়াল দিয়ে উঠে নকল সরবরাহের ছবি ধরা পড়েছে। নজরদারি ও পরীক্ষা পরিচালন ব্যবস্থার ত্রুটির জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, পরীক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর থেকেই স্কুলবাড়ির দেওয়াল দিয়ে উঠে প্রতিটি ঘরের জানালা দিয়ে নকল সরবরাহ করতে দেখা গিয়েছে। জেলার বিভিন্ন স্কুলের নিচে আশেপাশে টুকলির কাগজ মিলেছে।

... বিস্তারিত উঃবঙ্গের পাতায়



 ১৮০২—ফরাসি লেখক ভিক্টর হুগোর জন্ম

 ১৯০৮—লেখিকা লীলা মজুমদারের জন্ম

 ১৯৩৭—চিত্র পরিচালক মনমোহন দেশাইয়ের জন্ম

 
ক্রয়মূল্য

বিক্রয়মূল্য

ডলার

৬৫.৯০

৬৭.৫৮

পাউন্ড

৮২.৩৮

৮৫.১৫

ইউরো

৬৯.৩৬

৭১.৮০

পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩০,২০০ টাকা
গহনা সোনা (১০ গ্রাম) ২৮,৬৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৯,০৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৭০০ টাকা
ওই খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৮০০ টাকা

 

 




বিশেষ নিবন্ধ


স্বাস্থ্য-ব্যাবসা: মুখ্যমন্ত্রীর কঠোর বার্তায় সাধারণ মানুষ বুকে বল পাচ্ছেন
শুভা দত্ত


শেষ হাসি কে হাসে
সেই অপেক্ষায়
সৌম্য বন্দ্যোপাধ্যায়


বিপন্ন পাট শিল্প—
উত্তরণের পথ খোঁজা
বিশ্বজিৎ মুখোপাধ্যায়


আলু নিয়ে দরকার
আগাম পরিকল্পনা

নিমাই দে


কেন্দ্রীয় বাজেটে আগামী বর্ষে মোট ব্যয়বৃদ্ধি চলতি বর্ষের তুলনায় অনেক কম
দেবনারায়ণ সরকার

Advertisement


টেট রাজনীতি
মেরুনীল দাশগুপ্ত


বৈষম্যের প্রেক্ষাপটে সাম্যের পরীক্ষা
কল্যাণ বসু


শিল্প-বাণিজ্যের এক
শ্রেষ্ঠ বাঙালি নেতা

হারাধন চৌধুরী



?Copyright Bartaman Pvt Ltd. All rights reserved
6, J.B.S. Haldane Avenue, Kolkata 700 105
 
Editor: Subha Dutta